বুধবার, ০৩ মার্চ ২০২১, ১২:০৮ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
মাদ্রাসা প্রধানদের জন্য সুখবর প্রাথমিক বিদ্যালয় খোলার প্রস্তুতি শুরু হাজারবার কুরআন খতমকারী আলী আর নেই তানোরে আওয়ামী লীগ মুখোমুখি উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হওয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে অভিবাদন জানিয়ে পাবনা জেলা ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল দিনাজপুর বিরামপুর পৌরসভায় ১১ মাসপর বেতন পেলেন কর্মকর্তা ও কর্মচারী গণ করোনার টিকা নিলেন মির্জা ফখরুল ও তার স্ত্রী রাজনীতিতে সামনে আরও খেলা আছে ইসিকে অপদস্ত করতে সবই করছেন মাহবুব তালুকদার: সিইসি ৪ অতিরিক্ত সচিবের দফতর বদল এ সংক্রান্ত আদেশ জারি রাজারহাটে কৃষক গ্রুপের মাঝে কৃষিযন্ত্র বিতরণ জামালপুরে কিশোরীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার পত্নীতলায় জাতীয় ভোটার দিবস পালিত পত্নীতলা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত প্রফেসর মোঃ হানিফকে শেষ শ্রদ্ধা জানিয়েছেন বরিশালের সর্বস্তরের মানুষ।

ডুমুরিয়ার থুকড়া বায়তুস সালাম যাকাত কমিটির পক্ষ থেকেএক বিধবার গৃহ নির্মাণসহ গরু বিতরণ ও আর্থিক সহযোগিতা

