মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৭:০৯ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
যে দেশে নারীদের চেয়ে পুরুষরা বেশি ধর্ষিত পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ফরম বিতরণ শুরু মঙ্গলবার বিছানায় মেয়েরাই বেশি নোংরা সেনাবাহিনী যেকোনো প্রয়োজনে দায়িত্ব পালনে প্রস্তুত: সেনাপ্রধান সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন, জাতীয় দিবসে খোলা সকালে সহবাস করলেই অবিশ্বাস্য উপকারিতা মাদক পরীক্ষায় ধরা পড়লেন ৬৮ পুলিশ, চাকরি গেল ১০ জনের ২০০ প্লটের মালিক গোল্ডেন মনির, বাসাতেই ৬০০ ভরি স্বর্ণ করোনা ভ্যাকসিনের সম্ভাব্য দাম কঠোর হচ্ছে সরকার, মাস্ক না পরলে জরিমানা ৫ হাজার টাকা বীর মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক মন্টুর স্মরণে পাবনা জেলা শ্রমিক লীগের কোরআন খতম ও দোয়া মাহফিল বরিশালের দুই পৌর নির্বাচনের তফসিল ঘোষনা বরিশালে চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার রহস্য উদ্ধসঢ়;ঘাটন হয়নি ॥ বাড়ছে লাশের সংখ্যা কুড়িগ্রামের বাঁশজানি সীমান্তে এক বাংলাদেশীকে আটক করেছে বিএসএফ সিলেট অঞ্চলের মানুষের স্বাস্থ্যসেবা উন্নয়নে নতুন মাত্রা কৈতক ট্রমা সেন্টার  –মুহিবুর রহমান মানিক এমপি

আলোর ফাঁদে ফলসের ক্ষতিকারক পোকা দমন;

 

মোঃ নাসির উদ্দিন, ভূঞাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি: আলোর ফাঁদ। নামটি খুব অপরিচিত। কিন্তু, সারা দেশব্যাপি আলোর ফাঁদের বেশ জনপ্রিয়তা বাড়ছে বিষাক্ত নানা ধরণের ক্ষতিকারক পোকা দমনে। আলোর ফাঁদ ব্যবহারে গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা কতটুকু তাও তুলে ধরছেন কৃষি অধিদপ্তরের বিভিন্ন কর্মকর্তারা।

মূলত ফসলের ক্ষতিকর পোকা দমনে বর্তমানে বিষাক্ত কীটনাশক ব্যবহারেও অনেকটা ব্যয়বহুল। আবার বিষাক্ত কীটনাশক ব্যবহারে যতটা না উপকার তার চেয়ে বেশি ক্ষতিকর পরিবেশ ও মানব স্বাস্থ্যের জন্য। এসব কিছু বিবেচনায় পোকা দমনে কীটনাশক ব্যবহারের বিকল্প পদ্ধতি আলোর ফাঁদ।

ধান, সবজি ও পুকুরের ক্ষতিকারক পোকা মাকড় দমনে আলোর ফাঁদ বেশ কার্যকর। আলোর ফাঁদের মাধ্যমে ধান ক্ষেতের জন্য উপকারী ক্ষতিকর পোকাও শনাক্ত করা সম্ভব হয়। পরিবেশ বান্ধব এ পদ্ধতি দেশব্যাপি কৃষকদের মধ্যে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।

রোপা আমনের পাশাপাশি সবজি ক্ষেতের ক্ষতিকারক পোকা ধ্বংসে আলোর ফাঁদ ব্যবহারে কৃষকদের উৎসাহ উদ্দীপনা দিচ্ছেন টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলা কৃষি অধিদপ্তর। ইতোমধ্য উপজেলার বিভিন্ন ব্লকে প্রায় অর্ধশতাধিক আলোর ফাঁদ প্রর্দশনী কার্যক্রম হাতে নিয়েছে।

উপজেলার পৌরএলাকা, নিকরাইল, ফলদা, অর্জুনা, অলোয়া ও গোবিন্দাসী ইউনিয়নের বিভিন্ন ব্লকে প্রতি সপ্তাহে একবার করে আলোর ফাঁদের কার্যক্রম করেন ভূঞাপুর উপজেলা কৃষি অধিদপ্তর।

