দেশের সংবাদ l Deshersangbad.com » কৃষি যন্ত্রপাতি ব্যবহারের ফলে সমগ্রহ বাংলাদেশে অল্প জমি থেকে বেশি পরিমান খাদ্য শস্য উৎপাদনের ফলে কৃষিতে আধুনিকতার ছোঁয়া লেগেছে



কৃষি যন্ত্রপাতি ব্যবহারের ফলে সমগ্রহ বাংলাদেশে অল্প জমি থেকে বেশি পরিমান খাদ্য শস্য উৎপাদনের ফলে কৃষিতে আধুনিকতার ছোঁয়া লেগেছে

৯:৩৫ পূর্বাহ্ণ, অক্টো ১০, ২০১৮ |জহির হাওলাদার

56 Views

নকলা, শেরপুর প্রতিনিধি ইউসুফ আলী মন্ডল: বাংলাদেশের জনসংখ্যা দিনদিন বাড়ছে, আর কমছে কৃষি জমি। অল্প জমি থেকে ক্রমবর্ধমান জনগণের খাদ্য ও পুষ্টি চাহিদা মেটানোর জন্য প্রয়োজন অল্প সময়ে বেশি ফসল উৎপাদন। এটা করার জন্য ভাল বীজ, সার, সেচ, বালাই ব্যবস্থাপনা যথেষ্ট নয়, পাশাপাশি প্রয়োজন কৃষি প্রযুক্তি নির্ভর যন্ত্রপাতির। এ বিবেচনা থেকে কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের আওতায় খামার যান্ত্রিকীকরনের মাধ্যমে উন্নত ফসল উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্প দ্বিতীয় পর্যায়ের আওতায় কৃষি যন্ত্রপাতির মাধ্যমে কৃষিতে আধুনিকায়ন করার জন্য পরামর্শ মাঠ প্রদর্শনী নানারকম যন্ত্রের ব্যবহার সম্পর্কে কলাকৌশল শিখাতে মাঠ পর্যায়ে চাষীদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে। দেশে প্রাপ্ত নির্মাণ সামগ্রী দিয়ে প্রকৌশল কারখানায় এসকল যন্ত্রপাতি উৎপাদিত হচ্ছে। বর্তমানে বহু কৃষি শ্রমিক বেশি মজুরির আশায় গ্রাম থেকে শহরমুখী হচ্ছে। শ্রমিক সংকটের পাশাপাশি মজুরী বেড়ে গেছে ৩ গুণ। এ অবস্থায় কৃষি যন্ত্রপাতির ব্যবহার উত্তরোত্তর বাড়ছে। জনসংখ্যা বৃদ্ধির পাশাপাশি খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধির তাল মেলাতে কৃষি যন্ত্রপাতি অপরিহার্য । গবেষণা করে দেখা গেছে জমিতে শক্তির ব্যবহার বাড়লে উৎপাদন বাড়ে। তাই জমিতে শক্তির ব্যবহার বাড়ানো প্রয়োজন। বাংলাদেশের কৃষকদের আতœসামাজিক অবস্থা বিবেচনা করে বিভিন্ন ফসলের জন্য কৃষি যন্ত্রপাতি নানারুপভাবে উদ্ভাবন করা হয়েছে। অতীতে মানুষ পশু চালিত যন্ত্রপাতির চাহিদা ছিল বলে তখন এক ধরনের যন্ত্রপাতি ব্যবহার করা হতো। বর্তমানে হালের গরু নেই, লাঙল নেই, হাল চাষী ও পাওয়া যায় না। বর্তমানে ডিজেল ইঞ্জিনের দাম তুলনামূলক কম হওয়ায় এখন দেশে সব জায়গায় পাওয়ার টিলার পাওয়া যাচ্ছে। শক্তি চালিত বিভিন্ন যন্ত্রপাতি পাওয়া যাচ্ছে। উৎপাদিত শস্য ঠিকমত প্রক্রিয়াজাতকরন না করলে শস্য সংগ্রহের পর্যায়ে এর বড় একটা অংশ নষ্ট হয়ে যায়। এজন্য প্রক্রিয়াজাতকরন যন্ত্রপাতি ও প্রযুক্তি উদ্ভাবন