শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ০৩:১২ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
প্রথম ধাপে ৩৭১ ইউনিয়ন পরিষদে ভোট ১১ এপ্রিল পাপুলের আসনে ভোট ১১ এপ্রিল এইচ টি ইমামের বর্ণাঢ্য জীবন শাস্তি পেলেন জামালপুরের সেই বিতর্কিত ডিসি চলে গেলেন এইচ টি ইমাম মূলধন সংকটে পড়েছে ১০ ব্যাংক বীর মুক্তিযোদ্ধা হাবিবউল্লাহ জাহিদ (মিঞা) স্বরণে – – – – সাফাত বিন ছানাউল্লাহ্ তানোরে মেয়রের  গণসংবর্ধনায় গণরোষ  !  রাজারহাটে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সংবাদ সম্মেলন চসিক মেয়রের সাথে ভারতীয় সহকারী হাই কমিশনারের সাক্ষাৎ রাজশাহী মতিহার থানার প্রাকাশ্য চাঁদাবাজীর নেপথ্যের কারিগর কে এএসআই ফিরোজ ৭ই মার্চের ভাষন পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ ভাষন —আফতাব উদ্দিন সরকার এমপি রৌমারীতে সাংবাদিক পরিবারের জমি দখলের অভিযোগ “ভারত ভাগে বাংলার বিয়োগান্তক ইতিহাস” বইয়ের মোড়ক উন্মোচন ও প্রকাশনা উৎসব অনুষ্ঠিত সাঁথিয়ায় মশার কয়েল থেকে আগুনের সূত্রপাত পুড়ে গেছে ২ টি ঘর,২টি ষাঁড়,১৩টি ছাগল

গাইবান্ধায় কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা।

 

 

বায়েজীদ (গাইবান্ধা) :

 

গাইবান্ধা সদর উপজেলার দারিয়াপুরে কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে এক পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

 

ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রী স্থানীয় দারিয়াপুর হাজী ওসমান গণি ডিগ্রী কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী। ওই ঘটনায় ধর্ষিতার মা বাদি হয়ে পুলিশ সদস্য আবু বক্কর সিদ্দিক ও তার সহযোগি আমিনুল ইসলামকে আসামী করে গত বুধবার রাতে গাইবান্ধা সদর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

 

বৃহস্পতিবার অভিযোগটি থানায় এজাহার হিসেবে লিপিবদ্ধ করা হয়। ওইদিন বিকেলে ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রীর ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়েছে। অভিযুক্ত পুলিশ সদস্য আবু বক্কর সিদ্দিক গাইবান্ধা সদর উপজেলার মালিবাড়ী ইউনিয়নের পশ্চিম বারবলদিয়া বেকাটারী গ্রামের সাইদুর রহমানের ছেলে। তিনি বর্তমানে রংপুর জেলায় কর্মরত এবং তার সহযোগি আমিনুল ইসলাম একই গ্রামের মকবুল হোসেনের ছেলে।

 

ধর্ষণের শিকার মেয়েটির পরিবার ও পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, কনস্টেবল আবু বক্কর সিদ্দিক ওই ছাত্রীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়তে মোবাইল ফোনে কথাবার্তা বলতো। সম্প্রতি ঈদের ছুটিতে বাড়ি এসে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে গত ১১ আগস্ট প্রতিবেশি ফেরদৌস মিয়ার স্ত্রীর সহযোগিতায় তার বাড়ীতে নিয়ে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে আবু বক্কর সিদ্দিক। এ ঘটনায় আমিনুল ইসলাম তাকে সহযোগিতা করে। বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে লোক লজ্জার ভয়ে কীটনাশক পানে আত্মহত্যার চেষ্টা করে ওই ছাত্রী। ওইদিন রাতে তাকে উদ্ধার করে গাইবান্ধা জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

 

ছাত্রীটির মা অভিযোগ করেন, আবু বক্কর সিদ্দিক পুলিশ সদস্য হওয়ায় সে ও তার লোকজন মামলা না করতে নানাভাবে হুমকি দিয়ে আসছিল। ১৪ আগস্ট থানায় অভিযোগ দেওয়ার পর বিষয়টি মিমাংসার কথা বলে ধর্ষক আবু বক্কর সিদ্দিকের পরিবারের পক্ষ থেকে থানা পুলিশ ও বিভিন্ন মহলে দেন দরবার করে মামলা রেকর্ডে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে।

 

গাইবান্ধা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ খান মোঃ শাহরিয়ার বলেন, প্রাথমিক তদন্ত শেষে মামলা গ্রহণ করা হয়েছে। ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। মামলায় অভিযুক্ত পুলিশ সদস্য আবু বক্কর সিদ্দিককে গ্রেফতারের জন্য বিভাগীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। অপর আসামী আমিনুলকেও গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38353992
Users Today : 635
Users Yesterday : 6146
Views Today : 1569
Who's Online : 25

© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/