শনিবার, ০৮ অগাস্ট ২০২০, ০৩:৩৫ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
মানিকগঞ্জে বাসচাপায় দম্পতি নিহত ‘ও বাবা, ও মা’ বলে কাঁদছে দুই মেয়ে মেজর সিনহা হত্যা: দুই সাক্ষী চোখেও দেখেননি, কানেও শোনেননি ভারতের কেরালায় বিমান দুর্ঘটনা, নিহত ১১, আহত অর্ধশতাধিক কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে নৌকা ডুবে মা-ছেলে মৃত চীনের সাথে দ্বিপাক্ষীক সম্পর্ক বাড়াতে হবে: অধ্যাপক ড. ইমতিয়াজ আহমেদ ছাতকে তিন সন্তানের জননীসহ প্রেমিক আটক অতঃপর গভীর রাতে পুলিশ ফাঁড়ি থেকে মুক্ত !! রাজধানীতে বাসের ধাক্কায় পুলিশের এএসআই নিহত বঙ্গমাতার ৯০তম জন্মবার্ষিকী আজ বরখাস্ত ওসি প্রদীপকে বাড়তি খাতির, জনমনে নানা প্রশ্ন মেজর সিনহা হত্যা: টেকনাফ থানার ৭ পুলিশ সদস্য বরখাস্ত লাখ টাকা চুক্তির ফুটবলার এখন ৪০০ টাকার যোগালি করোনায় আক্রান্ত সানাইকে আইসিইউতে নেওয়া হয়েছে রেলওয়েকে জনবান্ধব করার শুরুতেই ‘ওএসডি’ করা হলো মাহবুব মিলনকে নানার বাড়ীতে বেড়াতে এসে ২ বন্ধুর মৃত্যু মাহবুব আলী ৩৬তম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে গাবতলী নশিপুরে জিয়াবাড়ী জামে মসজিদে দোয়া মাহফিল

নড়াইলের মানুষের কাছে মানবিক পুলিশ অফিসার  হিসেবে প্রসংশিত এসপি জসীম উদ্দিন!! 

উজ্জ্বল রায় (নড়াইল জেলা) প্রতিনিধিঃ নড়াইলের মানুষের কাছে মানবিক পুলিশ অফিসার  হিসেবে প্রসংশিত হয়েছেন এসপি জসীম উদ্দিন। মহামারি করোনা সংক্রমণকালে সবচেয়ে বেশি মানুষের আস্থা, বিশ্বাস,ভালোবাসা, অর্জন করতে পেরেছে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনী। নড়াইল জেলায় ও এর ব্যত্যয় ঘটেনি। জেলায় মহামারী করোনা ভাইরাস বিস্তারের শুরু থেকেই মানুষের পাশে সর্বোচ্চ সহযোগিতা দিয়ে মানবিক পুলিশ হিসেবে প্রসংশিত হয়েছে নড়াইল জেলা পুলিশ। উজ্জ্বল রায় নড়াইল জেলা প্রতিনিধি জানান,  করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জনসচেতনতা,স্বাস্থ্যসুরক্ষা থেকে শুরু করে জেলা পুুলিশের পক্ষ থেকে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম, জীবনের ঝুঁকি নিয়ে করোনায় আক্রান্তদের পাশে দাঁড়ানো,জরুরী এ্যাম্বুলেন্স সেবা,করোনায় মৃতদের দাফনে সহয়তা করা সহ নানামুখী জনকল্যাণমূলক কাজ করে চলেছে নড়াইল জেলা পুলিশ। নড়াইলে করোনা সংক্রমণের শুরু থেকেই পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন পিপিএম (বার) এর সরাসরি তত্বাবধানে জেলায় কর্মরত প্রতিটি পুলিশ সদস্য নিরলসভাবে দিন রাত কাজ করে যাচ্ছে।

করোনার এই সংকট মুহুর্তে পরিস্থিতি মোকাবিলায় নড়াইলে কর্মরত পুলিশ সদস্যদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে নড়াইল পুলিশ লাইনসে জীবাণুনাশক টানেল তৈরি থেকে শুরু করে বিভিন্ন ধরনের স্বাস্থ্য সুরক্ষা ব্যবস্থা নিয়েছে জেলা পুলিশ সুপার। বিভিন্ন স্থানে কাজ করতে যেয়ে করোনায় আক্রান্ত পুরুষ ও নারী পুলিশ সদস্যদের জন্য আলাদাভাবে কোয়ারেন্টিনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। করোনার এই ভয়াবহ সংকটময় পরিস্থিতিতেও নিজেদের বেতনের টাকা দিয়ে অসহায় দুস্থ, মধ্যবিত্ত, নিম্ন মধ্যবিত্ত মানুষের মাঝে খাদ্য সহায়তা প্রদান করেছে জেলা পুলিশ।

করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় জেলার প্রতিটি থানায় মাইকিং এবং লিফলেট বিতরণ করে ব্যাপকভাবে জনসচেতনতামূলক প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে মানুষকে ঘরে রাখার চেষ্টা করে যাচ্ছেন। এ ছাড়াও বিদেশ ফেরত বা দেশের অন্য জেলা থেকে আগতদের বাসায় থাকা (কোয়ারেন্টাইন) নিশ্চিত করতে শুরু থেকেই সক্রিয় নড়াইল জেলা পুলিশ। জেলায় করোনা আক্রান্তদের বাড়ি লাল পতাকা টানিয়ে লকডাউন করা,তাদের খাবারের ব্যবস্থা থেকে শুরু করে সার্বিক সহাযোগিতা করা হচ্ছে। জেলার সীমান্তে আন্তঃজেলা পুলিশ চেকপোস্ট স্থাপন করে বাইরের জেলা থেকে প্রবেশ বা বাহির নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে ।

মহামারির মধ্যেও নড়াইল জেলা পুলিশ সুপার মোহম্মদ জসিম উদ্দিন পিপিএম (বার) নিজেই মাইক হাতে রাস্তা, ঘাট, বাজার, দোকান সহ বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে জনসাধারণকে সচেতন করছেন।গত মার্চ মাসে দেশে করেনা ভাইরাস মহামারি সংক্রমণ শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে নড়াইল জেলা পুলিশ কয়েকটি জরুরী কর্মসূচি হাতে নেয়। নড়াইল জেলা পুলিশ সূত্রে জানা যায়,জেলায় দায়িত্বরত সকল পুলিশ সদস্যদের করোনামুক্ত রাখতে সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাওয়া হচ্ছে ।

জেলায় যেসকল ব্যক্তির রিপোর্ট পজিটিভ আসছে তাদের (আক্রান্ত ব্যক্তি) বাড়িতে বা প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশন রাখতে পুলিশ সর্বশক্তি প্রয়োগ করে কাজ করে চলেছে। করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় নড়াইলে খোলা হয়েছে পুলিশ কন্ট্রোল রুম। কোন পরিবার খাদ্য সংকটে থাকলে এই কন্ট্রোল রুমে যোগাযোগ করলে ঘরে পৌঁছে যাচ্ছে খাবার। করোনার মধ্যেও প্রসূতি মা, অসুস্থ্য ব্যক্তিকে জরুরী ভাবে হাসপাতালে পৌঁছে দিচ্ছে জেলা পুলিশ। এসব মানবিক কাজ করে নড়াইল জেলা পুলিশ সর্বস্তরের জনগণের নিকট ব্যাপকভাবে প্রসংশিত হয়েছে। উজ্জ্বল রায় নড়াইল জেলা প্রতিনিধি।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 deshersangbad.com/
Design & Developed BY Freelancer Zone