দেশের সংবাদ l Deshersangbad.com » নাটোর-৪ (বড়াইগ্রাম-গুরুদাসপুর) আসন ভোটার বেশী উপজেলার প্রার্থীকে এমপি মনোনয়ন দেয়ার দাবি



নাটোর-৪ (বড়াইগ্রাম-গুরুদাসপুর) আসন ভোটার বেশী উপজেলার প্রার্থীকে এমপি মনোনয়ন দেয়ার দাবি

১০:০৩ অপরাহ্ণ, সেপ্টে ২৩, ২০১৮ |জহির হাওলাদার

203 Views

নাটোর প্রতিনিধি:
আসন্ন একাদশ জাতীয় নির্বাচনকে ঘিরে নাটোর-৪ আসনের দুই উপজেলা বড়াইগ্রাম ও গুরুদাসপুরে শুরু হয়েছে বিভিন্ন আলোচনা-সমালোচনার ঝড়। আর এই আলোচনা-সমালোচনার মূলে রয়েছে ‘কে পাবেন নৌকা প্রতীকে মনোননয়ন’ তা নিয়ে। স্বাধীনতার পর এই আসনের নৌকা প্রতীকে ৫ বার মনোনয়ন পান বর্তমান সংসদ সদস্য গুরুদাসপুর উপজেলার সন্তান অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস। এই আসনে ১৯৭৩ সালে প্রথম জাতীয় নির্বাচনে বড়াইগ্রামের রফিকউদ্দিন সরকার নৌকা প্রতীক নিয়ে বিজয়ী হন। ২য় জাতীয় নির্বাচনে গুরুদাসপুরের সন্তান এড. দিল মোহাম্মদ (বিএনপি), ৩য় ও ৪র্থ নির্বাচনে একই উপজেলার আবুল কাশেম সরকার (জাতীয় পাটি), ৬ষ্ঠ নির্বাচনে বড়াইগ্রামের অধ্যক্ষ মো. একরামুল আলম (বিএনপি), ৮ম নির্বাচনে গুরুদাসপুরের মোজাম্মেল হক (বিএনপি), ৫ম, ৭ম, ৯ম ও ১০ম নির্বাচনে অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস (আওয়ামীলীগ) নির্বাচিত হন। গত ১০টি জাতীয় নির্বাচনে শুধুমাত্র প্রথম বার আওয়ামীলীগ থেকে বড়াইগ্রামের প্রার্থী মনোনয়ন পান। বাকী নির্বাচনে বরাবরই গুরুদাসপুরের প্রার্থী আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়ে এসেছে। কিন্তু এবারের একাদশ জাতীয় নির্বাচনে বড়াইগ্রামের ভোটাররা ‘বার বার গুরুদাসপুর, এইবার বড়াইগ্রাম’ শ্লোগানে নিজ উপজেলার প্রার্থীকে মনোনয়ন দেয়ার জোর দাবি তুলেছে। গত ৬/৭ মাস ধরে বড়াইগ্রামের আ’লীগের বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ ও সাধারণ জনগন একাদশ জাতীয় নির্বাচনে বড়াইগ্রামের প্রার্থীকে মনোনয়ন দিতে মানববন্ধন, সংবাদ সম্মেলন করেছে। পাশাপাশি উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় এই দাবিতে বিপুল সংখ্যক পোস্টার, ব্যানার টাঙ্গানো হয়েছে।
বড়াইগ্রাম উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আ’লীগের স্বাস্থ্য-জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী এই দাবির সাথে একাতœতা প্রকাশ করে জানান, গুরুদাসপুরের ভোটার সংখ্যা ১ লক্ষ ৬৯ হাজার ১২ জন পক্ষান্তরে বড়াইগ্রামের ভোটার সংখ্যা ২ লক্ষ ১২ হাজার ৪১। ভোটার সংখ্যা ৪৩ হাজার ২৯ জন বেশী থাকা সত্তে¡ও বারবার বড়াইগ্রামের আওয়ামীলীগের ত্যাগী নেতারা মনোনয়ন লাভে বঞ্চিত হচ্ছে। তবে তিনি আশাবাদী দলের সভাপতি শেখ হাসিনা ও মনোনয়ন বোর্ডের অন্যান্য সদস্যরা বড়াইগ্রামবাসীর এই যৌক্তিক দাবিটি মেনে নিবেন।
