রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩:২৭ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
বাংলাদেশ ডিজিটাল পণ্য উৎপাদন ও রপ্তানিকারক দেশে রূপান্তর : মোস্তাফা জব্বার ‘মোদি সরকারের আমলে ভারত-পাকিস্তান সিরিজ সম্ভব নয়’ দেশের ১৭ অঞ্চলে ঝড়বৃষ্টির পূর্বাভাস বাংলাদেশ থেকে সিঙ্গাপুর যেতে করোনা পরীক্ষার দরকার নেই এমসি কলেজে গণধর্ষণ: সাইফুরের পর এবার অর্জুন লস্কর গ্রেফতার শহরের মেয়েদের কম বয়সে স্তন বড় হয় কেন? (ভিডিও) বিরামপুরে প্রাণঘাতী কোভিট-১৯,করোনা ভাইরাস সংক্রমণের প্রার্দূভাব হ্রাস পেয়ে জনগণের মধ্যে স্বস্তি কৃত্রিম সংকটে বিমান টিকিটের দ্বিগুণ দাম গুনতে হচ্ছে যাত্রীদের সংকট নিরসনে দ্রত পদক্ষেপ নেওয়ার আহবান।  রাজশাহীর সিভিল সার্জন অফিসের গাফেলতিতেই ক্লিনিকে বাড়ছে অনিয়ম সোনালী স্বপ্নের প্রত্যয় নিয়ে আমিনের প্রচারণা রৌমারীর জনদরদী ও সফল ইউপি  চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম সালু!  ঝিনাইদহে করোনা ভাইরাসে বৃটিশ টোব্যাকো কোম্পানির ম্যানেজারের মৃত্যু ১২ দিন ধরে নিখোঁজ ঝিনাইদহের ব্যবসায়ী আশিকুর রহমান, হতাশ পরিবারে চলছে বোবা কান্না! শৈলকুপায় কলেজছাত্র সুজনের মরদেহ উদ্ধার: বেরিয়ে আাসছে চাঞ্চল্যকর ও লোমহর্ষক তথ্য ঝিনাইদহে এলজিইডির অর্থয়নে নির্মিত শত শত রাস্তা ভেঙ্গে রাস্তা ভেঙ্গে পুকুরে বিলীন, দেখার কেও নেই

কক্সবাজারে বহিস্কৃত ওসি প্রদীপ সহ ৩০ জনের বিরুদ্ধে নির্যাতিত সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফার মামলা

