শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ০৩:৪৪ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
সরিষাবাড়ীতে তুচ্ছ ঘটনায় চাচাতো ভাইদের হাতে ভ্যান চালক নিহত বিশ্বনবী’র ব্যাঙ্গচিত্র ও অবমাননার প্রতিবাদে রসুলবাগ যুব সমাজের প্রতিবাদ সভা ও বিক্ষোভ ভোরবেলায় যৌ*ন মিলনে কি হয় জানেন? মে’য়েদের স্ত’ন দেখলে ছেলেদের আয়ু বাড়ানো সম্ভব নিজের ১৭ বছরের মেয়েকে ‘নববধূ’ সাজিয়ে ফেসবুকে নিলাম করলেন এক ব্যক্তি মাঠে ফিরেই বাংলাদেশের একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে ব্যাট হাতে রেকর্ড গড়তে যাচ্ছেন সাকিব সবাইকে পবিত্র কোরানের আয়াত স্মরণ করিয়ে দিলেন ওজিল যে ৭ ধরণের পুরুষকে পছন্দ করেন আধুনিক মেয়েরা সহ’বাসের সময় মেয়েরা কোথায় আ’দর বেশী চায়! প্রকৃত ভদ্র মেয়ে চেনার যে ৮টি বৈশিষ্ট্য আধুনিক যুগের মেয়েরা ::!!! নোয়াখালী পল্লী বিদ্যুতের সোনাপুর জোনাল অফিসের প্রতারণায় প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগ ব্যাহত প্রিয় নবী (ﷺ)’র সুন্নাত অনুসরণের মাধ্যমে নবী বিদ্বেষী ব্যঙ্গকারীদের বয়কট করুন- “দা’ওয়াতে ইসলামী” উলিপুরে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী অটিস্টিক বিদ্যালয়ের উদ্বোধন ফ্রান্সে রাসুলের (সঃ) অবমাননার প্রতিবাদে বেনাপোলে বিক্ষোভ মিছিল

গল্প পর্ব দুই…..ঝড়া নামের সেই মেয়েটি

গল্প পর্ব দুই

 

লেখক কবি গীতিকার ছড়াকার কে,এম,তোফাজ্জেল হোসেন জুয়েল খোকসা্ কমলাপুর কুষ্টিয়া বাংলাদেশ

