বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৬:৪৭ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
ইয়াঙ্গুনে বিক্ষোভকারীদের ওপর সেনা সমর্থকদের হামলা উন্নয়ন ও তরুণদের কর্মসংস্থান বাড়াতে কাজ করছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী বার্মিংহামে সড়ক দুর্ঘটনায় বাংলাদেশি দম্পতির মৃত্যু উন্নয়নে এগিয়ে যাচ্ছে তানোর-গোদাগাড়ী উপজেলা তানোরে কবিরাজ জার্জিসের কুকর্মে তোলপাড় ?  পিলখানায় বিডিআর ঘাতকদের ফাঁসি চাই : মোমিন মেহেদী গণতান্ত্রিক বাম ঐক্যের নতুন সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ আসছে নতুন কর্মসূচি বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের টিউমার অপসারন হয়নি *প্রতিনিয়ত ঘটছে দূর্ঘটনা বিএম কলেজের শিক্ষার্থীদের তিন ঘন্টা সড়ক অবরোধ *অধ্যক্ষের আশ্বাসে প্রত্যাহার মাদক উদ্ধারে শ্রেষ্ঠ ডিবি অফিসারকে ক্রেষ্ট প্রদান মুজাক্কির হত্যার প্রতিবাদে সোনাগাজীতে সাংবাদিকদের মানববন্ধন ও বিক্ষোভ। নওগাঁর মহাদেবপুরে অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনারের আশ্রয়ণ প্রকল্প পরিদর্শন নওগাঁর মহাদেবপুরে আমের মুকুলের মৌ মৌ গন্ধে সুবাসিত প্রকৃতি বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পযন্ত গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে নওগাঁর মহাদেবপুরে সিআইজি, নন সিআইজি কৃষক সমিতির মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

