মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ১১:১০ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে ডাবের খোসায় গর্ত ভরাট‍! নিয়মিত পর্নো ভিডিও দেখতেন শিশুবক্তা রফিকুল আইপিএল নিয়ে জুয়ার আসর থেকে আটক ১৪ কারাগারে কেমন কাটছে পাপিয়ার দিনকাল এক ঘুমে কেটে গেলো ১৩ দিন! কেউ ‘কাজের মাসি’, কেউবা ‘সেক্সি ননদ-বৌদি’ ৬৪২ শিক্ষক-কর্মচারীর ২৬ কোটি টাকা ছাড় করোনায় আরো ৬৯ জনের মৃত্যু, আক্রন্ত ৬০২৮ বাংলাদেশে করোনা টানা তিনদিন রেকর্ডের পর কমল মৃত্যু, শনাক্তও কম করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও আইজিপি শো-রুম থেকে প্যান্ট চুরি করে ধরা খেলেন ছাত্রলীগ নেতা করোনা নিঃশব্দ ও অদৃশ্য ঘাতক,সতর্কতাই এ থেকে মুক্তির একমাত্র পথ ——-ওসি দীপক চন্দ্র সাহা তানোরে প্রণোদনার কৃষি উপকরণ বিতরণ শিবগঞ্জে কৃষি জমিতে শিল্প পার্কের প্রস্তাবনায় এলাকাবাসীর মানববন্ধন সড়কের বেহাল দশায় চরম জনদুর্ভোগ

অভিযোগ সাবেক ইউএনও’র বিরুদ্ধে: বন্ধ নির্মাণকাজ অভয়নগরে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর গৃহহীনদের বসতঘর নির্মাণে অনিয়ম

অভয়নগর প্রতিনিধি
অভয়নগরে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠির গৃহহীনদের বসতঘর নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ
পাওয়া গেছে। নির্মাণকাজে ব্যবহার করা হয়েছে নি¤œমানের সামগ্রী।
উপকারভোগীদের কাছ থেকে নেওয়া হয়েছে টাকা। শুরু হয়নি চার ইউনিয়নের ৬টি
বসতঘর নির্মাণের কাজ।
উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছরে প্রধানমন্ত্রীর
কার্যালয় হতে বাস্তবায়নাধীন ‘বিশেষ এলাকার উন্নয়নের জন্য উন্নয়ন
সহায়তা’ শীর্ষক কর্মসূচির আওতায় ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠির গৃহহীনদের বসতঘর
নির্মাণে উপজেলার ৮টি ইউনিয়নে ২০টি বসতঘর নির্মাণের জন্য বরাদ্দ দেওয়া হয়
৩৫ লাখ টাকা। উপজেলার প্রেমবাগ ইউনিয়নের ৩টি, সুন্দলী ইউনিয়নে ৪টি,
চলিশিয়া ইউনিয়নে ৪টি ও পায়রা ইউনিয়নে ৩টি বসতঘরের নির্মাণকাজ শুরু
হয়েছে। ১৪টির মধ্যে ১১টি বসতঘর নির্মাণে নি¤œমানের নির্মাণ সামগ্রী
ব্যবহার করায় নির্মাণের কাজ বন্ধ আছে। শ্রীধরপুর ইউনিয়নে ১টি, বাঘুটিয়া
ইউনিয়নে ১টি এবং শুভরাড়া ও সিদ্ধিপাশা ইউনিয়নে ২টি করে মোট ৬টি ঘরের
নির্মাণ কাজ এখনও শুরু হয়নি। ঘরপ্রতি নির্মাণ কাজে ব্যয় ধরা হয়েছে ১ লাখ
৭৫ হাজার টাকা।
এমন সংবাদের ভিত্তিতে সরেজমিনে চলিশিয়া ইউনিয়নের ঋষিপল্লীতে গিয়ে
দেখা যায়, শ্রীমতি রানী দাস, চিত্তরঞ্জন দাস ও মিরা রানী দাসের বসতঘর নির্মাণ
কাজ বন্ধ আছে। এ ব্যাপারে মীরা রানী দাস জানান, আমার ঘর নির্মাণকাজে
ব্যবহার করা হয়েছে নি¤œমানের ইট, বালু ও সিমেন্ট। ইট ও মাটি ভরাটের জন্য
দিতে হয়েছে ৩ হাজার টাকা। ভিত না করে ঘাসের ওপর গাঁথুনি দেওয়া হয়েছে। যা
কয়েক দিন পর ভেঙ্গে পড়েছে। উপকারভোগী শ্রীমতি রানী দাস ও চিত্তরঞ্জন দাস
একই অভিযোগ করে সাবেক ইউএনও নাজমুল হুসেইন খানের বিচার দাবি করেন।
জানা গেছে, গত ১৭ ফেব্রæয়ারি থেকে ১৪টি বসতঘর নির্মাণের কাজ শুরু
করেন সাবেক নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নাজমুল হুসেইন খান। কাজ শেষের পূর্বে
ওই ১৪টি ঘরের বরাদ্দের টাকা তুলে নেওয়ার অভিযোগ আছে। এছাড়া নওয়াপাড়া
বাজারের ব্যবসায়ীদের ভয়ভীতি দেখিয়ে নিয়েছেন ইট, বালু ও সিমেন্ট। নাম
প্রকাশ না করার শর্তে এক সিমেন্ট ব্যবসায়ী জানান, ঝামেলা এড়াতে ইউএনও
নাজমুল হুসেইন খানকে ৩০০ বস্তা সিমেন্ট ফ্রি দিয়েছি। সেই সিমেন্ট ব্যবহার
করা হচ্ছে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্টির বসতঘর নির্মাণেকাজে।
এ ব্যাপারে প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রিজিবুল ইসলাম জানান, ১৪টি ঘরের
নির্মাণকাজের মধ্যে অনিয়মের অভিযোগে ১১টি ঘরের নির্মাণ কাজ বন্ধ আছে।
পূনরায় ওই ১১টি ঘরের নির্মাণ কাজ শুরু করা হবে। দ্রæত সময়ের মধ্যে অপর ৪টি
ইউনিয়নের ৬টি বসতঘর নির্মাণের কাজ শুরু করা হবে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আমিনুর রহমানের মুঠোফোনে কথা হলে
তিনি জানান, আমি নতুন এসেছি। নি¤œমানের সামগ্রী দিয়ে যেসব ঘর
নির্মাণ করা হচ্ছে তা পূণনির্মাণ করা হবে। প্রধানমন্ত্রীর উপহারের বসতঘরে
নি¤œমানের সামগ্রী ব্যবহার করা যাবে না।

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহ্ধসঢ়; ফরিদ জাহাঙ্গীর জানান, মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে
বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক গৃহহীনদের জন্য ঘর নির্মাণের
অনিয়ম বরদাস্ত করা হবে না। অনিয়ম-দুর্নীতি হলে তা প্রতিরোধ করা হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38444361
Users Today : 1316
Users Yesterday : 1256
Views Today : 16947
Who's Online : 35
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design And Developed By Freelancer Zone