মঙ্গলবার, ০২ মার্চ ২০২১, ০৪:০২ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
বরিশাল পুলিশ লাইন্সএ নিহত পুলিশ সদস্যদের স্মৃতিম্ভতে পুস্পার্ঘ্য অর্পন শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্ব বাংলাদেশকে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত করেছে: মিজানুর রহমান মিজু রাণীশংকৈলে জাতীয় বীমা দিবসে র‍্যালি ও অলোচনা  গণতন্ত্রের আসল অর্জনই হলো বিরোধিতা করার অধিকার – সুমন  জাতীয় প্রেস ক্লাবে মোমিন মেহেদীকে লাঞ্ছিতর ঘটনায় উদ্বেগ বেরোবি ভিসিকে নিয়ে মন্তব্য করায় শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ পটুয়াখালী এই প্রথম জোড়া লাগানোর শিশুর জন্ম! তানোরে ইউনিয়ন পরিষদের ভবন উদ্বোধন ফেসবুক ইউটিউব টুইটারকে যেসব শর্ত মানতে হবে ভারতে ২০৩০ সালের মধ্যে ঢাকার যানজট মুক্তির স্বপ্নপূরণে যত উদ্যোগ আজ অগ্নিঝরা মার্চের প্রথম দিন রাশিয়া প্রথম হয়েছিল বাংলাদেশের দুই টাকার নোট। অজুহাত দেখিয়ে মে’য়েরা বিয়ের প্রস্তাবে ল’জ্জায় গো’পনে ১০টি কাজ করে তামিমা স’ম্পর্কে এবার চা’ঞ্চল্যকর ত’থ্য দিল তার মেয়ে তুবা নিজেই ছে’লে: “বাবা তুমি তো বলেছিলে পিতৃ ঋণ কোনদিন শোধ হয় না

ঝিনাইদহে ১ লাখ ৫ হাজার ৬৪৬ হেক্টর জমিতে কৃষকের বিপুল পরিমান টাকা খরচ হচ্ছে আগাছা দমনে

ঝিনাইদহের চাষিরা এখন ব্যস্ত সময় পার করছেন ধানের আগাছা দমনে, ধান উৎপাদনে এবার খরচ বাড়ছে দ্বিগুন
জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহঃ
ঝিনাইদহের চাষিরা এখন ধানের আগাছা দমনে ব্যস্ত সময় পার করছেন। এবছর একটু দেরিতে থেমে থেমে বৃষ্টি পাতের কারনে ধানের জমিতে আগাছা পরিমান বেশি। যে কারনে জমিতে আগাছা নাশক ব্যবহার করলে ও ভালো ফল আসেনি। ফলে কৃষকদের বিঘা প্রতি জমিতে প্রায় ৩’হাজার টাকা খরচ হচ্ছে। সে হিসাবে আমন মৌসুমে ১ লাখ ৫ হাজার ৬৪৬ হেক্টর জমিতে কৃষকের বিপুল পরিমান টাকা আগাছা দমনে খরচ হচ্ছে। এছাড়া ধান উৎপাদনের জন্য উপকরনের দাম বৃদ্ধি পাবার ফলে উৎপানের খরচ বাড়ছে। তবে যে সকল মাঠে ধানের চারা রোপনের পর থেকে জিমিতে প্রয়োজন মত পানির ব্যবস্থা রয়েছে, সেখানে অগাছা পরিমান কম বলে ভুক্তভোগি কৃষকরা জানান। ঝিনাইদহ কৃষি সম্প্রসান অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, জেলার ৬উপজেলায় চলতি মৌসুমে ১ লাখ ৫ হাজার ৬৪৬ হেক্টর জমিতে আমন আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। যেখানে সদরে ২৫ হাজার ৩শ হেক্টর, শৈলকুপায় ২৫ হাজার ৮৮০ হেক্টর, হরিণাকুন্ডে ১০ হাজার ৮শ হেক্টর, কালীগঞ্জে ১৯ হাজার ২৭৫ হেক্টর, কোটচাঁদপুরে ৬ হাজার ২৬১ হেক্টর, মহেশপুরে ১৮ হাজার ১৩০ হেক্টর জমি রয়েছে। আর এ পরিমান আবাদ থেকে ৩ লাখ ৫ হাজার ৮৮ টন চাল উৎপাদনের টার্গেট নেয়া হয়েছে। গত বছর আমন আবাদ করা হয়েছিল ১ লাখ ১ হাজার ২৫০ হেক্টর জমিতে। ঝিনাইদহ সদর উপজেলার সাধুহাটি ইউনিয়নের আশাননগন গ্রামের কৃষক সহিদুল ইসলাম ও জীবনা গ্রামের মিলন মিয়া বলেন, এবছর দেরি বৃষ্টি হয়েছে, তাও আবার থেমে থেমে। যে কারনে জমিতে আগাছার পরিমান একটু বেশি। বিঘা প্রতি জমিনুযায়ি প্রায় ৩’ হাজার টাকার শ্রমিক খরচ হচ্ছে আগাছা দমনে। জেলা কৃষি সস্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক জি এম আব্দুর রউফ জানান, ঝিনাইদহে এ বছর একটু দেরিতে বৃষ্টি হওয়াতে এখানে একটু দেরিতে ফসল ফলবে। তবে আমরা কৃষকদের সেচ ব্যবস্থার মাধ্যমে বীজতলা তৈরিতে উদ্বুদ্ধ করেছি। গত বছরের তুলনায় কৃষকরা এ বছর বেশি আমনের আবাদ করায় আমরা সন্তুষ্ট। আগস্টের প্রথম সপ্তাহ থেকে এখানে আমন আবাদ কার্যক্রম শেষ হয়েছে। আমাদের পক্ষ থেকে কৃষকদের সারিবদ্ধ চারা রোপণ, সুষম মাত্রায় সার প্রয়োগসহ সব ধরনের পরামর্শ প্রদান অব্যাহত রয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38343780
Users Today : 2057
Users Yesterday : 5054
Views Today : 8190
Who's Online : 22
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/