আলোর ফাঁদের বিষয়ে ভূঞাপুর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার এস.এম রাশেদুল হাসান বলেন, বিষাক্ত কীটনাশকের বিকল্প হচ্ছে আলোর ফাঁদ। যা পরিবেশ বান্ধব একটি সহজ পদ্ধতি। কৃষকদের সুবিধাও রয়েছে। আলোর ফাঁদের ফলে উপকারি ড্যাম সেল ফ্লাই পোকা পাওয়া গেলেও ক্ষতিকর মাজরা পোকা, বাদামি গাছফড়িং পাওয়া যায় না তেমন। তবে হ্যাঁ এ পদ্ধতির ফলে কৃষকরা ধান ও সবজি ক্ষেতে পোকা খুব সহজেই দমন সনাক্ত করতে পারবে আলোর ফাঁদে।

রাশেদুল বলেন, ধান গাছে ভাইরাস সংক্রমণকারী পোকার উপস্থিতি সহনীয় মাত্রায় রয়েছে এবং সাধারণ কিছু পোকার উপস্থিতি রয়েছে। সন্ধ্যার পর বিভিন্ন পোকামাকড় ধান ক্ষেতে আক্রমণ করে থাকে। এজন্য জমির পাশের আইলগুলোয় গাছের ডাল পুঁতে সেখানে ১ থেকে দেড় ঘণ্টা ১ টি সাদা বাল্ব জ্বালিয়ে রাখা হয়। এর নিচে ১ টি পাত্রে পানি রাখা হয়। অন্ধকারে পোকা-মাকড় বাল্বের আলোয় চলে আসে এবং গরম বাল্বের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে পানিতে পড়ে গিয়ে ক্ষতিকর পোকাগুলো মারা যায়।

উপজেলার প্রায় অর্ধশতাধিক আলোর ফাঁদের মধ্য প্রায় ১৯ টি ব্লকে সন্ধ্যায় ৭ টার পরে আলোর ফাঁদ স্থাপন করা হয়েছে। সেখানে এলাকার কৃষক ও বিভিন্ন সবজি চাষিরা অংশগ্রহণ করেন। আলোর ফাঁদে পড়া পোকা মাকড়ের পরিচয় শনাক্ত করে তা চাষিদের বুঝিয়ে দেয়া হয় বলেও জানান এই কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার। তিনি আরও বলেন, বাদামী গাছ ফড়িং, পাতা মোড়ানো পোকা ও নলি মাছির উপস্থিতি আলোর ফাঁদে খুব কম পাওয়া যায়। কাজেই চাষিদের দুশ্চিন্তা করার কোনো কারণ নেই।

দু’কয়েকটি স্থানে পাতা মোড়ানো পোকা ও মাজরা পোকার উপস্থিতি থাকলেও তা আশঙ্কাজনক নয়। ক্ষেতে পাখি বসার উপযুক্ত ব্যবস্থা অর্থাৎ প্যাঁচিং পদ্ধতি গ্রহণ করতে পারলেই এগুলো দমন করা সম্ভব হবে বলে জানান।

ভূঞাপুর উপজেলা কৃষি অফিসার মো. জিয়াউর রহমান বলেন, আলোর ফাঁদ বর্তমানে কৃষকদের কাছে বেশ জনপ্রিয় হয়েছে উঠেছে। এ পদ্ধতি গ্রহণে খুব দ্রুত ক্ষতিকর ও উপকারি পোকা শনাক্ত করা সম্ভব। যার ফলে পোকা নির্ণয় করে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া যায় ফসলি জমির উপর। নিরাপদ ও বিষমুক্ত খাদ্য সংরক্ষণে আলোর ফাঁদের ভূমিকা অতুলনীয়।

জিয়াউর রহমান বলেন, পোকা দমনে আলোর ফাঁদ পদ্ধতি ব্যবহারে উপজেলার বিভিন্ন ব্লকের ধান ক্ষেতের জমির আইলে আলোর ফাঁদ স্থাপন করা হয়। কৃষকদের অংশগ্রহণে বুঝিয়ে দেয়া হয় আলোর ফাঁদের উপকারিতা। ক্ষতিকর পোকা দমনে আলোর ফাঁদের কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়েছে। যা সম্পূর্ণ করতে আমরা কৃষকের বিভিন্ন ভাবে সহযোগিতা করাসহ নানা ভাবে মাঠ পর্যায়ে প্রশিক্ষণ দিয়ে আসছি।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

37854611
Users Today : 464
Users Yesterday : 1947
Views Today : 1955
Who's Online : 16
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design & Developed BY Freelancer Zone