খুলনা অফিস : ‘যাকাত ভিত্তিক সমাজ চাই-দারিদ্র মুক্ত দেশ চাই’ শ্লোগানকে সামনে রেখে বেকার ও দারিদ্রমুক্ত সমাজ গড়ার লক্ষ্যে খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার থুকড়া বায়তুস সালাম কেন্দ্রীয় জামে মসজিদকে কেন্দ্র করে গঠিত বায়তুস সালাম যাকাত কমিটির যাকাত বিতরণ কর্মসূচি অব্যাহত রয়েছে। তারাই ধারাবাহিকতায় গতকাল জুম্মাবাদ যাকাত কমিটির উদ্দোগে স্থানীয় অসহায় ও দুস্থদের মাঝে যাকাতের টাকা দিয়ে এক বিধাব মহিলা মোছাঃ শরিফা স্বামীঃ মৃত মাহাবুর গাজী কে একটি গৃহ নির্মাণ কওে দেওয়া হয়। এছাড়া তিনজনকে গরু ও চিকিৎসা বাবদ তিনজনকে নগদ অর্থ প্রদান করা হয়।
এদের মধ্যে আঃ আজিজ বিশ^াসের স্ত্রী মোছা.মর্জিনা বেগম, মৃতঃ কালাম শেখের মেয়ে মোছা. ছালেহা খাতুন ও মৃত. বাদাল বিশ^াসের মেয়ে মোছাঃ নাজমা বেগমকে একটি করে গরু ও নাজিম উদ্দিনের স্ত্রী আমেনা বেগমকে, মৃত আব্দুর রহিমের ছেলে নজরুল ইসলাম গাজী ও মৃতঃ রাহাদ বিশ^াসের ছেলে জামাল বিশ^াসকে চিকিৎসার জন্য নগদ অর্থ প্রদান করা হয়।
যাকাত বিতরণ কর্মসূচী পরিচালনা করেন বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ, তরুন সমাজ সেবক ও যাকাত কমিটির প্রধান উপদেষ্টা ডা. হাফেজ মাওলানা মো.সাইফুল্লাহ মানসুর।
এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ খুলনা নিসারিয়া কামিল মাদ্রাসার সহকারী আরবী প্রভাষক মাওলানা মোঃ আবু বকর সিদ্দীক, আরো উপস্থিত ছিলেন কমিটি উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য বিশিষ্ট সমাজ সেবক আলহাজ¦ মো. গনি গাজী ও নাসির উদ্দিন খোকন, যাকাত কমিটির সভাপতি গাজী মোনায়েম হোসেন, সহ-সভাপতি শেখ রবিউল ইসলাম কমল, সাধারণ সম্পাদক আফজাল হোসেন, সহ-সম্পাদক জি এম জহির উদ্দিন, কোষাধ্যক্ষ বি.এম আফজাল হোসেন, সদস্য বি.এম আনোয়ার হোসেন, বি.এম হায়দার আলী, জি.এম আজ্জব আলী, জি.এম জহুরুল ইসলাম, জি.এম আব্দুল হালিম, জি.এম আকতার হোসেন উপস্থিত ছিলেন।
এ সময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাওলানা মোঃ আবু বকর সিদ্দীক বলেন, ধণীদের কাছ থেকে যাকাত আদায় করে গরীবদের মাঝে বিতরণ করাই হলো ইসলামের মূল নীতি। যা সমাজ থেকে দরিদ্র ও বেকারত্ব দূর করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য যে, আজ আমরা সেই যাকাত ভিত্তিক অর্থ ব্যবস্থা থেকে দুরে সরে এসেছি। তাই আমাদের সমাজ থেকে দারিদ্র দূর করা সম্ভব হচ্ছে না। আলহামদুলিল্লাহ, খুবই খুশির সংবাদ যে, থুকড়া বায়তুস সালাম যাকাত কমিটি সমাজ থেকে দারিদ্রতা দুর করতে দীর্ঘ তিন বছর যাবত যাকাত ভিত্তিক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে যা খুবই প্রশংসনীয়। তিনি সমাজের বিত্তবানদের আহবান জানিযে বলেন, এ মহতী কাজে অবশ্যই বিত্তবানদের এগিয়ে আসা উচিত। আমি আশা করি, এ যাকাত কমিটি সমাজের বেকার ও দরিদ্র দুর করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে ইনশাআল্লাহ।
যাকাত কমিটির সভাপতি গাজী মোনায়েম হোসেন সংক্ষিপ্ত বক্তৃতায় কমিটির কার্যক্রম তুলে ধরে বলেন, বিগত বছরের তুলনায় ক্রমান্নয়ে আমাদের কর্মসূচী বাড়ছে । পর্যায়ক্রমে গ্রামের সকল দরিদ্রদের আমাদের এ কর্মসূচীর আওতায় আনা হবে। সারা বছর অসহায় ও দুস্থদের মাঝে তাৎক্ষনিক সহযোগীতা করার জন্য একটি রিজার্ভ ফান্ড গঠন করা হয়েছে। তিনি এই ফান্ডে বিত্তবানদের যাকাত এবং যে কোন ধরণের সহযোগী করার জন্য বিনিত অনুরোধ করেন।
উল্লেখ্য, থুকড়া বাজার সংলগ্ন বায়তুস সালাম জামে মসজিদ কেন্দ্রীক ‘মসজিদ ভিত্তিক যাকাত কমিটি’ গঠন করে এক অনন্য নজির স্থাপন করেছে। এ বাজারের ব্যবসায়ী ছাড়াও গ্রামের অনেক স্বচ্ছল ব্যক্তি ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছেন রাজধানী ঢাকাসহ অনেক স্থানে। যাদের যাকাত দেয়ার সামর্থ আছে এবং যাদের যাকাতের অর্থ প্রাপ্য সবারই তালিকা করে ২০১৭ সালে তৎকালীন মসজিদের খতিব ও বর্তমান যাকাত কমিটির প্রধান উপদেষ্টা ডাঃ হাফেজ মাওলানা মোঃ সাইফুল্লাহ মানসুরের উদ্দোগে ও মসজিদ কমিটির সভাপতি বিশিষ্ট সমাজ সেবক আলহাজ মোঃ আফজাল হোসেন সার্বিক সহযোগিতায় একটি কমিটি করে রমযান মাস থেকে তাদের এ যাকাতের কার্যক্রম শুরু করে। এ কমিটি প্রথম বছরে দুইজন অসচ্ছল ব্যক্তিকে যাকাতের টাকা দিয়ে ভ্যান গাড়ি কিনে দেয়। তারা এ ভ্যান চালিয়ে বর্তমানে সুখে শান্তিতে সংসার পরিচালনা করছে। দ্বিতীয় বছরে তারা ৭ জনকে গরু ছাগল ও আর্থিক সহযোগীতা করে থাকে। খুলনা জেলার ডুমুরিয়া উপজেলার উত্তর-পশ্চিমের একটি গ্রামের নাম থুকড়া। এক সময় খুলনা থেকে সাতক্ষীরা যাতায়াতের জন্য অন্যতম রুট ছিল দৌলতপুর-শাহপুর-খর্ণিয়া সড়ক। এ সড়কের শাহপুরের কাছেই অবস্থি এ থুকড়া গ্রামটি। যারা আজ যাকাতের মাধ্যমে দারিদ্রমুক্ত গ্রাম গড়ার স্বপ্ন দেখছে। #

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38345826
Users Today : 1329
Users Yesterday : 2774
Views Today : 7749
Who's Online : 81
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/