দেশের সংবাদ l Deshersangbad.com » নগর ভবন ছেড়ে কমিউনিটি সেন্টারে বিসিসি’র মেয়রের পাল্টা সংবাদ সম্মেলন \ অবরুদ্ধ



নগর ভবন ছেড়ে কমিউনিটি সেন্টারে বিসিসি’র মেয়রের পাল্টা সংবাদ সম্মেলন \ অবরুদ্ধ

৯:৩০ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৩, ২০১৮ |জহির হাওলাদার

76 Views

মনির হোসেন,বরিশাল \ টানা ২৩দিন ধরে চলছে বরিশাল সিটি কপোরেশনের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের কর্মবিরতী। মঙ্গলবার সকালে আন্দোলনকারীরা নগর ভবনের প্রধান ফটকে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছেন। তারা পাঁচ মাসের বেতন ভাতার দাবীতে সংবাদ সম্মেলন করার ২৪ ঘন্টা পরই মঙ্গলবার পাল্টা সংবাদ সম্মেলন করেছেন সিটি মেয়র আহসান হাবিব কামাল। তাও আবার নগর ভবনের বাহিরে একটি কমিউনিটি সেন্টারে। সেখানেও মেয়রকে অবরুদ্ধ করে রেখেছিলো আন্দোলনকারীরা।
সূত্রমতে, টানা ২৩দিন ধরে নগর ভবনের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের আন্দোলনের কারণে চরম ভোগান্তিতে পরেছেন নগরবাসী। সোমবার দুপুরে নগর ভবনে সংবাদ সম্মেলন করে কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা বলেন, গত ১১ মার্চ সমঝোতা বৈঠকে আগামী ১৫ এপ্রিলের মধ্যে তিন কিস্তিতে পাঁচ মাসের বকেয়া বেতন ও ১০ মাসের প্রভিডেন্ট ফান্ডের টাকা পরিশোধের সিদ্ধান্ত হলেও তাতে শেষপর্যন্ত স্বাক্ষর করেননি মেয়র। এ অবস্থায় মঙ্গলবার প্রথমকার্যদিবসের মধ্যে ওই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা না হলে আগামীকাল বুধবার থেকে চলমান আন্দোলনের সাথে নতুন করে পূর্নদিবস কর্মবিরতী এবং করপোরেশনের সকল অফিস কক্ষে তালা ঝুলিয়ে দেয়ার হুমকি প্রদর্শন করা হয়। হুমকি অনুযায়ী মঙ্গলবার সকাল সাড়ে দশটার পরেই তালা ঝুলিয়ে দেয়া হয়েছে।
এদিকে কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের ওই সংবাদ সম্মেলনের জবাব দিতে মঙ্গলবার বরিশাল ক্লাব মিলনায়তনে পাল্টা সংবাদ সম্মেলন করে সিটি মেয়র আহসান হাবিব কামাল বলেন, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা মাত্র দুই মাসের বেতন পাবেন। আর এর জন্য আন্দোলন করছেন। তাদের কর্মে ফিরিয়ে আনতে ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি সবঝোতা বৈঠক করা হয়েছে। কিন্তু তারা কর্মে ফিরছেন না। সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে মেয়র দ্রæততার সাথে কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের কর্মে ফেরার অনুরোধ করেন।
বরিশাল ক্লাব মিলনায়তনে মেয়রের সংবাদ সম্মেলন চলাকালীন সময় নগর ভবনের আন্দোলনকারী কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা সেখানে অবস্থান নিয়ে মেয়রের বিরুদ্ধে বিভিন্ন শ্লোগান দিতে থাকেন। একপর্যায়ে মেয়রকে তারা অবরুদ্ধ করে রাখেন। পরবর্তীতে প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সহযোগীতা নিয়ে মেয়র আহসান হাবিব কামাল ঘটনাস্থান ত্যাগ করেন।
অপরদিকে টানা ২৩ দিন কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সকল দাপ্তরিক কর্মকান্ড বন্ধ থাকায় পুরোপুরি অচল হয়ে পরেছে নগর ভবন। নগরবাসী সেবা না পেয়ে ক্ষুব্ধ হয়ে ফিরে যাচ্ছেন। এ ব্যাপরে জেলা প্রশাসক মোঃ হাবিবুর রহমান বলেন, নগরবাসীর সমস্যা লাঘবের জন্য তিনি উদ্যোগ নিয়েছেন। দুইপক্ষের সাথে আলোচনা করে একটি সুষ্ঠু সমাধানের দারপ্রান্তে উপনীত হয়েছেন। মেয়রকে বকেয়া বেতন দিতে হলে অফিস খুলতে হবে। অফিস না খুললে মেয়র বেতন দেবেন কিভাবে। তাই মেয়রের প্রতিশ্রæতি মেনে কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা কাজে যোগ দিলেই অচলাবস্থা কেটে যাবে।
উল্লেখ, সিটি করপোরেশনে স্থায়ী ও অস্থায়ী মিলিয়ে প্রায় দুই হাজার কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের প্রতিমাসে বেতনের জন্য প্রয়োজন প্রায় আড়াই কোটি টাকা। গড়ে প্রতি মাসে রাজস্ব আদায় হয় প্রায় তিন কোটি টাকা। তার পরেও রহস্যজনক কারণে কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের বেতন বকেয়া রয়েছে।

Spread the love

৭:২৯ পূর্বাহ্ণ, ডিসে ১২, ২০১৮

নির্বাচন থেকে পিছু হটবে না বিএনপি...

18 Views
27 Views
96 Views

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




উপদেষ্টা পরিষদ:

১। ২।
৩। জনাব এডভোকেট প্রহলাদ সাহা (রবি)
এডভোকেট
জজ কোর্ট, লক্ষ্মীপুর।

৪। মোহাম্মদ আবদুর রশীদ
ডাইরেক্টর
ষ্ট্যান্ডার্ড ডেভেলপার গ্রুপ

প্রধান সম্পাদক:

সম্পাদক ও প্রকাশক:

জহির উদ্দিন হাওলাদার

নির্বাহী সম্পাদক
উপ-সম্পাদক :
ইঞ্জিনিয়ার নজরুল ইসলাম সবুজ চৌধুরী
বার্তা সম্পাদক :
সহ বার্তা সম্পাদক :
আলমগীর হোসেন

সম্পাদকীয় কার্যালয় :

১১৫/২৩, মতিঝিল, আরামবাগ, ঢাকা - ১০০০ | ই-মেইলঃ dsangbad24@gmail.com | যোগাযোগ- 01813822042 , 01923651422

Copyright © 2017 All rights reserved www.deshersangbad.com

Design & Developed by Md Abdur Rashid, Mobile: 01720541362, Email:arashid882003@gmail.com

Translate »