শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৩:৫১ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
মুশতাকের মৃত্যুতে ১৩ দেশের রাষ্ট্রদূতের গভীর উদ্বেগ মুশতাক আহমেদের মৃত্যু অনভিপ্রেত: তথ্যমন্ত্রী গাইবান্ধায় প্রেমের কারণে কিশোরীকে গলা কেটে হত্যা কুড়িগ্রামে পাকা সড়ক নির্মানের দাবিতে মানববন্ধন কুয়েতে সাজাপ্রাপ্ত পাপুলের এমপি পদ শূন্য: লক্ষ্মীপুর-২ আসনে নির্বাচনী হাওয়া লক্ষ্মীপুর আইনজীবী সমিতির নির্বাচন সম্পন্ন চট্টগ্রামে পাঁচ ভাই-বোনের একই দিনে বিয়ে মেয়ের খোঁজ নিতেন না তামিমা শাহবাগে লেখক মুশতাকের গায়েবানা জানাজা, জুতা মিছিল বনানীতে বিএনপির মশাল মিছিলে পুলিশের হামলার অভিযোগ অন্যের বিশ্বাসের প্রতি আঘাত করে লিখতেন মুশতাক: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রতি সোম ও বৃহস্পতিবার চলবে ঢাকা-নিউ জলপাইগুড়ি ট্রেন আতিকের প্রতারণার তথ্য পেল পুলিশ! কৃষকনেতা বি এম সোলায়মান মাষ্টার এর ৮ম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত গাবতলীর কাগইলে ফ্রি চিকিৎসা ক্যাম্প অনুষ্ঠিত

ঘূর্ণিঝড় বুলবুল বরিশালের ৩০টি ইট ভাটায় পাঁচ কোটি টাকার ক্ষতি

মনির হোসেন,বরিশাল\ ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তান্ডবে জেলার বাবুগঞ্জ উপজেলার অনুমোদিত চলমান ৩০টি ইট ভাটায় কমপক্ষে পাঁচ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি নিরুপণ করেছেন ইট ভাটা মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দরা। বিভিন্ন ইট ভাটা থেকে প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী এই ক্ষয়ক্ষতি নিরুপণ করা হয়েছে।
সে মোতাবেক ৩০টি ইট ভাটায় ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে জোয়ারের পানি এবং অতিবৃষ্টির কারণে গড়ে প্রায় সাত লাখ ইট সম্পূর্ণরূপে মাটির সাথে মিশে গেছে। আর এমন হিসেবে ৩০টি ভাটায় দুই কোটি ১০ লাখ কাঁচা ইট নষ্ট হয়েছে। এতে কমপক্ষে পাঁচ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। শুক্রবার সকালে ইট ভাটা মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ফারুক হোসেন মৃধা এসব তথ্য জানিয়েছেন।
তিনি বলেন, ঘূর্ণিঝড় বুলবুল এমনই একসময় আঘাত হেনেছে যখন সকল ইট ভাটায় ইট পোড়ানো অথবা প্রস্তুতের কাজ চলছিল। শুধু পানিতে ইট নষ্ট হয়ে যাওয়াই শেষ হিসেব নয়, প্রথম আবহাওয়ার সংকেত পেয়ে সকল ইট ভাটায় লাখ লাখ টাকার পলিথিন ক্রয় করে তৈরীকৃত কাঁচা ইট যথানিয়মে ঢেকে দেয়া হয়েছিল। কিন্তু উপর থেকে ঢেকে দিলেও জোয়ারের পানিতে নিচের ইট ভিজে সাজানো সকল ইট হেলে পরেছে, আর এতে তৈরী এবং চুল্লিতে যতো ইট ছিলো সব গলে মাটির সাথে মিশে গেছে।
রানা ও যমুনা ব্রিকসের প্রোপাইটর রেজভী হাসান রানা জানান, তার দুটি ভাটায় তৈরী অন্তত ১০লাখ কাঁচা ইট সম্পূর্ণ মাটির সাথে মিশে গেছে। এতে কমপক্ষে ২০ লাখ টাকার বেশী আর্থিক ক্ষতি হয়েছে। যে ক্ষতি কাটিয়ে ওঠা সম্ভব নয়। সাজ ব্রিকসের প্রোপাইটর সাইফুল ইসলাম জানান, তার ভাটায় কিলিং এবং ফরাশ মিলিয়ে কমপক্ষে ১৫ লাখ ইট ছিলো, যা সম্পূর্ণ মাটির সাথে মিশে গেছে। এতে তার প্রায় ৩০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। একই কথা জানালেন হাসান, সুপার, সকাল, আকন, ইসলাম, মাষ্টার, বেষ্ট, সালাম, আলী, হাওলাদার, ফাতেমা, আরাবী, বিএলএস, আসিব, নাইস সহ অন্যান্য ইট ভাটার মালিকরা।
ইট ভাটা মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ফারুক হোসেন জনকণ্ঠকে বলেন, চলতি বছর প্রতিটি ইট ভাটায় ইট পিছু তিনগুন খরচ হচ্ছে। প্রথমত তৈরী খরচ এবং দ্বিতীয় নষ্ট ইট অপসারণ মজুরী এবং সেই ইট পুনঃরায় তৈরী করা। এ ক্ষতি কাটিয়ে উঠা সম্ভব নয়, কারণ প্রতিটি ইট ভাটার রয়েছে মোটা অংকের ঋণ। দাদন ছাড়া কোটি কোটি টাকা নগদ ব্যয় করে ভাটা চালানো সম্ভন নয়, বিধায় সকল ভাটার বিপরীতে দাদন অথবা ঋণ নেয়া আছে। ফলে চলতি বছর সকল ইট ভাটার মালিককে লোকসান গুনতে হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38333077
Users Today : 3180
Users Yesterday : 6494
Views Today : 10243
Who's Online : 33
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/