করা হয়েছে যা ব্যবহার করে ফসলের প্রক্রিয়াজাতকরন ও গুনগত মান বাড়ানো যায়। বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইন্সস্টিটিউট উদ্ভাবিত অনেক গুলি কৃষি যন্ত্রপাতি দেশের বিভিন্ন এলাকায় অবস্থিত প্রস্তুতকারকগণ উৎপাদন ও বিপনন করছেন। ফলে এসব কৃষি যন্ত্রপাতি কৃষকদের কাছে সহজ লভ্য হয়ে উঠেছে। এবং যন্ত্রপাতি গুলির চাহিদা বাড়ছে। উদ্ভাবিত কৃষি যন্ত্রপাতি প্রস্তুতকরন যাতে সহজে তৈরি করতে পারেন এবং কৃষকগনকে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে হাতে কলমে শিক্ষা দেওয়া হয়। খামার যান্ত্রিকীকরনের মাধ্যমে ফসল উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্প দ্বিতীয় পর্যায় এর অধীন কলের লাঙল,পাওয়ার টিলার, রিপার, কম্ভাইন হারভেস্টার, রাইস ট্রান্সপ্রান্টার আবিষ্কার করা হয়েছে। পাওয়ার টিলার বা কলের লাঙল জমি চাষে ইহা ব্যবহার করা হয়ে থাকে। শ্রমিক মূল্য বেড়ে গেছে হালের বলদের অভাব আগের দিনের কৃষি যন্ত্রপাতি হ্রাস পাওয়ার কারনে বর্তমানে পাওয়ার টিলার কলের লাঙলের ব্যবহারের মাধ্যমে আমন, বোরো, সবজি, গম, ভ‚ট্রা, ইক্ষু, পাট ইত্যাদি ফসল আবাদ করে থাকে। একটি ৫ ইঞ্চি ইঞ্চিন দ্বারা একটি পাওয়ার টিলার কলের লাঙল দিয়ে ২৪ ঘন্টায় ৩শ শতাংশ জমি তৈরি করা যায়। বাংলাদেশের আবাদি জমির পরিমানে এর শতকরা ৯৮ ভাগ জমি পাওয়ার টিলারের আওতায় পড়েছে। বর্তমানে কলের লাঙল দ্বারা কৃষকরা তাদের জমি তৈরি করে তাতে তাড়াতাড়ি ফসল রুপন করতে পারে। বাংলাদেশে বর্তমানে সব জেলা, উপজেলায় তা ব্যবহার করা হয়েছে। বর্তমানে দেশে ৬৩ হাজার পাওয়ার টিলার ভর্তুকি মূল্যে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া বেসরকারি উদ্যোগে কৃষকরাও আধুনিক যন্ত্রপাতি ব্যবহার করছেন। প্রায় ৭ লাখ কৃষক যন্ত্র্রপাতি ব্যবহার করে ফসল উৎপাদন বৃদ্ধি করছেন। কম্ভাইন হারভেস্টা যন্ত্রটি দিয়ে ধান মাড়াই ঝাড়াই কর্তন করতে পারে। যেমন ভূট্্রা মাড়াই করতে হলে খোসা ছাড়িয়ে ভালভাবে শুকিয়ে নিয়ে কম্ভাইন হারভেস্টারের মাধ্যমে মাড়াই করতে হয়। কম্ভাইন হারভেস্টার যন্ত্রটির মাধ্যমে ভূট্্রা মাড়াই করে মাচা গুলি আলাদা করে ভালকরে শুকিয়ে নিতে হয়। ধান মাড়াই করতে হলে এ যন্ত্রের প্রয়োজন হয়। এ যন্ত্রটি এখন বাংলাদেশে সর্বাধিক পরিচিতি লাভ করেছে। শতকরা ৯৯ জন ই এ যন্ত্রটি ব্যবহার করে। রিপার দিয়ে ধান কর্তন করা হয় ঘন্টায় ৩ বিঘা জমি কাটা যায়। শ্রমিকের মূল্য সাশ্রয় হয়। রাইস ট্রান্সপ্রান্টার দ্বারা ধানের চারা রোপন করা হয়। ঘন্টায় ১ একর