দেশের সংবাদ l Deshersangbad.com » গ্রেনেড হামলা মামলায় ফাঁসিরদন্ডপ্রাপ্ত ১৯ জনের মধ্যে ২ জনের বাড়ি ঝিনাইদহে



গ্রেনেড হামলা মামলায় ফাঁসিরদন্ডপ্রাপ্ত ১৯ জনের মধ্যে ২ জনের বাড়ি ঝিনাইদহে

৯:১৭ অপরাহ্ণ, অক্টো ১০, ২০১৮ |জহির হাওলাদার

128 Views

জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহ থেকেঃ
গ্রেনেড হামলা মামলায় ফাঁসিরদন্ডপ্রাপ্ত ১৯ জনের মধ্যে ২ জনের বাড়ি ঝিনাইদহে। তারা হলো-শৈলকুপা উপজেলার গাড়াগঞ্জের আবুল কালাম আজাদ বুলবুল ও ঝিনাইদহ শহরের পবহাটি এলাকার বেলাত আলীর ছেলে উজ্জল ওরফে রতন। আবুল কালাম আজাদ বুলবুলের বাড়ি শৈলকুপা উপজেলার বকসিপুর গ্রামে। একসময় মেয়ে সেজে যাত্রাদলে নর্তীকির কাজ করতো। স্থানীয় গাড়াগঞ্জ এলাকায় বিয়ের পর দর্জির দোকান দেয়। সেখান থেকে মুফতি হান্নানের সাথে তার পরিচয় হয়। বুলবুলের দোকানে মুফতি হান্নানের নিয়মিত আসা যাওয়া ছিল। ২০০৭ সালে তার দোকান থেকে র‌্যাব তাকে গ্রেফতার করে। উজ্জল ওরফে রতন ঝিনাইদহ শহরে বাই সাইকেল মেকারের কাজ করত। এলাকার কিংকন ও আরিফ বিল্যাহ’র সাথে তার পরিচয় হয়। তাদের মাধ্যমে মুফতি হান্নানের সাথে যোগাযোগ হয়। ২০০৭ সালে মাগুরার শ্রীপুর থেকে র‌্যাব তাকে আটক করে। এরপর তার পরিবার জানতে পারে রতন গ্রেনেড হামলা মামলার আসামী।

Spread the love
22 Views

১০:০৫ অপরাহ্ণ, ফেব্রু ১৬, ২০১৯

ইসলামপুরে নাশকতা মামলার আসামী গ্রেফতার...

24 Views

১০:০১ অপরাহ্ণ, ফেব্রু ১৫, ২০১৯

পলাশবাড়ীতে বাঁধ সংস্কারের দাবী।...

26 Views

৯:৫১ অপরাহ্ণ, ফেব্রু ১৫, ২০১৯

সিংড়ায় ৪ মাদক ব্যবসায়ী ও সেবনকারী আটক...

30 Views

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




উপদেষ্টা পরিষদ:

১। ২।
৩। জনাব এডভোকেট প্রহলাদ সাহা (রবি)
এডভোকেট
জজ কোর্ট, লক্ষ্মীপুর।

৪। মোহাম্মদ আবদুর রশীদ
ডাইরেক্টর
ষ্ট্যান্ডার্ড ডেভেলপার গ্রুপ

প্রধান সম্পাদক:

সম্পাদক ও প্রকাশক:

জহির উদ্দিন হাওলাদার

নির্বাহী সম্পাদক
উপ-সম্পাদক :
ইঞ্জিনিয়ার নজরুল ইসলাম সবুজ চৌধুরী
বার্তা সম্পাদক :
সহ বার্তা সম্পাদক :
আলমগীর হোসেন

সম্পাদকীয় কার্যালয় :

১১৫/২৩, মতিঝিল, আরামবাগ, ঢাকা - ১০০০ | ই-মেইলঃ dsangbad24@gmail.com | যোগাযোগ- 01813822042 , 01923651422

Copyright © 2017 All rights reserved www.deshersangbad.com

Design & Developed by Md Abdur Rashid, Mobile: 01720541362, Email:arashid882003@gmail.com

Translate »