সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ১০:৫৮ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
মে’য়েরা প্রথমবার স’হবাসের জন্য কোন বি’ষয় গুলো গভীর ভাবে চিন্তা করে জেনে নিন বী’র্যপাত বন্ধ রে’খে বে’শী সময় যৌ’ন মি’লন ক’রার সেরা প’দ্ধতি বিবাহিত অথবা অবিবাহিত সকলের পড়া উচিৎ- এক করুণ কাহিনী দী’র্ঘ ২০ মি’নিটের ভি’ডিও ক্লি’পটি ছ’ড়িয়ে প’ড়ে’ছে হাসপাতালের ডাক্তার-নার্স এবং ক’র্মকর্তা-ক’র্মচারী’দে’র হাতে হাতে ফুলশ’য্যার রাতের গল্পটি পুরোটা প’ড়লে আপনার চোখের জল ধ’রে রা’খতে পা’রবেন না রোহিঙ্গা ও বাংলাদেশি মুসলিমদের ভারত থেকে তাড়াবো : অমিত শাহ ‘বাবর আজম আমাকে দীর্ঘ ১০ বছর ধরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধ’র্ষ’ণ করছে’ ! শুধু ধ’র্ষণ নয়, কা’টাছেঁ’ড়া মৃ’তদে’হের সঙ্গে সেলফি তুলতো মুন্না ‘কানাডার বেগমপাড়ার সাহেবদের ধরার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী’ ইসলামে ভাস্কর্য ও মূর্তি উভয়ই নিষিদ্ধ: মুফতি ফয়জুল করীম প্রথম হা’নিমুনে গিয়ে প্রত্যেক পুরুষই ক’রেন যে ৫টি ভু’ল! যেভাবে ৫ মিনিটেই অনলাইনে পাবেন জমির আরএস খতিয়ান সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন স্কেল, গ্রেডিং সিস্টেম ও অন্যান্য সুবিধাদির তালিকা আবর্জনার স্তূপ থেকে কুড়িয়ে পাওয়া মেয়েটি তার সবজি বিক্রেতা বাবার এত বড় প্রতিদান দিল চাচাতো বোনকে সারাজীবন কাছে রাখতে নিজ স্বামীর স’ঙ্গে বিয়ে

গাইবান্ধায় তৃতীয় লিঙ্গের অদ্ভুত এক শিশুর জন্ম

 

বায়েজীদ (গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি) :

গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জে যৌতুক লোভী স্বামীর নির্যাতনের প্রতিবাদে ও পাসান্ড স্বামীকে
গ্রেফতারের দাবিতে অন্তঃসত্তা গৃহবধূ রতনা খাতুন এক সংবাদ সম্মেলন করেছেন।
গোবিন্দগঞ্জ প্রেসক্লাবে বুধবার দুপুরে উপজেলার কামারদহ ইউনিয়নের বার্নাচন্দ্র শেখর (বকশীচর)
গ্রামের রেজাউল করিমের কন্যা রতনা খাতুন উক্ত সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন। এ
সময় তিনি বলেন-একই গ্রামের আনছার আলীর ছেলে আলামীন ইসলামের সাথে ২০১৯ সালের ২৩ মে
আমার বিয়ে হয়। বর্তমানে আমি ৫ মাসের গর্ভবতী। বিয়ের পর থেকেই আমার স্বামী আলামীন যৌতুকের
জন্য প্রায়ই আমাকে নির্যাতন এবং মারপিট করত। পেটের অনাগত সস্তানের কথা চিন্তা করে এসব
নির্যাতন সহ্য করেও আমি তার সাথে ঘর সংসার করতে থাকি। এরই এক পর্যায়ে যৌতুকলোভী আলামীন
গত ১৪/০৯/২০২০ ইং তারিখে যৌতুক হিসেবে আমার বাবার কাছ থেকে ৩ লক্ষ টাকা আনতে বলে। আমার
বাবা একজন গরিব কৃষক- তার কাছ থেকে যৌতুকের এই টাকা আনতে অস্বীকৃতি জানালে আলামীন আমাকে
মারপিট এবং সিগারেটের আগুনের ছ্যাকা দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে পোড়া জখম করে। এ ছাড়াও সে
আমার অগোচরে আমার কিছু আপত্তিকর ছবি মোবাইলে ধারণ করে সেসব ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দিয়েছে
এবং ভবিষ্যতে এরকম ছবি আরও ছড়িয়ে দিবে বলে আমাকে হুমকী প্রদান করছে। এ ঘটনায় আমার বাবা
গোবিন্দগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করে। কিন্তু এ মামলার মুল
আসামী আলামীনের ভগ্নিপতি অন্য থানার একজন পুলিশ কর্মকর্তা হওয়ার কারণে গোবিন্দগঞ্জ থানার
পুলিশ তাকে গ্রেফতার করছেনা। মামলা দায়েরের পর থেকে আলামীন আরও ক্ষিপ্ত হয়ে তার বাবা-মা ও
আত্মীয়-স্বজন আমাকে এবং আমার পরিবারের সদস্যদেরকে বিভিন্ন হুমকী দেয়াসহ প্রাণ নাশের হুমকী
প্রদান করছে। এ অবস্থায় আমি ও আমার পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। তাই নির্যাতনকারী
আলামীনকে অবিলম্বে গ্রেফতার করে আমার মান-ইজ্জত ও জীবন রক্ষার দাবি জানাচ্ছি।

সংবাদ সম্মেলনে রতনার বাবা রেজাউল করিম, মা নার্গিস বেগম, ফুফা রফিকুল ইসলাম ও রমজান আলী,
ফুফু মইরন বেগম, জেঠা আব্দুল জলিল, চাচা আইনুল হক ও শাহিনুর উপস্থিত ছিলেন।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

37876650
Users Today : 1578
Users Yesterday : 2922
Views Today : 8739
Who's Online : 43
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design & Developed BY Freelancer Zone