মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ০১:০৫ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
যে দেশে নারীদের চেয়ে পুরুষরা বেশি ধর্ষিত পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ফরম বিতরণ শুরু মঙ্গলবার বিছানায় মেয়েরাই বেশি নোংরা সেনাবাহিনী যেকোনো প্রয়োজনে দায়িত্ব পালনে প্রস্তুত: সেনাপ্রধান সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন, জাতীয় দিবসে খোলা সকালে সহবাস করলেই অবিশ্বাস্য উপকারিতা মাদক পরীক্ষায় ধরা পড়লেন ৬৮ পুলিশ, চাকরি গেল ১০ জনের ২০০ প্লটের মালিক গোল্ডেন মনির, বাসাতেই ৬০০ ভরি স্বর্ণ করোনা ভ্যাকসিনের সম্ভাব্য দাম কঠোর হচ্ছে সরকার, মাস্ক না পরলে জরিমানা ৫ হাজার টাকা বীর মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক মন্টুর স্মরণে পাবনা জেলা শ্রমিক লীগের কোরআন খতম ও দোয়া মাহফিল বরিশালের দুই পৌর নির্বাচনের তফসিল ঘোষনা বরিশালে চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার রহস্য উদ্ধসঢ়;ঘাটন হয়নি ॥ বাড়ছে লাশের সংখ্যা কুড়িগ্রামের বাঁশজানি সীমান্তে এক বাংলাদেশীকে আটক করেছে বিএসএফ সিলেট অঞ্চলের মানুষের স্বাস্থ্যসেবা উন্নয়নে নতুন মাত্রা কৈতক ট্রমা সেন্টার  –মুহিবুর রহমান মানিক এমপি

আজ থেকে ২২ দিন: লক্ষ্মীপুরের মেঘনায় মাছ ধরা বন্ধ ঘোষণা

লক্ষ্মীপুর:

প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ রক্ষায় বুধবার (১৪ অক্টোবর) থেকে লক্ষীপুরের মেঘনা নদীতে ইলিশসহ সকল ধরনের মাছ ধরা নিষিদ্ধ করেছে সরকার। ১৪ই অক্টোবর থেকে ৪ঠা নভেম্বর পর্যন্ত এ ২২দিন লক্ষীপুরের রায়পুর ও রামগতির চর আলেকজান্ডার থেকে চাঁদপুরের ষাটনল এলাকা ১০০ কিলোমিটার পর্যন্ত মেঘনা নদীতে সব ধরনের মাছ ধরার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

এ সময় ইলিশ সংরক্ষণ, আহরণ, পরিবহন, বাজারজাত করণ ও মজুদকরণ নিষিদ্ধ করেছে সরকার। এদিকে নিষেধাজ্ঞা বাস্তবায়ন করতে মেঘনার উপকূলবর্তী এলাকায় সমাবেশ, পোষ্টার ও ব্যানার ঝুলিয়ে জেলেদেরকে সচেতন করতে প্রচার প্রচারণা চালানো হচ্ছে বলে জানান মৎস্য বিভাগের কর্মকর্তারা।

মৎস্য সম্পদ রক্ষায় ইলিশ প্রজনন মৌসুমে লক্ষীপুরের রামগতির চরআলেকজান্ডা থেকে চাঁদপুরের ষাটনাল এলাকা ১০০ কিলোমিটার পর্যন্ত মেঘনা নদী ইলিশের অভয়াশ্রম। এ সময় মা ইলিশের নিরাপদ বিচরণ ও ইলিশের বংশবৃদ্ধির লক্ষ্যে ১৪ অক্টোবর থেকে ৪ঠা নভেম্বর পর্যন্ত মেঘনা নদীতে সব ধরনের মাছ ধরা নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে প্রশাসন। অভিযান সফল করতে এরই মধ্যে জেলার সবকয়টি বরফ কলের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। মাছঘাট সংলগ্ন বাজারে নৌকা ও ট্রলারের জ্বালানি তেলের দোকান বন্ধ রাখাসহ বিভিন্ন কর্মসুচি হাতে নিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

এদিকে, প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ রক্ষায় ও অভিযান সফল করতে এ-২২ দিন নদীতে না যাওয়ার কথা জানালেন লক্ষীপুরে জেলেরা। অবশ্য এ নিষেধাজ্ঞাকালীন সময়ের মধ্যে সরকারের নিকট খাদ্য সহায়তারও দাবী জানিয়েছেন তারা। তবে অনেক জেলে ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, নিষেধাজ্ঞাকালীন সময়ে কোন খাদ্য সহযোগীতাই পান তারা। এতে করে পরিবার পরিজন নিয়ে হিমশিম খেতে হয় তাদের। তাই বাধ্য হয়েই অনেক সময় ঝুঁকি নিয়ে নদীতে মাছ ধরতে যাওয়ার কথা জানান তারা। অবশ্য, এবার মৎস্য ব্যবসায়ী ও আড়ৎদাররা জানালেন, মা ইলিশ রক্ষায় এ ২২দিন জেলেদেরকে নদীতে না যাওয়ার জন্য বলা হয়েছে।

এ দিকে মা ইলিশ রক্ষায় অভিযান সফল করতে সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান মৎস্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তা মো. বিল্লাল হোসেন।

মৎস্য অধিদপ্তর সূত্র জানায়, জেলায় নিবন্ধিত জেলে রয়েছে ৫২ হাজার। তবে বেসরকারী হিসাবে এ জেলায় জেলের সংখ্যা প্রায় ৬৫ হাজার। নিষেধাজ্ঞাকালীন সময়ে নদীতে মাছ ধরা বন্ধ রাখতে জেলেদের আর্থিক সুবিধা প্রদান বা বিকল্প কর্মসংস্থানের দাবী জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

37854285
Users Today : 138
Users Yesterday : 1947
Views Today : 352
Who's Online : 21
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design & Developed BY Freelancer Zone