বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৭:৪২ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
স্থগিত পরীক্ষা চালুর দাবি রাবি শিক্ষার্থীদের ৭২ ঘন্টার আল্টিমেটাম তানোরে বিএনপির প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত ইয়াঙ্গুনে বিক্ষোভকারীদের ওপর সেনা সমর্থকদের হামলা উন্নয়ন ও তরুণদের কর্মসংস্থান বাড়াতে কাজ করছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী বার্মিংহামে সড়ক দুর্ঘটনায় বাংলাদেশি দম্পতির মৃত্যু উন্নয়নে এগিয়ে যাচ্ছে তানোর-গোদাগাড়ী উপজেলা তানোরে কবিরাজ জার্জিসের কুকর্মে তোলপাড় ?  পিলখানায় বিডিআর ঘাতকদের ফাঁসি চাই : মোমিন মেহেদী গণতান্ত্রিক বাম ঐক্যের নতুন সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ আসছে নতুন কর্মসূচি বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের টিউমার অপসারন হয়নি *প্রতিনিয়ত ঘটছে দূর্ঘটনা বিএম কলেজের শিক্ষার্থীদের তিন ঘন্টা সড়ক অবরোধ *অধ্যক্ষের আশ্বাসে প্রত্যাহার মাদক উদ্ধারে শ্রেষ্ঠ ডিবি অফিসারকে ক্রেষ্ট প্রদান মুজাক্কির হত্যার প্রতিবাদে সোনাগাজীতে সাংবাদিকদের মানববন্ধন ও বিক্ষোভ। নওগাঁর মহাদেবপুরে অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনারের আশ্রয়ণ প্রকল্প পরিদর্শন নওগাঁর মহাদেবপুরে আমের মুকুলের মৌ মৌ গন্ধে সুবাসিত প্রকৃতি

গাইবান্ধায় একসঙ্গে তিন সন্তানের জন্ম

গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি: গাইবান্ধায় একসঙ্গে তিন সন্তানের মা হয়ে চরম বেকায়দায় পড়েছে শাহিদা বেগম নামে এক দরিদ্র গৃহবধূ। জানা যায়, পলাশবাড়ী উপজেলার মনোহরপুর ইউনিয়নের তালুকঘোড়াবান্ধা গ্রামের কানিপাড়ার নুরুল ইসলামের পুত্র একলাছ মিয়া প্রায় ১২ বছর আগে একই উপজেলার পবনাপুর ইউনিয়নের বরকাতপুর গ্রামের মধ্যপাড়ার আজহার আলীর মেয়ে শাহিদা বেগমকে বিয়ে করেন। একলাছ বলেন গত ১৬ অক্টোবর তার স্ত্রী শাহিদা বেগমের প্রসবব্যথা শুরু হলে বাড়িতেই এক ছেলে সন্তানের জন্ম হয়। এ সময় শাহিদা অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে গাইবান্ধা ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও আলট্রাসনো করার পর চিকিৎসক তার গর্ভে আরো দুই সন্তানের অস্থিত্ব খুঁজে পান। পরে ওই রাতেই সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে শাহিদার দুই কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। গত ২৪ অক্টোবর বৃহ¯পতিবার তিন সন্তানকে নিয়ে ক্লিনিক থেকে বাড়ি ফেরেন শাহিদা বেগম। মা ও সন্তানেরা বর্তমানে সুস্থ আছে। এখলাছ মিয়া দিনমজুরের পাশাপাশি মাঝে মধ্যে ভাড়ায় রিক্সা চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করেন। অভাব-অনটনের সংসারে ৩ সন্তান জন্মগ্রহণ করায় বিপাকে পড়েছে দিনমজুর বাবা একলাছ। অর্থাভাবে তাদের সঠিক ভরণপোষণ করতে পারছে না হতদরিদ্র পরিবারটি। তাছাড়াও প্রতিদিন বাচ্চাদের দুধের পেছনে ৬৫০ টাকা খরচ হচ্ছে, যা জোগান দেয়া বাবার পক্ষে সম্ভব হচ্ছে না। দরিদ্র পরিবারটি নবজাতকদের বাঁচিয়ে রাখতে সরকারি-বেসরকারি সংস্থা, ও হৃদয়বান মানুষের সাহায্য কামনা করেছে।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38322723
Users Today : 3273
Users Yesterday : 3479
Views Today : 9669
Who's Online : 57
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/