শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ১০:১০ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
ডিস লাইনের তার নিয়ে শিশু ছাত্রকে পেটালেন মাদ্রাসা শিক্ষক লক্ষ্মীপুরে সড়ক খোঁড়াখুঁড়িতে গ্যাস ও বিটিসিএল লাইন বিচ্ছিন্ন যৌন হয়রানির দায়ে ডিসি অফিস সহকারীর কারাদণ্ড প্রতিবেশী দেশগুলোর সমস্যা আলোচনার মাধ্যমে সমাধান করা উচিত: প্রধানমন্ত্রী দুধের স্বাদ ঘোলে  পটুয়াখালীতে অবৈধ ভেক্যু পুড়িয়ে ফেলছে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট।  বীর মুক্তিযোদ্ধা হাবিবউল্লাহ জাহিদ (মিঞা) স্বরণে – – – – সাফাত বিন ছানাউল্লাহ্ সাঁথিয়ায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের জমি জাল দলিল করে হাতিয়ে নেয়ার চেষ্টায় একজন আটক কুড়িগ্রামে পুলিশের প্রচেষ্টায় প্রাণ রক্ষা পেল বিরল প্রজাতির একটি গন্ধগোকুল গাইবান্ধাকে নান্দনিক শহর হিসাবে গড়ে তোলা হবে পটুয়াখালীতে নির্মাণাধীন সেতু থেকে পড়ে নিহত ০১। সাপাহারে মিশ্র ফল বাগানে কৃষক সাখাওয়াত হাবীবের ভাগ্য বদল পটুয়াখালীতে পুলিশের অভিযানে ১ কেজি ৩৬৭ গ্রাম গাঁজাসহ আটক ৩. স্বাধীনতাবিরোধী মৌলবাদী অপশক্তির শাহরিয়ার কবিরের নামে অভিনব ষড়যন্ত্র: ১১ এপ্রিল প্রথম ধাপে ৩৭১টি যেসব ইউনিয়নে ভোট

গাইবান্ধায় বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ ৩৫০ ফুট ভাঙ্গা অংশে ব্যাপক জন দূর্ভোগ।

 

 

বায়েজীদ (গাইবান্ধা) :

 

গাইবান্ধা জেলায় সাঘাটা উপজেলায় কুকড়ারহাট এলাকায় ব্রহ্মপুত্র নদের বাঁধ ধসে প্রায় সাড়ে ৩শ’ ফুট রাস্তা ভেঙে গেছে।

 

এর ফলে গাইবান্ধা জেলার সঙ্গে সাঘাটা উপজেলা সদরের সড়কে সব ধরণের যানবাহন ও পথচারী চলাচল টানা ১৯ দিন বন্ধ ছিলো। দ্রুত যোগাযোগ ব্যবস্থা পুনঃস্থাপন করতে ক্ষতিগ্রস্ত অংশে একটি ভাসমান সেতু নির্মাণ করা হয়েছে।

 

হালকা যানবাহন, মানুষ চলাচল শুরু করলেও দুর্ভোগের শেষ নেই। এই ভাসমান সাকোঁতে। ব্যাপক জনদূর্ভোগ চলছে ভারী মালামাল পারাপারে।

 

এ সড়কের মাটি ধসে যাওয়ায় কোথাও কোথাও ৫০ ফুট থেকে ৬৫ ফুট গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এসব গর্তে পানি ভরাট থাকায় নতুন করে সড়ক নির্মাণ দেরি হচ্ছে। চেষ্টা থাকলে সড়ক সংস্কার কাজ দ্রুত সম্ভব নয়।

 

তাই, রাস্তার উপরেই একটি ভাসমান সেতু নির্মাণ করা হয়েছে। পানির ওপর বাঁশ পুঁতে সারিবদ্ধভাবে ড্রাম সাজিয়ে তার উপর বাঁশের তৈরী পাটাতন বসিয়ে সেতুটি নির্মাণ করা হয়েছে।

 

সড়কটি বন্ধ থাকায় গাইবান্ধা জেলা শহরের সঙ্গে ফুলছড়ি ও সাঘাটা উপজেলার ১৭টি ইউনিয়নের মানুষের সরাসরি চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এই ভাসমান সেতুর উপর দিয়ে ভারি যানবাহন চলাচল করা সম্ভব না হলেও সিএনজি, অটোরিক্সা, অটোবাইক ও পথচারি চলাচল করছে ।

 

অটোচালক হাসান বলেন, ‘জীবনের প্রয়োজনে ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করছি। একটা অটো উঠতে পারেনা, এমনকি একটা সাইকেল ওঠাতেও কষ্ট হয়। অনেক রিস্ক নিয়ে চলাচল করতে হয়।’

 

অনুমতি ও প্রয়োজনীয় বরাদ্দ পেলে আগামী দু’মাসের মধ্যে সড়ক সংস্কারের কথা জানায় সড়ক ও জনপদ বিভাগ।

 

গাইবান্ধা সড়ক ও জনপদ বিভাগের (সওজ) নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান বলেন, ‘সড়ক সংস্কার করা হবে, তখন ফুলছড়ি ও সাঘাটা উপজেলার বন্যার কারণে যে দুর্ভোগ পোহানোর কথা, তা হবেনা। আর, এই দিক দিয়ে তখন ৯০% যানবাহন চলাচল করবে।’

 

যোগাযোগের জন্য সাময়িক নয় স্থায়ীভাবে ব্যবস্থা করার দাবি করছে এলাকার সর্বস্তরের মানুষ।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38354819
Users Today : 1462
Users Yesterday : 6146
Views Today : 5589
Who's Online : 33

© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/