জমি রোপন করা হয়। উপজেলা কৃষি অফিসার নকলা হুমায়ুন কবির বলেন, যন্ত্রের ব্যবহারের ফলে কৃষিতে পরিবর্তন আসছে। নালিতাবাড়ী কৃষি অফিসার শরীফ ইকবাল বলেন, যন্ত্রপাতি ব্যবহারের ফলে কৃষিতে বিশ্বে এক মডেল গড়েছে উৎপাদনের দিক থেকে। কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তর শেরপুর উপ-পরিচালক কৃষিবিদ আশরাফ উদ্দিন বলেন, জেলায় ৮৯ হাজার ৫শত ৯৮ হেক্টর জমি কলের লাঙলে চাষ করা হচ্ছে। খামার যান্ত্রিকীকরনের মাধ্যমে ফসল উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্প খামার বাড়ি ঢাকা প্রকল্প পরিচালক কৃষিবিদ নাজিম উদ্দিন বলেন, বাংলাদেশের কৃষকরা ভর্তুকী মূল্যে যন্ত্রপাতি ক্রয় করে কৃষিতে যুগান্তকারী পরিবর্তন ঘটিয়েছেন। পৃথিবীর ইতিহাসে এক অনন্য দৃষ্টান্ত অল্প সময়ে উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে। আমাদের কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী কৃষকদেরকে দেশি বিদেশী প্রশিক্ষণ দিয়ে দক্ষ করে তুলেছেন। বাংলাদেশের উৎপাদন পৃথিবীর সব দেশের চেয়ে অনেক ভাল। যন্ত্রপাতি ব্যবহারের ফলে অল্প সময়ে কৃষি উপযোগী আবাদি জমিগুলো ভালভাবে তৈরি করে তাতে বেশি পরিমাণ ফসল উৎপাদন হয়ে থাকে। খামার যান্ত্রিকী করণের মাধ্যমে ফসল উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্প খামার বাড়ি ঢাকা ২য় পর্যায়ের প্রকল্পের পরিচালক কৃষিবিদ নাজিমদ্দিন বলেন অতিতে কৃষিতে পরামর্শ লোক বলের অভাবে মন্দা ভাব ছিল। ১৯৯৬ সালে বেগম মতিয়া চৌধুরী কৃষি মন্ত্রী হওয়ার পর কৃষিখাতে দিন দিন আধুনিক প্রযুক্তি ও যন্ত্রপাতি সম্প্রসারিত করে কৃষিকে আধুনিকতার ছোঁয়ায় বৈপ্লবিক পরিবর্তন ঘটিয়ে চলছে।

Spread the love
22 Views

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




উপদেষ্টা পরিষদ:

১। ২।
৩। জনাব এডভোকেট প্রহলাদ সাহা (রবি)
এডভোকেট
জজ কোর্ট, লক্ষ্মীপুর।

৪। মোহাম্মদ আবদুর রশীদ
ডাইরেক্টর
ষ্ট্যান্ডার্ড ডেভেলপার গ্রুপ

প্রধান সম্পাদক:

সম্পাদক ও প্রকাশক:

জহির উদ্দিন হাওলাদার

নির্বাহী সম্পাদক
উপ-সম্পাদক :
ইঞ্জিনিয়ার নজরুল ইসলাম সবুজ চৌধুরী
বার্তা সম্পাদক :
সহ বার্তা সম্পাদক :
আলমগীর হোসেন

সম্পাদকীয় কার্যালয় :

১১৫/২৩, মতিঝিল, আরামবাগ, ঢাকা - ১০০০ | ই-মেইলঃ dsangbad24@gmail.com | যোগাযোগ- 01813822042 , 01923651422

Copyright © 2017 All rights reserved www.deshersangbad.com

Design & Developed by Md Abdur Rashid, Mobile: 01720541362, Email:arashid882003@gmail.com

Translate »