সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ১১:২৫ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
মে’য়েরা প্রথমবার স’হবাসের জন্য কোন বি’ষয় গুলো গভীর ভাবে চিন্তা করে জেনে নিন বী’র্যপাত বন্ধ রে’খে বে’শী সময় যৌ’ন মি’লন ক’রার সেরা প’দ্ধতি বিবাহিত অথবা অবিবাহিত সকলের পড়া উচিৎ- এক করুণ কাহিনী দী’র্ঘ ২০ মি’নিটের ভি’ডিও ক্লি’পটি ছ’ড়িয়ে প’ড়ে’ছে হাসপাতালের ডাক্তার-নার্স এবং ক’র্মকর্তা-ক’র্মচারী’দে’র হাতে হাতে ফুলশ’য্যার রাতের গল্পটি পুরোটা প’ড়লে আপনার চোখের জল ধ’রে রা’খতে পা’রবেন না রোহিঙ্গা ও বাংলাদেশি মুসলিমদের ভারত থেকে তাড়াবো : অমিত শাহ ‘বাবর আজম আমাকে দীর্ঘ ১০ বছর ধরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধ’র্ষ’ণ করছে’ ! শুধু ধ’র্ষণ নয়, কা’টাছেঁ’ড়া মৃ’তদে’হের সঙ্গে সেলফি তুলতো মুন্না ‘কানাডার বেগমপাড়ার সাহেবদের ধরার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী’ ইসলামে ভাস্কর্য ও মূর্তি উভয়ই নিষিদ্ধ: মুফতি ফয়জুল করীম প্রথম হা’নিমুনে গিয়ে প্রত্যেক পুরুষই ক’রেন যে ৫টি ভু’ল! যেভাবে ৫ মিনিটেই অনলাইনে পাবেন জমির আরএস খতিয়ান সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন স্কেল, গ্রেডিং সিস্টেম ও অন্যান্য সুবিধাদির তালিকা আবর্জনার স্তূপ থেকে কুড়িয়ে পাওয়া মেয়েটি তার সবজি বিক্রেতা বাবার এত বড় প্রতিদান দিল চাচাতো বোনকে সারাজীবন কাছে রাখতে নিজ স্বামীর স’ঙ্গে বিয়ে

কুড়িগ্রামের উলিপুরে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের গাছ কেটে আত্মসাৎ

আনোয়ার হোসেন, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি ঃ তারিখ-১০.১০.১৯ইং
কুড়িগ্রামের উলিপুরে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম, দুর্নীতি, সেচ্ছাচারিতা, দায়িত্বে অবহেলাসহ গাছ কেটে আত্মসাৎ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনায় জানা যায়, উপজেলার গুনাইগাছ আকন্দবাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সীমানায় থাকা প্রায় দুই লক্ষাধিক টাকার বড় বড় ৪টি ইউক্লিক্টাস গাছ কেটে ফেলে ওই প্রধান শিক্ষক। পরে স্থানীয় লোকজন কর্তন কৃত গাছ গুলো আটক করে শিক্ষা অফিসে খবর দিলে শিক্ষা অফিস থেকে কোন পদক্ষেপ নেয়নি। এ ঘটনায় এলাকায় চরম ক্ষোপের সৃষ্টি হয়েছে। সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, বিদ্যালয়ের নামে ৬৬ শতক জমি থাকলেও ১৭/১৮ শতক জমির মধ্যে বিদ্যালয়টি নির্মিত। বিদ্যালয়ের মাঠে থাকা কর্তনকৃত বড় বড় ৪টি গাছের গোড়া দেখা যায়। এমনকি ওই প্রধান শিক্ষক বিদ্যালয়ের জমিতে বাড়িঘর নির্মাণ করে বসবাস করছে। প্রধান শিক্ষক স্থানীয় হওয়ায় বিদ্যালয়ে রাম রাজত্ব কায়েম করছে। এলাকার মানুষজন বিদ্যালয়ের ভালমন্দ জানতে গেলে প্রধান শিক্ষক তার পোষ্যবাহিনী দিয়ে তাদের বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখায়। তার ভয়ে এলাকার মানুষজন মুখ খুলতে সাহস পায় না। এব্যাপারে প্রধান শিক্ষকের সাথে কথা হলে তিনি জানান, বিদ্যালয়ের জায়গা আমার বাবা দিয়েছে তাই বিদ্যালয়ের সমস্তকিছু আমার এখানে কারও কিছু নেই সব কিছুই আমার। গাছ কেটেছি সত্য তবে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার অনুমতি নিয়ে কেটেছি। এব্যাপারে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোজাম্মেল হক শাহ-এর সাথে কথা হলে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে তিনি বলেন, ওই গাছগুলো স্কুলের জায়গায় কিন্তু প্রধান শিক্ষকের বাবা স্কুলে জায়গা দিয়েছেন তাই তার বিরুদ্ধে আইনী কোন পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। এলাকাবাসীরা তদন্ত পূর্বক প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানান।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

37877048
Users Today : 1976
Users Yesterday : 2922
Views Today : 9647
Who's Online : 152
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design & Developed BY Freelancer Zone