বেলাল আজাদ,
কক্সবাজার:
দেশব্যাপী আলোচিত কক্সবাজারের টেকনাফে সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যার ঘটনায় বহিস্কৃত কারাবন্দী টেকনাফ থানার সাবেক অফিসার ইনচার্জ (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ সহ ৩০ জনের বিরুদ্ধে কক্সবাজার আদালতে মামলা দায়ের করেছেন ওসি প্রদীপের হাতে চরম ভাবে নির্যাতিত ও সদ্য কারামুক্ত সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা খান। মামলায় পুলিশ ছাড়াও স্থানীয় ৪ ব্যক্তিকেও ‘পুলিশের দালাল’ হিসেবে চিহ্নিত করে আসামী করা হয়েছে।
মঙ্গলবার (৮ সেপ্টেম্বর) কক্সবাজারের বিজ্ঞ সিনিয়র জুুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ৪র্থ (সদর) আমলী আদালতে মামলার ফৌজদারী দরখাস্ত’টি দায়ের করা হলে আদালতের বিচারক সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জনাবা তামান্না ফারাহ মামলাটি আমলে নিয়ে পরবর্তী ধার্য তারিখের মধ্যে তদন্ত করে প্রতিবেদন দিতে পুলিশ ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) কে নির্দেশ।
 সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা খান’র মামলার ৩০ জন আসামীরা হলেন- টেকনাফ থানার এসআই মো. কামরুজ্জামান, ইন্সপেক্টর (তদন্ত) এ.বি.এম.এস দোহা, ইন্সপেক্টর রফিকুল ইসলাম খান, কক্সবাজার সদর মডেল থানার এসআই প্রদীপ, এসআই মো: সাইফুল করিম, টেকনাফ থানার এসআই মশিউর রহমান, এসআই মনসুর মিয়া, এসআই ছাব্বির আহমেদ, এসআই সুুজিত চন্দ্র দে, এসআই বাবুল, এসআই মো. জামাল উল্লাহ, এসআই মো. নাজির উদ্দিন, এসআই আমির হোসেন, এসআই মিসকাত উদ্দিন, এসআই সনজিত দত্ত, কনস্টেবল নাজমুল হাসান, সাগর দেব, আবদুল্লাহ আল মামুন, রাশেদুল ইসলাম, হেলাল উদ্দিন, মংচিংপ্র চাকমা, আবদুল শুক্কুর, মো. মহিউদ্দিন, সেকান্দর এবং টেকনাফের দক্ষিণ হ্নীলা ফুলেরডেইল এলাকার মৃত আবুল খায়েরের ছেলে মো. জহিরুল ইসলাম, হোয়াইক্যং পশ্চিম সাতঘরিয়া পাড়ার হাজি আবুল কাশেমের ছেলে মফিজ আহমদ, হ্নীলা দরগাহ পাড়ার মৃত তাজর মুল্লুকের ছেলে আবুল কালাম প্রকাশ আলম ও হোয়াইক্যং দক্ষিণ কাঞ্জরপাড়ার মাওলানা সিরাজুল হকের ছেলে নুরুল আমিন।
সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা খানের দায়েরকৃত মামলায় টেকনাফের সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ পুলিশ সদস্য ও তাদের দালালদের মাধ্যমে পৃথক ৪টি ঘটনায় তাকে নানাভাবে শারীরিক নির্যাতন, হত্যাচেষ্টা, মিথ্যা মামলা দায়েরসহ নানা অভিযোগ স্পষ্ট ভাবে উল্লেখ করা হয়েছে।
মামলার শুনানীকালে বাদী পক্ষে আইনজীবী ছিলেন- কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এড. আবুল কালাম সিদ্দিকী, সিনিয়র আইনজীবী এড. মো. মোস্তফা, এড. আবদুল মন্নান, এড. ফখরুল ইসলাম গুন্দু, এড. রেজাউল করিম রেজা, এড. এম.এম ইমরুল শরীফসহ ১২/১৪ জন আইনজীবী।
উল্লেখ্য যে, মামলার বাদী সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা খান কক্সবাজারের স্থানীয় দৈনিক কক্সবাজারবাণী ও জাতীয় অনলাইন জনতারবাণী বিডি ডটকম পত্রিকা দু’টির সম্পাদক ও প্রকাশক।
টেকনাফ থানার বহিস্কৃত সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশের বেপরোয়া বিচার বহির্ভূত হত্যা সহ বিভিন্ন অনিয়মের বিষয়ে সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা খান ২০১৯ সালের ২৪ জুন ‘টেকনাফে আইন শৃঙ্খলার অবনতি ও টাকা না দিলে ক্রস ফায়ার দেন ওসি প্রদীপ’ শিরোনামে তিনি বস্তুনিষ্ট সংবাদ করেন। এছাড়াও মাদকের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় সংবাদ, ক্রস ফায়ারের নামে বিচার বহির্ভুতভাবে মানুষ হত্যার বিষয়ে লিখেন সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা খান। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ২০১৯ সালের ২১ সেপ্টেম্বর রাতে ঢাকার মিরপুরের বাসা থেকে সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা খান কে বিনা পরোয়ানায় আটক করে কক্সবাজার এনে কয়েক দিন যাবৎ নির্মম ও নজির বিহীন শারীরিক নির্যাতন করে চাঁদাবাজি, অস্ত্র, মাদকসহ নানা অভিযোগে ৬টি মিথ্যা মামলা দিয়ে আদালত সোপর্দ করে। এসব মামলায় বিনা অপরাধে দীর্ঘ ১১ মাস ৫ দিন কারাবাসের পর গত ২৭ আগস্ট তিনি কারামুক্ত হন। তখন থেকে তিনি কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

37506589
Users Today : 4496
Users Yesterday : 10073
Views Today : 11096
Who's Online : 42
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design & Developed BY Freelancer Zone