বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ১২:২৩ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
পটুয়াখালীতে প্রস্তাবিত পটুয়াখালী ইপিজেড ও ইনভেস্টরস ক্লাবের অগ্রগতির পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত।  বিশ্ব ঐতিহ্য বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ সুন্দরবন ঘুরে আসুন জীববৈচিত্র্য উপভোগ করতে গাইবান্ধার পলাশবাড়ী সুলতানপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অনিয়মের অভিযোগ তদন্ত। আইনমন্ত্রী, আপনি বাপের ‘কুলাঙ্গার সন্তান’: ডা. জাফরুল্লাহ মাদ্রাসা প্রধানদের জন্য সুখবর প্রাথমিক বিদ্যালয় খোলার প্রস্তুতি শুরু হাজারবার কুরআন খতমকারী আলী আর নেই তানোরে আওয়ামী লীগ মুখোমুখি উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হওয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে অভিবাদন জানিয়ে পাবনা জেলা ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল দিনাজপুর বিরামপুর পৌরসভায় ১১ মাসপর বেতন পেলেন কর্মকর্তা ও কর্মচারী গণ করোনার টিকা নিলেন মির্জা ফখরুল ও তার স্ত্রী রাজনীতিতে সামনে আরও খেলা আছে ইসিকে অপদস্ত করতে সবই করছেন মাহবুব তালুকদার: সিইসি ৪ অতিরিক্ত সচিবের দফতর বদল এ সংক্রান্ত আদেশ জারি রাজারহাটে কৃষক গ্রুপের মাঝে কৃষিযন্ত্র বিতরণ

অভিভাবকহীন শৈলকুপা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সের এ্যাম্বুলেন্স

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃ
ঝিনাইদহের শৈলকুপা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সের এ্যাম্বুলেন্স টি কি অভিভাবকহীন ? নিয়োগ প্রাপ্ত চালক নাই ? যে ইচ্ছে সেই গাড়িটিতে রোগী নিয়ে ছুটছে ঢাকা সহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে! অনেকের ব্যক্তিগত আয়ের উৎস হয়ে দাঁড়িয়েছে সরকারী এই এ্যাম্বুলেন্সটি। অন্যদিকে হাসপাতালের বেড দেখা গেছে এ্যাম্বুলেন্সের চালকের বাড়িতে! অনুসন্ধ্যানে জানা গেছে, সর্বশেষ গত শুক্রবারও শৈলকুপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটির এ্যাম্বুলেন্স ঢাকা মেডিকেলের উদ্দ্যেশ্যে বের হয় সুমীর সাহা নামের এক রোগী নিয়ে। মিল্টন ও স্বপন নামের দুই যুবক এ্যাম্বুলেন্স চালিয়ে ঢাকা যায়। কিডনি জোটিলতায় ভোগা নগরপাড়ার এই রোগী কে শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে শৈলকুপা থেকে নেয়া হয়। এদিকে হাসপাতালের জরুরী বিভাগে তখন খোঁজ নিলে বলা হয় সরকারী এ্যাম্বুলেন্সটির নিয়োগপ্রাপ্ত ড্রাইভার বকুল মিয়া গাড়িটি নিয়ে হাসপাতাল থেকে বের হয়েছিল। এদিকে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে, হাসপাতালের গেট পার হওয়ার সাথে সাথেই নিয়োগপ্রাপ্ত ড্রাইভার বকুল মিয়া এ্যাম্বুলেন্সটি ছেড়ে দেয় অন্যান্যের হাতে ! গত শুক্রবারও একই ঘটনা ঘটিয়েছে এই ড্রাইভার। অভিযোগ উঠেছে হাসপাতালের অসাধু কিছু ডাক্তার-কর্মকর্তাদের সাথে যোগসাজস রয়েছে এই ড্রাইভারের। তাদের মাধ্যমেই হাসপাতালের জরুরী সেবায় নিয়োজিত এ্যাম্বুলেন্সটি লাইসেন্স বিহীন চালকদের হাতে ছেড়ে দেয়া হয় দিনের পর দিন। রোগীর স্বজন সহ বিভিন্ন মহলে প্রশ্ন উঠেছে লাইসেন্স বিহীন চালক বা বহিরাগতরা যখন হাসপাতালের রেফার রোগী নিয়ে দেশের বিভিন্ন জায়গা যায় পথিমধ্যে দুর্ঘটনা ঘটলে তার দায় নেবে কে ? এ্যাম্বুলেন্স নিয়ে অনুসন্ধানে বেরিয়ে এসেছে অনিয়মের ভয়াবহ চিত্র। জানা গেছে বকুল মিয়া শৈলকুপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী কাজে নিয়োজিত এ্যাম্বুলেন্সটির নিয়োগপ্রাপ্ত চালক/ড্রাইভার। তার বাড়ি শৈলকুপার বাজারপাড়া এবং দীর্ঘ বছর ধরে তিনি শৈলকুপাতেই কর্মরত রয়েছে। এই সুযোগ নিয়ে ড্রাইভার বকুল মিয়া এলাকার প্রভাবশালীদের নিয়ে সিন্ডিকেট গড়ে তুলেছে। হাসপাতালের অসাধু কিছু কর্মকর্তাদের সাথেও গড়ে তুলেছে সখ্যতা। তাদের কারণেই নানা তদবিরে বারবার অনিয়ম করেও পার পেয়ে যাচ্ছে বকুল মিয়া। সে নিজে এ্যাম্বুলেন্স না চালিয়ে তার পুত্র মিল্টন,লিটন,মিলন ও ভাগ্নে স্বপন হররোজ এ্যাম্বুলেন্সটি চালিয়ে আসছে রোগী নিয়ে। হাসপাতালের ছাড়পত্র ছাড়া বহিরাগত রোগী নিয়েও ঢাকা সহ বিভিন্ন হাসপাতালে আনা নেয়া করা হচ্ছে। এ্যাম্বুলেন্সটির তেল ব্যবহার নিয়েও রয়েছে নানা কারসাজি। ড্রাইভার বকুল সরকারী চাকুরীবিধি লঙ্ঘন করে বাড়ি বসে বিলাসী জীবন-যাপন করে আসছে। এমনকি হাসপাতালের বেডও দেখা গেছে তার বাড়িতে! ফোম সহ হাসপাতালের বেড তার নিজ বাড়িতে ব্যবহার হচ্ছে। হাসপাতালের সুত্রগুলো বলছে এর আগে একাধিকবার শতর্ক করা হয়েছে, শোকজ করা হয়েছে এ্যাম্বুলেন্সটির চালক বকুল মিয়া কে। কিন্তু তিনি এসব বিষয়ে পাত্তা দেন না। তবে এসব ব্যাপারে শৈলকুপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এ্যাম্বুলেন্স চালক বকুল মিয়া জানান, এখন থেকে তিনিই গাড়ি চালাচ্ছেন, অন্যরা গাড়ি চালাচ্ছেন না। এসব ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে শৈলকুপা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা রাশেদ আল মামুন জানান, বিষয়টি স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বরাবর লিখিত ভাবে জানানো হয়েছে। এ ছাড়া তাকে শোকজ করা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38347330
Users Today : 119
Users Yesterday : 2714
Views Today : 292
Who's Online : 34

© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/