শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ০৫:০৫ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
উগ্র মৌলবাদীচক্রের বিভিন্ন মিডিয়ায় উষ্কানীমূলক, মানহানিকর ও ধর্মীয় বিদ্বেষমুলক বক্তব্য জাতীয় হিন্দু মহিলা মহাজোটের অবস্থান ধর্মঘট মিতু হত্যা: আসামিদের পালানো ঠেকাতে জারি হচ্ছে সতর্কতা বরিশালে বিএনপির পক্ষ থেকে ঈদ সামগ্রী বিতরণ তানোর উপজেলা চেয়ারম্যানের ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় বাংলাদেশ হিন্দু পরিষদের শ্যামনগর উপজেলা শাখার কমিটি গঠন  বঙ্গবন্ধুর পূর্ব বংশধর আল্লাহর  ওলি ছিলেন- ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান দুলাল এমপি প্রেসবিজ্ঞপ্তি -ফিলিস্তিনের হত্যাকান্ডের জন্য জংগী সন্ত্রাসী গোষ্ঠী  হামাস দায়ী- অবিলম্বে ইজরাইল”কে স্বীকৃতি দিন —কমরেড সামাদ  ফিলিস্তিনে ইসরায়েলের হামলার প্রতিবাদে বায়তুল মোকাররমে বিক্ষোভ পিতা-মাতার ভরণ-পোষণ আইন ২০১৩ ও শাস্তি? ১২ বছর ভোগদখলে প্রতিকার না চাইলে তামাদি আইনে জমির মালিক তানোরে শিব নদী পাড়ে বিনোদন প্রেমীদের ভিড় ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন চেয়ারম্যান ইয়াকুব আলী কুড়িগ্রামে ঐক্য যুব ফোরাম ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের উদ্যোগে খাদ্য সামগ্রী ও ঈদের পোষাক বিতরণ বিশ্ব ঐতিহ্য ষাটগম্বুজ মসজিদে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত ঈদের দিনেও ইসরাইলি বর্বরতা থেকে রেহাই পায়নি ফিলিস্তিনিরা

“নওগার সাপাহারে ১০ হাজার আমগাছ হত্যা কারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি।

 

নওগাঁরসাপাহারউপজেলায়রাতেরঅন্ধকারেপ্রায় ৬৩ বিঘাজমির ১০ হাজারআমগাছহত্যাকরেছে দুর্বৃত্তরা, এ ঘটনায় অর্থনৈতিকক্ষতিসহপরিবেশগত যে ক্ষতিহয়েছেতাঅপূরণীয়। এমতাবস্থায় দোষীদের খুজে বেরকরে দৃষ্টান্তমূলকশাস্তির দাবিতে যৌথভাবেপ্রতিবাদ সমাবেশকরেেেছ পরিবেশ আন্দোলনমঞ্চ, সুবন্ধনসামাজিককল্যানসংগঠনএবংইনভায়রনমেন্ট ফর চিলড্রেন্স। আজ ১৫ নভেম্বর ২০১৯ সকাল ১১:০০ টায়রাজধানীরআজিমপুরেরভিকারুননিসানূন স্কুলেরসামনেঅনুষ্ঠিতপ্রতিবাদ সমাবেশ থেকে বক্তারা উপরোক্ত দাবিজানান।

সুবন্ধনসামাজিককল্যানসংগঠনেরসভাপতিহাবিবুররহমানহাবিবএরসভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেনপরিবেশ আন্দোলনমঞ্চেরসভাপতিআমিরহাসানমাসুদ, সহ-সভাপতি তৌহিদুলইসলামমাতিন, ইনভায়রনমেন্ট ফর চিলড্রেন্সএরসভাপতিখশরুআহম্মেদ, বাংলাদেশ সাইকেল লেনবাস্তবায়নপরিষদেরসভাপতিআমিনুলইসলামটুব্বুস,সুবন্ধনসংগঠনেরসহ-সভাপতি মোঃফারুক হোসেন, সাধারনসম্পাদক মোঃমকবুল হোসেন,সহ-সাধারনসম্পাদকমহসীন হোসেন, ঢাকার শেকড়েরএডমিন মোতালেবমাশরাকি,পরিবেশ আন্দোলনমঞ্চেরসদস্য মোঃনাসির হোসেন, মোঃ উজ্জলপ্রমূখ।

বক্তারা বলেন,প্রায়ই দেখাযায় নানা অজুহাতে শত্রুতার কারনে বৃক্ষ হত্যার মত ঘটনা ঘটছে যা খুবই দুঃখজনক। সৃষ্টির শুরু থেকেই গাছ মানুষের প্রাণ সঞ্চালনে কাজ করে যাচ্ছে। গাছ মানুষের পরম বন্ধু এই কথাটি বর্তমানে বেমানান হয়ে পড়ছে। শিল্পায়নের এই যুগে গাছ থেকে মানুষের ভালোবাসা ও যতœশীলতা কমে যাচ্ছে। ক্রমাবনতিশীল পরিবেশ ভারসাম্য, পরিবেশ দূষণ ও জলবায়ু পরিবর্তন প্রতিহত করে পরিবেশ সুস্থ ও নির্মল রাখতে বৃক্ষের কোন বিকল্প নেই। বৈশ্বিকউষ্ণতার নেতিবাচকপ্রভাবেএখনসারা পৃথিবীতে ঝড়, জলোচ্ছাস, অনাবৃষ্টি, অতিবৃষ্টি, মেরুঅঞ্চলেরহিমবাহগলেযাওয়া, সমুদ্রপৃষ্ঠেরউচ্চতা বৃদ্ধি ইত্যাদি প্রাকৃতিকবিপর্যয় ঘটছে।কার্বননিঃসরণকমিয়ে বৈশ্বিকউষ্ণতাহ্রাসকরারলক্ষেবিশ্বব্যাপিচলছেঅধিকহারেবৃক্ষরোপন ও বনায়নকর্মসূচীরমতনানাধরনেরকর্মসূচী।পরিবেশসংরক্ষনে গাছেরভূমিকাঅত্যন্তবলিষ্ঠ ও সুস্পষ্ট। বায়ুমন্ডলেরকার্বন-ডাইঅক্সাইড ও অক্সিজেনেরভারসাম্যরক্ষায়যে পরিমান বৃক্ষরাজি থাকা দরকারসে পরিমাননা থাকায়বায়ুমন্ডলেকার্বন-ডাইঅক্সাইডেরপরিমানধীরেধীরে বৃদ্ধি পাচ্ছে।।ইন্ডিয়ান ফরেস্ট ইন্সটিটিউটের গবেষকদের মতে,একটি বৃক্ষের আর্থিক সুবিধার মোট মূল্য দাঁড়ায় ৩৫ লাখ ৪০ হাজার টাকা। অথচ নানা অজুহাতে বৃক্ষ নিধন এবং বনাঞ্চলগুলো ধ্বংস করে পরিবেশ ভারসাম্য নষ্ট করা হচ্ছে।এমতাবস্থায়১০ হাজার আমগাছ হত্যার সাথে জড়িতদের খুজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আওতায় আনার দাবি জানান বক্তারা।

Please Share This Post in Your Social Media


বঙ্গবন্ধু কাতরকণ্ঠে বলেন, মারাত্মক বিপর্যয়

বঙ্গবন্ধু কাতরকণ্ঠে বলেন, মারাত্মক বিপর্যয়

https://twitter.com/WDeshersangbad

© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design And Developed By Freelancer Zone