#কুষ্টিয়ার নটাম্সের কম্পিউটার ক্লাসে বসে হটাৎ ভাবছিলাম
আর তখন অজশ্র ধারায় বৃষ্টি ঝড় ছিল। ঘড়ের টিনের চালে বড় বড় বৃষ্টির ফোঁটা পড়ার শব্দে আমার ভাবনা বেশ গভীর হয়ে উঠল। সেই দিন হামিদ স‍্যার ও হাসান ভিষন ব‍্যস্ত ছিল তারা দুজনে ফিস ফিস করে কম্পিউটার পরিক্ষার কথা কি জেন বলা বলি করছিল আর নুটিশ বোর্ডে কম্পিউটার পরিক্ষার্থীদের নামের তালিকা টানাচ্ছিল । আমি আনমনে তাকিয়ে তাকিয়ে দেখছিলাম সবার উপরের শাড়িতে একটি মেয়ের নাম মেয়েটির নাম ঝড়া -ঝড়া নামের মেয়েটিকে দেখতে কেমন হতে পারে এই ভেবে জল্পনা কল্পনা করতে করতে আরও জোরে বৃষ্টি ঝড়ছিল বাহিরে শুরু হলো বাহিরে শুরু হল ভিষন ঝড়। তখন ভাবনাটা আরো গভীর থেকে গভীরতর হয়ে উঠল ওই থেকে এই নটাম্সের কম্পিউটার ক্লাসে জম্ম নিল ছোট্ট একটি স্বপ্ন আর ছোট্ট একটি তারার । কিন্তু ছোট্র হলে কি হবে তারাটি যখন মনের আকাশে জম্ম নিল তার নিজের সন্দর্য‍্য ও দ‍্যুতি নিয়ে আন‍্যের নজর কাড়ল। তাঁরাটিকে মনে মনে ভাবতে লাগলাম এই ভেবে বিশ্বের সব থেকে উজ্জল নক্ষত্র ধিরে ধিরে আমার হিনমন‍্যতা স্বপ্নে রুপ নিল নিজের অবস্থান ধরে রাখার জন‍্য নিজেকে কন্টল করতে লাগলাম বারং বার । তার কিছুক্ষন পর ক্লাস রুমে জম্ম নিল ভালোবাসার মন অন্তরে আর তখন নিজের বড় কষ্ট হচ্ছিল তারাটিকে দেখে ভালোবাসার লোভে বুক চিড়ে কয় একটা রুক্ষ শব্দ বের হচ্ছিল হৃদয়ে অতল প্রহর থেকে এই বলে:-
হরেক রকম কষ্ট আছে
লাল কষ্ট নিল কষ্ট
কাঁচা হলুদের মাঝে কালোর কষ্ট
মাল্টিকালার কষ্ট আছে কষ্ট নেবে কষ্ট
আর কে দেবে তুমি ছাড়া আসল শোভন কষ্ট
কার পুড়েছে জম্ম থেকে কপাল এমন আমার মত
কজনের আর সব হয়েছে নষ্ট মুখ ফুটে যখন ভালোবাসার তিন আক্ষরে মোড়ান কথাটা কখন বলতে পারব না ঝড়াকে তখন জীবনটা আমার প্রেম হিন এমন টি ভাবতে ভাবতে একটা লিরিক মনে পড়ে গেল:-
বাহিরে কাঁটা ভেতরে কাঁটা
উঠতে বসতে লাঠি ঝাটা
এমনি আমার জীবন
ঝড়া তোমার মাঝে চেয়েছিলাম
বাঁচিবার ক্ষিনতম আশা।
But তুমি যদি আমাকে ফিরিয়ে দাও এ চোখ আর কিছুই দেখবে না কখন কনো দিনও মনে মনে গুছিয়ে কথা গুল স্বঞয় করে ঝড়াকে বল্ব বল্ব ভেবে মুখটি ঝড়ার দিকে ঘূরিয়ে ঝড়ার পেছনে গিয়ে দাড়ালাম হটাৎ হামিদ স‍্যার কোথা থেকে এসে সব সঞ্জয় কৃত কথা গুলি উলট পালট করে দিল এক নিমিশে।আবার প্রচন্ড বাহিরে বৃষ্টি শুরু হল বাহিরে মেযের গর্জন ও শোনা গেল এর ফাঁকে বৃষ্টির ছন্দে মনে মনে প্রেম জাগছিল প্রচন্ড ভাবে মনে মনে ভাবছিলাম এদিকে সবার একটু ব‍্যস্ততা কমলেই ঝড়াকে মনের সব কথা গুলি খুলে বল্ব আমি তোমাকে ভালোবাসি ভাবতে ভাবতে সবাই যখন যার যার মত কাজে ব‍্যাস্ত তখন একটা সমস‍্যায় পড়ে ঝড়া পাশের কম্পিউটার চেয়ার থেকে শব্দ করে উঠল এই শুনছেন আমার কম্পিউটারে আমি সেভ ফাইটা খুজছি সেটা না বের হয়ে অন‍্য ফাইলে চলে যাচ্ছে। প্লিজ একটু আপনার জানা থাকলে বল্বেন কি ? বা একটু হেল্প করবেন কি ? তখন কথা বলার চান্সটা হাত ছাড়া করল না জুয়েল খান বল্ল মানুষের যখন বিধাতা সৃষ্টি করে তখন সৃষ্টির আগে মনেমনে একটা ডিজাইন তৈরি করে এবং সেই ডিজাইনটা দু-ভাগে ভাগ করে।একটা ভাগ দেয় পুরুষকে অপর ভাগ দেয় নাড়িকে এরপর আমরা প্রথিবীতে এসে অর্ধেক ডিজাইনটা খুঁজতে থাকি পুরুষ কি নাড়ি আমরা যখন ডিজাইনের কাছা কাছি কোন ডিজাইন খুঁজে পায় তখন আমরা প্রেমে পড়ে যায় ঝড়া। ধুরতরি কম্পিউটার আবার প্রেমে পড়ে নাকি আমার মনে হয় ঝড়া তোমার মাঝে আমার বাকি অর্ধেক ডিজাইন লুকিয়ে আছে কম্পিউটারে নয় তাইতো বিধাতা তোমাকে কম্পিউটারের ডিজাইন খোঁজার মধ‍্যে দিয়ে আমার সঙ্গে তোমাকে পরিচয় করিয়ে দিয়েছেন এটাই সত‍্য আর আমি জানি ঝড়া কম্পিউটারের মত তোমার আমার জীবনে অনেক কষ্ট আছে ডিজাইন না খুঁজে পাবার কষ্ট তুমি কি আমায় তোমার কষ্টের অংশীদার হতে দেবে না। আমিতো চায় তোমার কষ্টের আংশি দার হতে এবং তোমার প্রিথিবীটাকে আলোয় ভরিয়ে দিতে।তুমি যদি আমার পাশে থাক আমি এভারেষ্টও জয় করতে পারি ঝড়া। আর যদি পাশে না থাক তা হলে ঝড়া যেনে রেখ আমার প্রিথীবিটা ভরে উঠবে আধারে আধারে আমার সামনে দুটো পথ একটা তুমি আর একটা………..? তুমি কি চাও তোমার জন‍্য একটা ছেলে…….? নষ্ট হোক।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

37714410
Users Today : 1813
Users Yesterday : 8809
Views Today : 3518
Who's Online : 35
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design & Developed BY Freelancer Zone