বুধবার, ১২ অগাস্ট ২০২০, ০৩:২৩ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
প্রাচীন কালের এই নিয়মগুলি মেনে চলুন, সেক্স লাইফ উপভোগ করুন ভালোবাসা কতটা প্রকাশ পাবে চুম্বনে গর্ভাবস্থায় যৌনমিলন? এই বিষয়গুলি অবশ্যই মাথায় রাখবেন পর্নোগ্রাফিতে নারীদের আগ্রহ বেশি শ্রমিক থেকে দুলাল ফরাজী ফ্যাক্টরীর মালিক  সুন্দরবনে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মাছ শিকার ৯ জেলে আটক প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ভুমিহীনদের জমি দখলের চেষ্টা বন্ধের দাবিতে গাইবান্ধায় মানববন্ধন গাইবান্ধার ব্রহ্মপুত্র নদের ভাঙনে ১৫৫টি বসতবাড়ি নদীগর্ভে বিলীন গাইবান্ধায় করোনা আক্রান্ত -৭৪৬ সুস্থ্য -৪১৬ ,মৃত্যু- ১৩ পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উপলক্ষে বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট দিনব্যাপী নানা কর্মসূচী পালন বাংলাদেশের সাবমেরিন ক্যাবল কুয়াকাটার দ্বিতীয় ল্যান্ডিং কাটার অপরাধে গ্রেফতার২। প্রথম আলো পত্রিকায় প্রকাশিত “আবুল বারকাতের প্রতিবাদ ও প্রতিবেদকের বক্তব্য” সস্পর্কে আমার বক্তব্য প্রকাশ প্রসঙ্গে পতœীতলায় শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উৎসব পালিত বকশীগঞ্জে কিন্ডার গার্টেন শিক্ষকদের মানবেতর জীবনযাপন চাই রাজনৈতিক দুর্বৃত্তায়ন ও দুর্নীতি নির্মূল: টিআইবির আহŸান

গাইবান্ধায় বন্যা পরিস্থিতি উন্নতি হলেও দুর্ভোগ কমেনি

গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি:

নদ-নদীর পানি কমায় গাইবান্ধার সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি কিছুটা উন্নতি হয়েছে। তবে দুর্ভোগ কমেনি পানিবন্দি চার উপজেলার ২৬টি ইউনিয়নের অন্তত ৫০ হাজার মানুষের। পানিবন্দি অধিকাংশ মানুষ ঘরবাড়ি ছেড়ে আশ্রয় নিয়েছে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ, আশ্রয়কেন্দ্র ও উঁচু রাস্তায়। এসব মানুষের বিশুদ্ধ খাবার পানি, শুকনা খাবার তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে। টয়লেটের ব্যবস্থা না থাকায় দুর্ভোগ আরও বেড়েছে।

খাবার না থাকায় অনাহারে মানবেতর দিন কাটছে দুর্গতদের। প্রশাসনের হিসাবে সুন্দরগঞ্জ, সাঘাটা, ফুলছড়ি ও সদর উপজেলার ২৬ ইউনিয়নের চরাঞ্চল ও নি¤œএলাকা প্লাবিত হয়েছে। জেলায় এ পর্যন্ত বন্যা ও নদী ভাঙ্গনে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে ১ লাখ ২২ হাজার ৩২০ জন মানুষ। গত ১৫ দিনে সদর, ফুলছড়ি, সাঘাটা ও সুন্দরগঞ্জ উপজেলার অন্তত ৩০টি গ্রাম বিলীন হয়েছে। নদী ভাঙ্গনে কমপক্ষে ২ হাজার পরিবার তাদের ভিটামাটি হারিয়েছে।

ভাঙ্গনে ফুলছড়ি উপজেলার সাতটি ইউনিয়নের ৬৫০ পরিবার ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে বলে জানান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জি এম সেলিম পারভেজ। বন্যা দুর্গত মানুষের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ঘরবাড়ি ডুবে যাওয়ায় গরু ছাগল আর ঘরের জিনিসপত্র নিয়ে কোনোরকমে আশ্রয় নিয়েছেন বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ও উঁচু রাস্তায়। কাজকর্ম নেই, ঘরে খাবারও নেই তাদের। খাবার ও বিশুদ্ধ পানির সংকটে রয়েছেন তারা। চারণভ‚মি ডুবে যাওয়ায় গো-খাদ্যের তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে।

পানিবন্দি মানুষের মাঝে সরকারিভাবে চাল ও নগদ টাকাসহ ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত রয়েছে। তবে চাহিদার তুলনায় তা অপ্রতুল বলে অভিযোগ বানভাসি মানুষের। বন্যায় চার উপজেলার ৩ হাজার ৫৪২ হেক্টর জমির বিভিন্ন ফসলি ক্ষেত তলিয়ে গেছে। গাইবান্ধা জেলা কৃষি স¤প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মাসুদুর রহমান বলেন বন্যার ৩ হাজার ১০৬ হেক্টর জমির পাট, ১৯৬ হেক্টর আউশ ধান ও ১২৮ হেক্টর জমির শাক-সবজি তলিয়ে গেছে।

এছাড়া পানিতে তলিয়ে গেছে ৪৩ হেক্টর জমির আমন ধানের বীজতলা, ৪৪ হেক্টর তিল ও ২০ হেক্টর জমির চিনা বাদাম। বন্যায় জেলার দুই হাজারের বেশি কৃষক ক্ষতির মুখে পড়েছে। জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আবু দাইয়ান বলেন বন্যার পানিতে ভেসে গেছে প্রায় পাঁচ শতাধিক ছোট-বড় পুকুর ও জলাশয়ের মাছ। গাইবান্ধা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোখলেছুর রহমান বলেন গত তিনদিন ধরে নদীর পানি কমতে শুরু করেছে।

গত ২৪ ঘন্টায় ৪ জুলাই শনিবার সকাল পর্যন্ত ব্রহ্মপুত্র নদের পানি ১১সেন্টিমিটার কমে বিপদসীমার ৫৫সেন্টিমিটার ও ঘাঘট নদীর পানি ৯ সেন্টিমিটার কমে ব্রিজ পয়েন্টে বিপদসীমার ২৮ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। তিস্তার পানি বেড়ে বিপদসীমার ১২ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এছাড়া করতোয়ার পানি বিপদসীমার ২সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা এ কে এম ইদ্রিস আলী বলেন, দুর্গত মানুষের মাঝে বিতরণের জন্য ২০০ মেট্রিক টন চাল ও নগদ ১৩ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। নতুন করে আরও ৬০ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ পাওয়া গেছে। স্থানীয় জনপ্রিতিনিধিরা দুর্গতদের তালিকা করে এসব চাল ও নগদ টাকা পর্যায় ক্রমে বিতরণ করবে।

বন্যার্তদের জন্য চরাঞ্চলসহ ৫০টি আশ্রয়কেন্দ্র খোলা হয়েছে। আশ্রয়কেন্দ্র এবং বিভিন্ন জায়গায় আশ্রয় নেওয়া মানুষদের মধ্যে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত রয়েছে। ভেঙ্গে যাওয়া ও ঝুঁকিপূর্ণ বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধগুলোতে মেরামতের কাজ করছে পানি উন্নয়ন বোর্ড। দুর্গত এলাকায় ৬১টি মেডিক্যাল টিম কাজ করছে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 deshersangbad.com/
Design & Developed BY Freelancer Zone