মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ০৪:১২ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
ঢাবি মেডিকেল সেন্টার আধুনিকায়ন করে শহীদ বুদ্ধিজীবী ডা. মোর্তজার নামে নামকরণের দাবি পণ্য বিপণনে সমস্যা হলে ফোন করুন জরুরি সেবায় ধর্মীয় নেতাকে গ্রেপ্তারের ঘটনায় উত্তাল পাকিস্তান, গুলিতে নিহত ২ সাংবাদিকদের ‘মুভমেন্ট পাস’ লাগবে না খাদ্যপণ্যের বিজ্ঞাপনে একগুচ্ছ নিষেধাজ্ঞা আসছে, থাকছে জেল-জরিমানা হাতে বড় একটি ট্যাবলেট ফোন নিয়ে ডিজিটাল জুয়ার আসরে ব্যস্ত তরুণ-তরুণী রমজানের নতুন চাঁদ দেখে বিশ্বনবী যে দোয়া পড়তেন ফরিদপুরে চাের সন্দেহে গণপিটুনীতে একজন নিহত এটিএম বুথ থেকে তোলা যাবে এক লাখ টাকা যৌবন দীর্ঘস্থায়ী করে যোগ ব্যায়াম ‘শশাঙ্গাসন’ আজ চৈত্র সংক্রান্তি মসজিদে সর্বোচ্চ ২০ জন নিয়ে নামাজ পড়া যাবে অপহরণ করা হয়েছিলো ম্যারাডোনাকে দুপুরে বিএনপির সংবাদ সম্মেলন বসুন্ধরা সিটি শপিংমল খোলা থাকবে মঙ্গলবার

গাইবান্ধার পলাশবাড়ী সুলতানপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অনিয়মের অভিযোগ তদন্ত।

 

বায়েজীদ গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি :

গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার কিশোরগাড়ী ক্লাষ্টারের অধীনে সুলতানপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিভিন্ন অনিয়ম-দূর্নীতির অভিযোগের তদন্ত অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সূত্রে জানা যায়,ওইএলাকার আব্দুল কাফি সুলতানপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রুহুল আমিনের বিরুদ্ধে ২০১৯-২০ইং অর্থ বছরে রাজস্ব খাতের আওতায় ক্ষুদ্র মেরামত বাবদ ১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা,স্লিপ বাবদ ৭০ হাজার টাকা, রুটিন মেরামত বাবদ ৪০ হাজার টাকা , শিশু শ্রেণির উপকরণ বাবদ ১০ হাজার টাকা,দূর্যোগকালিন উপকরন বাবদ ৫ হাজার টাকা,মডেম বাবদ ১২’শ টাকা সহ মোট ২ লক্ষ ৭৬ হাজার ২’শ টাকা বরাদ্দ প্রাপ্ত হয়।
বরাদ্দকৃত টাকার সিংহভাগ অর্থআত্নসাৎ সহ বিদ্যালয়ের পরিত্যক্ত ঘরের ইট নিজ বাড়ীতে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টার অভিযোগ এনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর অভিযোগ দাখিল করেন।
২ মার্চ(মঙ্গলবার) উপজেলা সহকারি প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ফিরোজ কবির আকন্দ ও শফিকুল ইসলাম উক্ত বিদ্যালয়ে সরেজমিনে প্রধান শিক্ষক রুহুল আমিনের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ তদন্ত করেন। তদন্ত কর্মকর্তারা প্রাক্কলন অনুযায়ী অনেক কাজেরই গড়মিল পাওয়ায় প্রধান শিক্ষককে প্রাক্কলন ও ভাউচার নিয়ে অফিসে ডেকে আসেন।
উক্ত অভিযোগ সম্পর্কে তদন্তকারি কর্মকর্তা ও সহকারি শিক্ষা অফিসার ফিরোজ কবীর আকন্দ ও শফিকুল ইসলাম জানায়, অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক অভিযোগ হওয়ার আগে কিছু কাজ করেছিলেন পরে কিছু কাজ করেছেন।
তবে প্রধান শিক্ষককে প্রাক্কলন ও ভাউচার নিয়ে অফিসে ডেকে আসা হয়েছে যাচাই করে বিস্তারিত বলা যাবে কত পার্সেন্ট কাজ হয়েছে।
এদিকে অভিযোগ সম্পর্কে সহকারি উপজেলা শিক্ষা অফিসার ও ওই বিদ্যালয়ের এডহক কমিটির সভাপতি অহিদুজ্জামান অসুস্থ থাকায় তার মতামত নেয়া সম্ভব হয়নি।
অপর দিকে রাজস্ব খাতের ক্ষুদ্র মেরামত বাবদ তালিকায় নাম না থাকলেও উপজেলা শিক্ষা অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) একেএম আঃছালাম অসৎ উদ্দেশ্যে ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রুহুল আমিনের সাথে যোগসাজসে ১লক্ষ ৫০ হাজার টাকা বরাদ্দ দিয়েছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38443990
Users Today : 945
Users Yesterday : 1256
Views Today : 12286
Who's Online : 49
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design And Developed By Freelancer Zone