সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১, ০৫:৫৩ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
বাংলাদেশি শিক্ষকদের আমেরিকান ফেলোশিপের আবেদন চলছে ঘরের কোন জিনিস কতদিন পরপর পরিষ্কার করা জরুরি কিশোরকে গাছে বেঁধে নির্মম নির্যাতন, পায়ুপথে মাছ ঢুকানোর চেষ্টা পদ্মায় ভেসে উঠল শিশুর মরদেহ ভাইকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ গেল বোনের ৭ দিনের সাধারণ ছুটির ঘোষণা আসতে পারে টার্গেট রমজান মাস তৎপর হয়ে উঠেছে ‘ভিক্ষুক চক্র’ মামুনুলের দ্বিতীয় স্ত্রীর ঘরে মিলেছে ৩ ডায়েরি এই ফলগুলো খেয়েই দেখুন! বাস নেই-লঞ্চ নেই, বাড়িতে যাওয়াও থেমে নেই কঠোর লকডাউনেও খোলা থাকবে শিল্প-কারখানা গৃহকর্মীসহ ৯জন করোনায় আক্রান্ত, খালেদার জন্য কেবিন বুকিং বাংলাদেশে করোনা মৃত্যুতে আজও রেকর্ড, বেড়েছে শনাক্ত ২০ এপ্রিল পর্যন্ত ফ্লাইট বন্ধ সাধারণ ছুটির ঘোষণা আসছে

ছাত্রলীগ কর্মী হত্যার দোষীদের গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবিতে জাবি ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল

জাবি প্রতিনিধি:

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা রাকিব ও কয়রা উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হাদীউজ্জামান রাসেলকে হত্যার প্রতিবাদে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ বিক্ষোভ মিছিল করেছে।

মঙ্গলবার (৩ মার্চ) বেলা ১২ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন চত্বর থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে শহীদ মিনারে এসে শেষ হয়। মিছিল পরবর্তী সংক্ষিপ্ত সমাবেশ কথা বলেন শাখা ছাত্রলীগের নেতারা।

সমাবেশে শাখা ছাত্রলীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক এম মাইনুল ইসলাম রাজন বলেন, ‘ছাত্রলীগ ভাল কাজ করলে সুশীল সমাজের চোখে পড়ে না। কিন্তু খারাপ কাজ করলে তার সমালোচনায় পঞ্চমুখ হয়ে ওঠে। মিড়িয়াও শুধু আমাদের খারাপ দিকগুলো তুলে ধরে। আমরা তাদের বলতে চাই-আমাদের ভাল খারাপ উভয়দিক সমানভাবে তুলে ধরুন। জামাত শিবিরের রাজনীতি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে নিষিদ্ধ। সারা বাংলাদেশেও নিষিদ্ধ। তাদের এই অপতৎপরতা বন্ধ করতে হবে এবং অতিশীঘ্রই রাবিব ও রাসেল হত্যার বিচার সম্পন্ন করতে হবে।’

উল্লেখ্য, গত রবিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার আমান উল্যাহপুর বাজারে আড্ডা দিচ্ছিলেন কয়েকজন ছাত্রলীগের নেতাকর্মী। এ সময় শিবিরের কয়েকজন বাজারে এসে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালালে উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়।

সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধসহ ছাত্রলীগের প্রায় সাতজন নেতাকর্মী আহত হয়। আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আহতদের মধ্যে রাকিব সোমবার দুপুর দেড়টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। পরে ৩ মার্চ পুলিশ ও গোয়েন্দা বাহিনী রাকিব হত্যা মামলার ২ নম্বর আসামি শিবিরকর্মী নজরুল ইসলাম ধরতে গেলে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছেন।

রাকিব হোসেন আমান উল্যাহপুর ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ড শিপন পাটোয়ারী বাড়ির সফি উল্যার ছেলে। তিনি আমান উল্যাপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

অন্যদিকে এলাকার খালের ওপর একটি সেতুর নির্মাণকাজকে কেন্দ্র করে গত রবিবার বিকালে সংঘর্ষে আহত হন খুলনার কয়রা উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হাদীউজ্জামান রাসেল। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়ার পথে সোমবার ভোরে তার মৃত্যু হয়। নিহত রাসেল কয়রার বাইলাহারানিয়া গ্রামের আবদুস সাত্তার সানার ছেলে।

সমবেশে শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মো. মিজানুর রহমান, আজিজুর রহমান নিলু, বায়েজিদ রানা কলিংস, জহিরুল ইসলাম বাবু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আফফান হোসেন আপন, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. তারেক হাসান, অভিষেক মন্ডল উপ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ঈসমাইল হোসাইন প্রমুখ সহ বিশ্ববিদ্যালয়ের আল বেরুনি হল, শহীদ সালাম-বরকত হল, মীর মশাররফ হোসেন হল, মওলানা ভাসানী হল, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল, শহীদ রফিক-জব্বার হল ও বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হল ইউনিটের নেতাকর্মীরা অংশ নেন।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38442167
Users Today : 378
Users Yesterday : 1265
Views Today : 4539
Who's Online : 26
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design And Developed By Freelancer Zone