তানোরে নীতিমালা লঙ্ঘন করে পুকুর ইজারা

তানোর (রাজশাহী) প্রতিনিধি
রাজশাহীর তানোরে নীতিমালা লঙ্ঘন ও উপজেলা জলমহাল কমিটির সঙ্গে কোনো আলোচনা ছাড়াই সরকারী খাস পুকুর ইজারা বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ ও ইজারা দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। জলমহাল নীতিমালায় বলা হয়েছে সাধারণ মানুষের গৃহস্থালী কাজে ব্যবহৃত, মসজিদ-মন্দির-শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, আদিবাসী, এতিমখানা প্রভৃতি প্রতিষ্ঠানের দখলে থাকা পুকুর ইজারা দেয়া যাবে না। কিšত্ত তানোরে সরকারী খাস পুকুর ইজারায় এসব নিয়মনীতি অনুসরণ করা হয়নি বলে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে।
এদিকে এসব পুকুরের দখল নিয়ে বিভিন্ন এলাকায় সাধারণ মানুষের মধ্যে চরম উদ্বেগ-উৎকন্ঠা ও আতঙ্ক বিরাজ করছে বলে গুঞ্জন বইছে। স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার বিস্তীর্ণ এলাকা জুড়ে প্রায় ৯৫০টি সরকারী খাস পুকুর-জলাশয় আছে যার সিংহভাগ রাজনৈতিক পরিচয়ের হোমড়া-চোমড়াদের অবৈধ দখলে রয়েছে। আর এসব খাস পুকুর-জলাশয় ইজারা কার্যক্রম ঘিরে সাধারণ মানুষের মধ্যে এসব উদ্বেগ-উৎকন্ঠা ও আতঙ্কের সূত্রপাত হয়েছে বলে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। তানোরের বাধাইড় ইউপি চেয়ারম্যান আতাউর রহমান বলেন, খাস পুকুর-জলাশয়ের দখল নিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে রক্তক্ষয়ি সংঘর্ষ হবার আশঙ্কা দেখা দেয়ায় এলাকাবাসী ইজারা কার্যক্রমের ওপর স্থগিতাদেশ চেয়ে উচ্চ আদালতে রিটপিটিশন করেছেন। স্থানীয় সচেতন মহলের ভাষ্য, উপজেলা প্রশাসন এসব খাস পুকুর-জলাশয় অবৈধ দখল মুক্ত করে নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে জলমহাল কমিটির সদস্যদের সঙ্গে আলোচনা করে ইজারা কার্যক্রম পরিচালনা করলে কোনো সমস্যা হবার কথা ছিল না। কিšত্ত অবৈধ দখল মুক্ত না করে ও জলমহাল কমিটির সদস্যদের সঙ্গে তেমন কোনো আলোচনা ব্যতিত উপজেলা প্রশাসন এসব সরকারী খাস পুকুর-জলাশয় ইজারার উদ্যোগ নেয়ায় জনমনে উদ্বেগ-উৎকন্ঠা ও আতঙ্কের সূত্রপাত হয়েছে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটলে তার দায় নিবে কে ? কারণ সিংহভাগ পুকুর-জলাশয় রয়েছে রাজনৈতিক পরিচয়ের প্রভাবশালী মহলের অবৈধ দখলে তায় অবৈধ দখল মুক্ত না করেই ইজারা দেয়া হলে এসব পুকুর-জলাশয়ের দখল নিয়ে অবৈধ দখলদারদের সঙ্গে ইজারা গ্রহীতাদের সংঘর্ষের আশঙ্কা রয়েছে। এসব বিবেচনায় ইজারা কার্যক্রমের ওপর স্থগিতাদেশ চেয়ে এলাকাবাসী চলতি বছরের পহেলা ডিসেম্বর রোববার উচ্চ আদালতে রিটপিটিশন করেছেন। এদিকে পুকুর ইজারা কার্যক্রমের ওপর স্থগিতাদেশ চেয়ে রিটপিটিশনের খবর ছড়িয়ে পড়লে জনমনে পরম স্বত্ত্বি বিরাজ করছে।
অন্যদিকে মৎস্যজীবী সমবায় সমিতির অনেক নেতা ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেন, আইনি জটিলতা নিরসণ না করেই কেনো ইজারা বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। তারা বলেন, পুকুর ইজারার জন্য নতুন সমিতি করে তারা আবেদন করেছেন এতে বড় অঙ্কের টাকা তাদের পকেট থেকে বেরিয়ে গেছে, এখন কোনো কারণে পুকুর ইজারা নিয়ে দখল না পেলে তাদের এই আর্থিক ক্ষতির দায় নিবে কে ? তারা বলেন, আইনি জটিলতায় তারা পুকুর ইজারা নিয়ে যদি দখল না পায় তাহলে তাদের কি বিবেচনায় এমন প্রলোভন দেখিয়ে পকেট কাটা হলো। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক উপজেলা প্রশাসনের এক কর্মকর্তা বলেন, ইউএনও সাহেব একক ক্ষমতা বলে পুকুর ইজারা উদ্যোগ নিয়ে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করায় এমন জটিলতার সৃষ্টি হয়েছে। তিনি বলেন, নীতিমালা অনুযায়ী বেদখল পুকুর দখলমুক্ত করে উপজেলা প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে জলমহাল কমিটির সদস্যদের সঙ্গে আলোচনা করে ইজারা কার্যক্রম গ্রহণ করা হলে এমন হতো না। তানোরের কলমা ইউপির আজিজপুর দীঘিপাড়া গ্রামের একটি খাস পুকুর প্রায় ১০ বছর যাবদ আজিজপুর দীঘিপাড়া জামে মসজিদ ভোগতখল করছে। আবার এই পুকুর ইজারা না দেবার জন্য গ্রামবাসী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত আবেদন করেছেন। কিšত্ত এই পুকুরটিও ইজারা দেয়া হয়েছে, এখন পুকুরের দখল নিয়ে ইজারা গ্রহীতা ও গ্রামবাসী মূখোমূখি অবস্থানে রয়েছে। স্থানীয়রা জানান, পুকুরের দখল ইজারা গ্রহণকারীকে দেয়া হলে গ্রামবাসী বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠবে আবার ইজারা গ্রহণকারী পুকুরের দখল না পেলে বড় অঙ্কের আর্থিক ক্ষতির মূখে পড়বে তাহলে এর দায় নিবে কে ? উপজেলার অধিকাংশ পুকুরের ক্ষেত্রে এমন অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে বলে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। এব্যাপারে একাধিকবার যোগাযোগের চেস্টা করা হলেও মুঠোফোনে কল গ্রহণ না করায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোসাঃ নাসরিন বানুর কোনো বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। এব্যাপারে তানোর উপজেলা চেয়ারম্যান লুৎফর হায়দার রশিদ ময়না বলেন, এসব সরকারী খাস পুকুর-জলাশয় ইজারার বিষয়ে তার সঙ্গে আনুষ্ঠানিক ভাবে কোনো আলোচনা করা হয়নি তাই এ বিষয়ে তার কিছু বলার নাই। #

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38322595
Users Today : 3145
Users Yesterday : 3479
Views Today : 9134
Who's Online : 34
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/