রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০২:৫৪ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
নড়াইলের নবাগত পুলিশ সুপারের সাথে জেলা মাদ্রাসা শিক্ষক সমিতির মতবিনিময়। কুলিয়ারচরে দড়িগাঁও সরঃ প্রাঃ বিদ্যালয়ের নবগঠিত পরিচালনা পর্ষদের অভিষেক সভা অনুষ্ঠিত দেশের ২০ জেলায় ২৯ পৌরসভায় ভোট আজ দীর্ঘ এক বছর বন্ধ থাকার পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলছে ৩০ মার্চ কোম্পানিগঞ্জে মুজাক্কিরের কবর জিয়ারত করেছেন বিএমএসএফ নেতৃবৃন্দ চরমোনাই মাহফিল থেকে ফেরার পথে মুসল্লিবাহী ট্রলারডুবি স্ত্রীসহ জাতীয় পঙ্গু হাসপাতালের চিকিৎসকের বিরুদ্ধে মামলা ধানমন্ডিতে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর মৃত্যু নিয়ে ধুম্রজাল নিয়ন্ত্রণে এসেছে কারওয়ান বাজারের হাসিনা মার্কেটের আগুন রাত পোহালেই ২৯ পৌরসভায় ভোট রৌমারীতে প্রয়াস নাট্য সংঘের ৬ষ্ঠ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত পেঁপে চাষে চাষে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে কৃষকের সোনালি স্বপ্ন উলিপুরে ট্রাকের ধাক্কায় শিশু নিহত অবিলম্বে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল করে সমালোচনা সইবার সৎসাহসের পরিচয় দিন: টিআইবি মার্চ ফর ডেমোক্রেসির ৬২তম দিনে রংপুরে হানিফ বাংলাদেশী আগামীকাল যাবেন কুড়িগ্রামে

তানোরের সরনজাই কলেজে এমপিওর টাকা অপচয় !

