রবিবার, ০৯ অগাস্ট ২০২০, ০২:৩৫ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
ওসি প্রদীপ মিথ্যা মামলা করার আইনি পরামর্শও নিয়েছিলেন প্রত্যাহার আর বদলিতে সীমাবদ্ধ “লাগামহীন ওসি”দের শাস্তি ! ঘুম থেকে তুলে ক্রসফায়ার দেন ওসি প্রদীপ, টাকাও নেন ১৮ লাখ (ভিডিও) সিনহাকে ‘হত্যা’র পর ‘বাঁচার জন্য’ আইনজীবীকে ফোন ওসি প্রদীপের (অডিও)ভাইরাল পুলিশ নিজেদের এখন ‘ওয়েস্টার্ন হিরো’ ভাবছে: সোহেল চেকপোস্টে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের তদারকি আরো বাড়াতে হবে: ডিএমপি কমিশনার থানায় বোমা বিস্ফোরণের পর মিরপুর পুলিশের শীর্ষ কর্মকর্তাদের বদলি মাহিন্দা রাজাপাকসেকে অভিনন্দন জানালেন শেখ হাসিনা বৈরুতে আহত বাংলাদেশিদের দূতাবাসে যোগাযোগের আহ্বান জোয়ারে প্লাবিত লক্ষ্মীপুর : ক্ষতির শিকার ১১ হাজার হেক্টর ফসলী জমি লক্ষ্মীপুর জেলা উন্নয়ন বাস্তবায়ন পরিষদের আহ্বায়ক কমিটি গঠন অটোরিকশার ৭ যাত্রীকে পিষে দিলো বাস গণমাধ্যমে প্রচার হওয়া ,ফোনালাপ যাচাই করা হবে: র‌্যাব প্রেম করে বিয়ে করছেন? তাহলে দেখে নিন কী কী ভুল হতে পারে আপনার! যে কারণে ছেলেদের দেখলে মেয়েরা বার বার ওড়না ঠিক করে

গাইবান্ধায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি,শহর রক্ষা বাঁধ হুমকির মুখে

গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি: গাইবান্ধায় ব্রহ্মপুত্র, তিস্তা, যমুনা ও ঘাঘট নদীর পানি বৃদ্ধি ফলে বন্যা পরিস্থিতি আরও অবনতি হয়েছে। বন্যার পানিতে নতুন নতুন এলাকা প্ল¬াবিত হচ্ছে। পানিবন্দী হয়ে পড়েছে প্রায় ৬০ হাজার মানুষ। বিশুদ্ধ পানির চরম সংকট দেখা দিয়েছে। পানি উন্নয়ন বোর্ড জানান ৩০ জুন মঙ্গলবার ব্রহ্মপুত্রের পানি বিপদসীমার ৮০ সেন্টিমিটার ও ঘাঘট নদীর পানি বিপদসীমার ৫৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। করতোয়া নদীর পানি ২৪ ঘন্টায় ৫০ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পেয়েছে। গাইবান্ধা সদরের নতুন ব্রীজ থেকে ডেভিড কো¤পানিপাড়া পর্যন্ত শহর রক্ষা বাঁধটি পানি উন্নয়ন বোর্ড তড়িঘড়ি করে বালু দিয়ে সংস্কার শুরু করে। বন্যার পানির তোড়ে বালু সরে গিয়ে বাঁধের ৪টি পয়েন্টের ফুটো দিয়ে পানি প্রবেশ করছে। বাঁধের গোড়ার মাটি ধসে যাচ্ছে। ফলে শহর রক্ষা বাঁধটি এখন চরম হুমকির মুখে পড়ে। ফুলছড়ি উপজেলায় নদী ভাঙ্গনে হুমকির মুখে পড়েছে এরেন্ডাবাড়ী ইউনিয়নের জিগাবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়,সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়,একটি বাজার,নুরানী হাফিজিয়া মাদ্রাসা, ঈদগা মাঠ,এরেন্ডাবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ ভবন, পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্র, দুটি জামে মসজিদ, ৩টি মোবাইল টাওয়ার। গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের ৭টি ইউনিয়ন, গাইবান্ধা সদরের ৩টি, ফুলছড়ির ৬টি ও সাঘাটার উপজেলার ৩টি ইউনিয়ন বন্যা কবলিত হয়ে পড়েছে। সুন্দরগঞ্জ উপজেলার তারাপুর, বেলকা, কঞ্চিবাড়ী, হরিপুর, কাপাসিয়া, শ্রীপুর ও চন্ডিপুর, গাইবান্ধা সদর উপজেলার কামারজানি, মোল¬¬ারচর ও গিদারী, ফুলছড়ি উপজেলার এরেন্ডবাড়ি, ফজলুপুর, ফুলছড়ি, গজারিয়া, উড়িয়া ও উদাখালী এবং সাঘাটা উপজেলার ভরতখালী, ঘুড়িদহ ও হলদিয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় পানি ঢুকে পড়েছে। বন্যা কবলিত এলাকার মানুষ গবাদিপশু নিয়ে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ অথবা উঁচু স্থানে গিয়ে আশ্রয় নিচ্ছে। গাইবান্ধা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মোখলেছুর রহমান বলেন, পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় ব্রহ্মপুত্র বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ও গাইবান্ধা শহর রক্ষা বাঁধের বিভিন্ন পয়েন্ট ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। তবে বাঁধ যাতে ক্ষতিগ্রস্থ না হয় সেজন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 deshersangbad.com/
Design & Developed BY Freelancer Zone