সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:১৮ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
পশ্চিম সুন্দরবনের অভয়ারন্যে পাঁচ জেলে আটক রাজাপুর বর্নাঢ্য আয়োজনে শেখ হাসিনার জন্মদিন পালিত রাজাপুরে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে অবহিতকরন সভা রাজাপুরে বিশ^ জলাতঙ্ক দিবস পালিত রাজাপুরে আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস পালিত দিনাজপুরের বিরামপুরে খড় ভর্তি টিলার উল্টে গিয়ে একজনের মৃত্যু! দৈনিক বিজয় ও স্বাধীন বাংলাদেশ পত্রিকার প্রকাশকের বাড়িতে হামলা \ ভাংচুর সাপাহারে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে এতিম শিশুদের খাওয়ালো ছাত্রলীগকর্মী অপু রাসেল আক্কেলপুরে প্রধানমন্ত্রীর ৭৪তম জন্মদিন পালিত               ধানের বাম্পার ফলন \ বাণিজ্যিক ভাবে চাষ \ ফসল সংগ্রহে ব্যস্ত কৃষক প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে সাঁথিয়ায় নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতায় মানুষের ঢল সাপাহারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র জন্মদিন পালন উলিপুরে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে ঐতিহ্যবাহি কাজির মসজিদে মিলাদ ও দোয়া সাঁথিয়ায় কামিল মাদরাসায় এতিমখানা উদ্বোধন কুষ্টিয়ায় উন্নয়নের কান্ডারি জননেত্রী শেখ হাসিনার জম্মদিন পালন

এই ব্যবসায়ীর কারণেই কী ছারখার বৈরুত?

বৈরুত বন্দরে বিস্ফোরণের ঘটনার পর রাজনৈতিক নেতারা দোষীদের কড়া শাস্তির দাবি করেছেন। একই সঙ্গে তারা এর জন্য বন্দরের কর্মকর্তাদের দিকে অভিযোগের তীর নিক্ষেপ করেছেন। তবে কাস্টমস কর্মকর্তারা আঙ্গুল তুলেছেন রাজনৈতিক নেতাদের দিকে। তাদের দাবি, বন্দর থেকে বিপজ্জনক অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট সরিয়ে নিতে তারা বারবার সতর্ক করেছিলেন। কিন্তু সরকারের কানে সেই সতর্কবার্তা যায়নি।

বন্দরের ১২ নম্বর ওয়্যারহাউজে খোলামেলা ফেলে রাখা হয়েছিল এই রাসায়নিক। যার পরিণতিতে ধ্বংসপ্রায় রাজধানী। প্রাণ গেছে শতাধিক মানুষের।

২০১৩ সালের সেপ্টেম্বরে বাতুমি থেকে রাসায়নিকবাহী একটি জাহাজ আটক করে লেবানন কর্তৃপক্ষ। রাশিয়ার ব্যবসায়ী ইগর গ্রেচুশকিন দুই হাজার ৭৫০ টন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট জর্জিয়া থেকে মোজাম্বিকে পাঠাচ্ছিলেন জাহাজটিতে করে ।

মস্কোর রেন টিভি জানিয়েছে, গ্রেচুশকিনের জাহাজটি আটক করা হয়েছিল এবং রপ্তানি সংক্রান্ত কাগজপত্র যথাযথ পাওয়া যায়নি।

লেবানন কর্তৃপক্ষ রাসায়নিকের নিরাপত্তার জন্য নাবিকদের জাহাজে থাকতে বাধ্য করে। পরে অনশন ধর্মঘট শুরু করলে তাদেরকে জাহাজ ছেড়ে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়।

নাবিকরা ওই সময় জানায়, মোটরবাইক ভক্ত গ্রেচুশকিন দেউলিয়া হয়ে গেছেন এবং তিনি জাহাজটি পরিত্যাক্ত অবস্থায় ফেলে গেছেন। এরপর জাহাজের অধিকাংশ কনটেইনার বন্দরের ১২ নম্বর ওয়্যারহাউজে রাখা হয়।

বৈরুতের এই বিস্ফোরণের ঘটনায় কর্মকর্তাদের পাশাপাশি গ্রেচুশকিনকে বিচারের কাঠগড়ায় লেবানন কর্তৃপক্ষ দাঁড় করাতে পারে কিনা সেটাই এখন দেখার বিষয়।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

37514453
Users Today : 6354
Users Yesterday : 6006
Views Today : 16681
Who's Online : 109
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design & Developed BY Freelancer Zone