মাঝগাঁও ইউপি’র সাবেক চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি মো. খোকন মোল্লা জানান, ভৌগলিক কারণে বড়াইগ্রাম উপজেলা গুরুদাসপুরের চেয়ে অধিক গুরুত্বপূর্ণ। দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের প্রবেশদ্বার খ্যাত বড়াইগ্রামের বনপাড়া নামক স্থানটি দেশখ্যাত। নাটোর জেলার মধ্যে এই উপজেলাতেই রয়েছে দুইটি পৌরসভা। এই উপজেলার রাজনৈতিক নেতৃত্বে বড় কোন কোন্দল বা দ্বিধাবিভক্তি নাই। যার ফলে এই উপজেলা থেকে মাত্র একজনই (ডা. সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী) আ’লীগ থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী। পক্ষান্তরে রাজনৈতিক আন্তঃদ্বন্দের বিরামভূমি গুরুদাসপুরে আ’লীগ থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী ৪ জন। সে দিক বিবেচনায় আ’লীগের নীতি নির্ধারকেরা বড়াইগ্রামের ওই একজন প্রার্থীকেই মনোনয়ন দিলে এই আসনের রাজনৈতিক অস্থিরতা তথা আ’লীগের আন্তঃকোন্দল নিরসন হবে বলে তিনি মনে করেন।
স্থানীয় প্রবীণ আওয়ামীলীগ নেতা ও পৌর ওয়ার্ড সভাপতি সোবাহান প্রামাণিক জানান, বর্তমান সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস এই আসনে জনপ্রিয়তা হারিয়েছে। তার বিরুদ্ধে জামায়েত-বিএনপি’র সাথে সখ্যতা, গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার বিপক্ষে অবস্থান নেওয়া, নিয়োগ বাণিজ্যে অবৈধভাবে টাকা আয়, ক্ষমতার অপব্যবহার, স্থানীয় রাজনৈতিক অঙ্গণে ভাঙ্গন সৃষ্টি সহ বহুবিধ অভিযোগ রয়েছে। যার ফলে এমপি আব্দুল কুদ্দুস অনেকটাই জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।
গুরুদাসপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র শাহনেওয়াজ আলী মোল্লা জানান, গুরুদাসপুরে এমপি আব্দুল কুদ্দুসকে জনগণ বয়কট করেছে। এমপি সাহেবের কু-কীর্তি অসহনীয় হয়ে পড়ায় জন-বিদ্বেষ তৈরী হয়েছে। যার ফলে পুলিশের পাহারা ছাড়া তিনি (এমপি আব্দুল কুদ্দুস) নিজ এলাকা গুরুদাসপুরে প্রবেশ করতে সাহস পান না।
অপরদিকে এই আসনে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক, জেলা বিএনপি’র সভাপতি সাবেক ভূমি প্রতিমন্ত্রী ও এমপি রুহুল কুদ্দুস দুলু প্রার্থী হবেন বলেন ব্যাপক প্রচারণা রয়েছে। এক্ষেত্রে গুঞ্জন রয়েছে গুরুদাসপুর থেকে আওয়ামীলীগ বা জাতীয় পার্টির প্রার্থী দিলে তবেই তিনি এই আসনে ভোট যুদ্ধে অংশ নিবেন।
উল্লেখ্য, নাটোর-৪ আসনে আওয়ামীলীগ থেকে ৫ জন মনোনয়ন প্রত্যাশীর মধ্যে ৪ জনই গুরুদাসপুরের। তারা হলেন, অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস, তার মেয়ে কোহেলী কুদ্দুস মুক্তি, শাহনেওয়াজ আলী মোল্লা ও আহমেদ আলী মোল্লা। বড়াইগ্রাম থেকে একজনই মনোনয়ন প্রত্যাশী। তার নাম ডা. সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




উপদেষ্টা পরিষদ:

১। ২।
৩। জনাব এডভোকেট প্রহলাদ সাহা (রবি)
এডভোকেট
জজ কোর্ট, লক্ষ্মীপুর।

৪। মোহাম্মদ আবদুর রশীদ
ডাইরেক্টর
ষ্ট্যান্ডার্ড ডেভেলপার গ্রুপ

প্রধান সম্পাদক:

সম্পাদক ও প্রকাশক:

জহির উদ্দিন হাওলাদার

নির্বাহী সম্পাদক
উপ-সম্পাদক :
ইঞ্জিনিয়ার নজরুল ইসলাম সবুজ চৌধুরী
বার্তা সম্পাদক :
সহ বার্তা সম্পাদক :
আলমগীর হোসেন

সম্পাদকীয় কার্যালয় :

১১৫/২৩, মতিঝিল, আরামবাগ, ঢাকা - ১০০০ | ই-মেইলঃ dsangbad24@gmail.com | যোগাযোগ- 01813822042 , 01923651422

Copyright © 2017 All rights reserved www.deshersangbad.com

Design & Developed by Md Abdur Rashid, Mobile: 01720541362, Email:arashid882003@gmail.com

Translate »