আলিফ হোসেন, তানোর (রাজশাহী) প্রতিনিধি
রাজশাহীর তানোরে রাজনৈতিক বিবেচনায় প্রতিষ্ঠিত সরনজাই ডিগ্রী কলেজে শিক্ষক-কর্মচারিদের পিছনে (এমপিও) সরকারের বিপুল টাকা অপচয় হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। চলতি বছরের ২৩ অক্টোবর বুধবার এলাকার শিক্ষানুরাগী সচেতন মহল ডাকযোগে শিক্ষা মন্ত্রণালয়, মহাপরিচালক (মাউসি), চেয়ারম্যান দূর্নীতি দমন কমিশন (দুদুক) এবং চেয়ারম্যান রাজশাহী শিক্ষাবোর্ড বরাবর লিখিত অভিযোগ প্রেরণ করে অবগতির জন্য অনুলিপি স্থানীয় সাংসদ, রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার ও রাজশাহী জেলা প্রশাসক (শিক্ষা) বরাবর প্রেরণ করা হয়েছে। অভিযোগে শিক্ষাপোকরণ, অবকাঠামো, শিক্ষার্থী সংকট, অতিরিক্ত জনবল নিয়োগ ও অনিয়ম-দূর্নীতির কথা উল্লেখ করে সরেজমিন অনুসন্ধানের মাধ্যমে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিতে সংশ্লিষ্ট বিভাগের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়েছে।
সূত্র জানায়, বিগত ২০১০ সালের পরিসংখ্যান অনুযায়ী সারাদেশে বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য সরকারের দেয়া আর্থিক সহায়তা মান্থলি পে-অর্ডার (এমপিও)’র প্রায় ২০ ভাগ নানা ভাবে লুটপাট হচ্ছে। অংকের হিসেবে লোপাট হওয়া এসব অর্থের পরিমাণ প্রায় ১৬০০ কোটি টাকা। এসব তথ্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সংশ্লি¬ষ্ট সুত্রের। এসব কারণে ২০১০ সালে সংশ্লিষ্ট শিক্ষা মন্ত্রণালয় রাজনৈতিক বিবেচনায় ও অনিয়ম তান্ত্রিকভাবে গড়ে ওঠা অপ্রয়োজনীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের উদ্যোগ নিয়েছেন বলে একাধিক সুত্র নিশ্চিত করেছে। স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সরকারের এসব সিদ্ধান্ত যথাযথভাবে বাস্তবায়িত হলে তানোরের অধিকাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এই শাস্তির আওতায় পড়বে। যাদের মধ্যে অন্যতম সরনজাই ডিগ্রী কলেজ। স্থানীয় শিক্ষানুরাগী ও সচেতন মহলের অভিমত রাজনৈতিক বিবেচনায় কালীগঞ্জহাট কলেজটি প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। সরেজমিন তদন্ত করলেই এসব অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যাবে বলে নির্ভরযোগ্য সূত্র নিশ্চিত করেছে। নাম অনিচ্ছুক এক শিক্ষক জানান, কলেজে রাষ্ট্র বিজ্ঞান বিভাগ, ডিগ্রীর গণিত বিভাগ. দর্শন বিভাগ, অর্থনীতি বিভাগ ও পরিসংখ্যান বিভাগে তেমন কোনো শিক্ষার্থী নাই। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক শিক্ষার্থী বলেন, বিজ্ঞানাগার ও বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতি না থাকায় হাতে কলমে শেখার কোনো সুযোগ নাই, কম্পিউটার শিক্ষক ও লাইব্রেরিয়ান থাকলেও এসব না থাকায় তারা এসব বিষয়ে কোনো শিক্ষা গ্রহণ করতে পারছেন না। এসব কারণে শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রতিনিয়ত কমতে কমতে অনেক বিষয়ে এই সংখ্যা শূণ্যর কৌটায় ঠেকেছে।
স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বিগত ১৯৯৫ সালে বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের সময়ে রাজনৈতিক বিবেচনায় সরনজাই কলেজ প্রতিষ্ঠা এবং ২০০১ সালে এমপিওভুক্ত করণ এবং ২০০১-০২ শিক্ষাবর্ষে কলেজটি ডিগ্রী কলেজে উন্নীত করা হয়। কিšত্ত ডিগ্রী কলেজে উন্নীত করণের পর পরই কলেজে শিক্ষার্থীর সংখ্যা কমতে শুরু করে। কলেজ কর্তৃপক্ষের দাবী কলেজে শিক্ষক-কর্মচারী রয়েছে ৫৩ জন এবং শিক্ষার্থী রয়েছে প্রায় ৪৫০ জন এইচএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছিল ৮২ জন কৃতকার্য হয়েছিল ৪৭ জন তবে এ প্লাস নাই। এদিকে কলেজে শিক্ষক প্রতি বিষয় ভিত্তিক শিক্ষার্থীর সংখ্যা জানতে চাইলে কলেজ কর্তৃপক্ষ তা জানাতে অপারগতা প্রকাশ করেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক অভিভাবক বলেন, সরনজাই ডিগ্রী কলেজে খাতা-কলমে প্রয়োজনীয় শিক্ষার্থী দেখানো হলেও বাস্তবে এর অর্ধেকও নাই। তারা বলেন, কলেজের সিংহভাগ শিক্ষক-কর্মচারী জামায়াত-বিএনপি মতাদর্শী হওয়ায় বঙ্গবন্ধু কর্নার একটি তালাবদ্ধ ঘরে যেনো তেনো ভাবে রাখা হয়েছে, অথচ প্রতি সপ্তাহে একদিন বঙ্গবন্ধু কর্নারে শিক্ষার্থীদের বঙ্গবন্ধুর জীবনী ও স্বাধীনতা-মুক্তিযুদ্ধ ইত্যাদি এসবের ওপর পাঠদান করানোর কথা বলা আছে। এছাড়াও কলেজ চত্ত্বরে নামমাত্র একটি শহীদ মিনার থাকলেও অযতœ-অবহেলায় সেটি ঝোপ-ঝাড়ে ভরে গেছে, বাঙ্গালী জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিকৃতি নিয়মানুসারে স্থাপন করা হয়নি,স্বাধীনতা-মুক্তিযুদ্ধের বিষয়গুলো উপেক্ষিত রয়েছে। তারা বলেন, এটি নামে ডিগ্রী কলেজ হলেও মানসম্মত একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সমান সুযোগ-সুবিধা নাই। আবার বিজ্ঞানাগার, কম্পিউটার ল্যাব, লাইব্রেরী নাই তবে এসবের জন্য জনবল নিয়োগ করা হয়েছে তারা সরকারী সুযোগ-সুবিধাও ভোগ করছেন। তাদের অভিমত এমপিওভুক্তি শর্ত লঙ্ঘন করে বছরের পর বছর এই কলেজের শিক্ষকরা কোনো ভাবেই এমপিও শুবিধা ভোগ করতে পারেন না এটিও একটি অপরাধ এসব বিষয়ে দুদুকের অনুসন্ধান অতীবও জরুরী বলে তারা মনে করেন। এব্যাপারে কলেজ অধ্যক্ষ ইমারত আলী সব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, শিক্ষকদের এমপিওভুক্তকরণের সময় প্রতিটি বিষয়ে ২৫ জন শিক্ষার্থী থাকা বাধ্যতামূলক। কিšত্ত পরবর্তীতে যদি শিক্ষার্থী ভর্তি না হওয়ায় শূণ্যতার সৃষ্টি বা কমে যায় সেক্ষেত্রে শিক্ষকদের করনীয় কিছু নাই। রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক জৈষ্ঠ কর্মকর্তা বলেন, একজন শিক্ষকের এমপিও অনুমোদনের জন্য কমপক্ষে ২৫ জন শিক্ষার্থী থাকতে হবে বলে বিধান রয়েছে। কিšত্ত সরনজাই কলেজে কোনো বিষয়ে পাঁচজন বা তিনজন আবার কোনো বিষয়ে শিক্ষার্থী না থাকার পরেও শিক্ষকরা কী ? ভাবে বেতন-ভাতা উত্তোলন করছেন এটা খতিয়ে দেখা প্রয়োজন। তিনি বলেন, বিষয়টি অনুসন্ধান করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। এব্যাপারে একাধিকবার যোগাযোগের চেস্টা করা হলেও কলেজের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান লুৎফর হায়দার রশিদ ময়না চিকিৎসার জন্য বিদেশ থাকায় তার কোনো বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।
তানোর প্রতিনিধি

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38335983
Users Today : 1786
Users Yesterday : 4300
Views Today : 7093
Who's Online : 30
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/