শোপিয়ানের পরে এবার অনন্তনাগ। জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল শনিবার আবারও রাস্তায় নেমে কথা বললেন সাধারণ মানুষের সঙ্গে। ইদের মুখে সরেজমিনে খতিয়ে দেখলেন কাশ্মীরের পরিস্থিতি।

ডোভাল এদিন সকালেই দক্ষিণ কাশ্মীরের অনন্তনাগে পৌঁছন। কথাবার্তা বলেন স্থানীয় মানুষের সঙ্গে। গবাদি পশুর হাল হকিকত জানতে চান স্থানীয় পশুপালকদের কাছ থেকে। স্থানীয় মানুষের মধ্যে তিনি এমন ভাবে মিশে যান যে কেউ বুঝতেও পারেনি তার আসল পরিচয়।

 

–– ADVERTISEMENT ––

এই সময়ে এক গাড়ির চালক তাঁর কাছে পথনির্দেশিকাও জিজ্ঞেস করে বসেন। জিজ্ঞেস করেন, তিনি কার্গিলের দ্রাস অঞ্চল চেনেন কিনা? এই সময়ে অনন্তনাগের ডেপুটি কমিশনার খালিদ জানগির তাঁর প্রকৃত পরিচয় দেন। এরপর ওই অঞ্চলের ইদগাহও ঘুরে দেখেন ডোভাল।

৩৭০ অনুচ্ছেদ বিলোপের সিদ্ধান্ত প্রণয়নের সময় থেকেই উপত্যকায় ঘাঁটি গেড়েছেন নিরাপত্তা উপদেষ্টা। মঙ্গলবার তিনি শোপিয়ানে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে দেখা করেন। উপত্যকায় শান্তি বজায় রাখার জন্য সেনা জওয়ানদের তৎপরতার প্রশংসা করেন তিনি। সংবাদসংস্থা প্রেরিত অন্য একটি ভিডিওতে দেখা যায়, শোপিয়ানের মানুষের সঙ্গে রাস্তায় দাঁড়িয়ে কথা বলছেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা। এদিন তারই পুনরাবৃত্তি লক্ষ্য করা গেল।

দেখুন সেই ভিডিও
সামনেই ইদ। উপত্যকায় সামগ্রিক শান্তি বজায় রাখা আর ধর্মীয় ভাবাবেগ ক্ষুণ্ন হতে না দেওয়া কেন্দ্রের কাছে বড় চ্যালেঞ্জ। পাশাপাশি কাশ্মীরের পরিস্থিতি সম্পর্কে গোটা দেশকে বার্তা দিতে ডোভালের এই পরিদর্শন পরিকল্পনা কেন্দ্রের অন্যতম হাতিয়ায়র।