বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০২:২৬ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
সাদা ফুলের বর্ণিল সাজে সেজেছে আত্রাইয়ের সজিনা গাছগুলো ভারতীয় রিএসএফ এ দেশের ভেতর ঢুকে সীমান্তে বাংলাদেশী হত্যার উদ্দেশ্যে আক্রমনের প্রতিবাদ স্ত্রী প্রসঙ্গে নাসির, ‘আমার ভয় লাগছে ওকে নিয়ে’ বনানীতে পিলখানার শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা বাগেরহাটে মোরেলগঞ্জে  ঘেরের ভেড়িতে করলা চাষে লাভবান কৃষকের মুখে মিষ্টি হাসি জামালপুরে পৌর নির্বাচন নিয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সংবাদ সম্মেলন পলিটেকনিক শিক্ষার্থীদের জন্য সুখবর ৭ কলেজের পরীক্ষা চলবে, আন্দোলন প্রত্যাহার আজ পিলখানা হত্যাকাণ্ডের এক যুগ ফেনীতে খাবার ফ্যাক্টরিতে ভয়াবহ আগুন মেয়েদের শরীরের ৭টি স্থান বড়ই ‘টার্ন অন’ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সব পরীক্ষা স্থগিতের সিদ্ধান্ত সেতুর অভাবে দুর্ভোগে মানুষ তানোরের বাধাইড় ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অপপ্রচার বেতাগী উপজেলার ভূমি অফিস পরিদর্শনে বরিশালের ডিএলআরসি: কর্মকর্তা-

নড়াইলে নিত্য জ্ঞানকে লালন করে বীরদর্পে হাতীকে দিয়ে ভিকা বৃত আমরা বলি চাঁদাবাজী

উজ্জ্বল রায় নড়াইল জেলা প্রতিনিধি■ শনিবার (১৬, নভেম্বর) ২৭৪:নিত্য জ্ঞানকে লালন করে বীরদর্পে হাতীকে দিয়ে ভিকা বৃত আমরা বলি চাঁদাবাজী হছে নড়াইল শহরের রুপগঞ্জ, মুচিপোল সহ লোহাগড়া বাজার এলাকা ও গ্রামে বীরদর্পে চাঁদাবাজীতে নেমেছে দুটি হাতী। শীত মৌসুম এলেই গ্রামবাংলায় যাত্রা-সার্কাস প্রদর্শনী শুরু হয়। আর এ প্রদর্শনীকে ঘিরে দেখা মেলে নানা জীবজন্তুর। বনজঙ্গল ছাড়া কিছু প্রাণী চিড়িয়াখানা বা পার্কেই শুধু দেখা যায়। সেই সব প্রাণীদের মধ্যে হাতী,বাঘ অন্যতম। গ্রামের সব মানুষদের দূরের বনজঙ্গলে বা চিড়িয়াখানা-পার্কে যেয়ে ওই সব পশু প্রাণী দেখা সম্ভব হয়ে ওঠেনা। তাই শীত মৌসুম এলেই গ্রামের মানুষ অধীর আগ্রহ নিয়ে বসে থাকে কবে যাত্রা-সার্কাস আসবে। যাত্রা-সার্কাস মনের বিনোদনের খোরাক যেমন মেটায় তেমনি বন্যপ্রাণীদের দেখে গ্রামের মানুষরা আনন্দে উদ্দেলিতও হয়। নড়াইল শহরে সার্কাস প্রদর্শনীর আয়োজন করা হচ্ছে। দিন তারিখ যদিও এখনো ঠিক হয়নি। ইতোমধ্যে শহরে হাতীর উপস্থিতিই জানান দিচ্ছে সার্কেস হতে যাচ্ছে। যেহেতু সার্কাস প্রদর্শনী শুরু হতে দেরি হবে তাই সার্কাস উপলক্ষে আনা হাতী শহর গ্রাম ঘুরছে আর নীরব চাঁদাবাজি করছে। নড়াইল শহরের রুপগঞ্জ, মুচিপোল সহ লোহাগড়া বাজার এলাকা ও গ্রামে বীরদর্পে চাঁদাবাজীতে নেমেছে দুটি হাতী। হাতীর সাথে হাতীর বাচ্চাও রয়েছে। উৎসুক লোকে হাতীর পেছনে হাঁটছে। দোকানদারের দোকানের মধ্যে হাতী তার সূর ঢুকিয়ে ছালাম দিচ্ছে। দোকানী খুশি মনে দিচ্ছে ১০ বা ৫ টাকা। লক্ষীপাশা খেয়াঘাটের বাজারের ব্যবসায়ী নিরঞ্জন জানান, এই মোড়েই অন্তত ২০ টি দোকান থেকে হাতী টাকা নিয়ে গেল। এরপরে গেল লোহাগড়া বাজারে। সেখানে দোকানের সংখ্যা প্রায় দেড় হাজার। হাতীর পিঠে বসেছেন তার চালক নাজমুল (২০)। বাড়ি সিলেটে। নাজমুল বললেন, শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার জন্য সার্কাস শুরু হতে দেরি হচ্ছে। তাই বেকার বসে থেকে কি করবো। খরচতো তুলতে হবে। মানুষ খুশি মনে টাকা দিচ্ছে। রাজু পুর গ্রামের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র শ্রাবণ বললো ছোট ভাই সাজিদকে নিয়ে হাতী দেখতে গ্রামে গিয়েছিলাম। হাতীর বাচ্চা দেখে ভাডি লাফাচ্ছিল। শিশুদের পাশাপাশি বৃদ্ধ বয়সীরাও হাতীর পেছনে ছুঁটছেন। হাতীকে ঘিরে তাদের মনে যেন অন্যরকম আনন্দ বইছে।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38321899
Users Today : 2449
Users Yesterday : 3479
Views Today : 6732
Who's Online : 29
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/