সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ০৯:০২ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
নওগাঁর মহাদেবপুরে মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের গণকবর প্রাচীর দিয়ে সংরক্ষণের দাবি বীর মুক্তিযোদ্ধাদের শিক্ষা জাতীয় করন নিয়ে মনের কষ্ট ফেসবুকের মাধ্যমে ব্যক্ত করলেন অধ্যক্ষ এস এম তাইজুল ইসলাম কুলিয়ারচরে দিনব্যাপী ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উদযাপন ২৫ ও ২৬ মার্চ হত্যাকাণ্ড চালিয়েছিল জিয়া মমতাকে ছেড়ে আসা মিঠুন এখন মোদির দলে সন্তান কোলে নিয়েই দায়িত্ব সামলাচ্ছেন নারী ট্রাফিক পুলিশ স্ত্রীসহ করোনায় আক্রান্ত সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট আসাদ মিয়ানমারে রাস্তায় হাজারো হাজার লোকের বিক্ষোভ স্কুল শিক্ষককে বিয়ে করলেন বিশ্বের শীর্ষ ধনী নারী প্রতারণার মামলায় ডা. সাবরিনার জামিন আবেদন নামঞ্জুর চট্টগ্রামে প্রবাসী হত্যায় ৯ জনের মৃত্যুদণ্ড সামাজিক মাধ্যমে কুরুচিপূর্ণ লেখা সতর্ক করলেন প্রধান বিচারপতি নিবন্ধনধারীদের এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়োগের নির্দেশ ১৫ দিনের মধ্যে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধনধারীদের নিয়োগ যৌন নির্যাতন ও ধর্ষণের শিকার নারীর ছবি প্রকাশে নিষেধাজ্ঞা

নাটোরের কৃতি সন্তান ক্লোজআপ তারকার লায়লার ‘সখি গো’ গানটি এখন জনপ্রিয়তার শীর্ষে

অমর ডি কস্তা, নাটোর প্রতিনিধি: নাটোরের বড়াইগ্রামের বনপাড়ার কৃতিসন্তান জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী ক্লোজআপ তারকা সুলতানা ইয়াসমিন লায়লার ‘সখি গো আমার মন ভালো না’ গানটি ইন্টানেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। লায়লার কন্ঠে ‘সখি গো আমার মন ভালো না’ শিরোনামের গানটি ইউটিউব চ্যানেলে এ পর্যন্ত ৫ মিলিয়ন বারেরও বেশি দেখা হয়েছে। এছাড়াও বর্তমান সময়ের ব্যস্ত এই শিল্পীর গানটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও অনেক পেইজে লাখ লাখ মানুষ দেখেছেন। সম্প্রতি আরটিভিতে ‘ইগলু ফোক স্টেশন’ অনুষ্ঠানে গাওয়া গান ‘আরটিভি মিউজিক’ নামের ইউটিউব চ্যানেলে গত ২১ অক্টোবর রিলিজ হয়। এরপর থেকেই ভাইরাল হয় গানটি।
কামরুল হাসানের ভাবনায় অনুষ্ঠানটির ডিরেকশন দেন নুর হোসেন হিরা এবং সঙ্গীতায়োজন করেন জে কে মজলিশ। “আঁখ খেতে ছাগল বন্দি, জলে বন্দি মাছ। নারীর কাছে পুরুষ বন্দি, ঘুরায় বার মাস সখী গো আমার মন ভালা না। কালার সাথে পিরিত কইরা, সুখ পাইলাম না।

সখি গো আমার মন ভালা না” ময়মনসিংহ গীতিকার এই গানের কথাগুলো রাস্তা ঘাট, দোকানেও এখন সবার মুখে মুখে। নতুন আঙ্গিকে পুরোনো জনপ্রিয় গানে সুর ও ডিজিটাল মিউজিকে দ্রুত তুমুল জনপ্রিয়তা পায়। রবিবার বিকেল পর্যন্ত ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিওটি দেখা হয়েছে ৫ মিলিয়ন বারেরও বেশি। এমন সাফল্যের খবরে স্বাভাবিকভাবেই খুশি এ গানের শিল্পী। এ প্রসঙ্গে প্রতিবেদকের সাথে আলপকালে গানের পাখি খ্যাত সুলতানা ইয়াসমিন লায়লা বলেন- শ্রোতাদের প্রত্যাশার জায়গাটাকে প্রাধান্য দিয়ে কাজ করার চেষ্টা করি। গান যখন শ্রোতাদের প্রিয় হয় তখন সবার শ্রম সার্থক হয় বলে মনে করি। শ্রোতাদের উৎসাহ-অনুপ্রেরণাই আমার আগামীর পথচলার পাথেয়। আর এ গানটি যে এতো সাড়া ফেলবে, একদমই ভাবিনি। ফেসবুক, ইউটিউবে সবার কমেন্ট, প্রশংসা এবং উৎসাহ-অনুপ্রেরণায় আমি মুগ্ধ হয়েছি। সবার প্রতি আমার আন্তরিক ভালোবাসা ও কৃতজ্ঞতা।’ উল্লেখ্য, বাবার কাছে গান শেখার হাতেখড়ি হয় সুলতানা ইয়াসমিন লায়লার। লায়লা মূলত লোক গানের শিল্পী।

ফকির লালন সাঁইজির গান পরিবেশনে পারদর্শী তিনি। বাংলাদেশ বেতারে এবং বাংলাদেশ টেলিভিশনে লালনের গানের শিল্পী হিসেবে তালিকাভুক্ত আছেন। ২০১৬ সালে তার প্রথম একক অডিও অ্যালবাম ‘আমার কুঞ্জে’ প্রকাশিত হয়। ২০১২ সালে ক্লোজআপ-১ চ্যাম্পিয়ন হন নাটোরের বড়াইগ্রামের বনপাড়ার মেয়ে সুলতানা ইয়াসমিন লায়লা।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38372726
Users Today : 4348
Users Yesterday : 2978
Views Today : 13383
Who's Online : 44
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/