রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১০:০১ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
সাবেক ডাকসু ভিপি নুরকে নিয়ে ড. রেজা কিবরিয়ার নতুন দল হাতে কোরআন লিখলেন আওয়ামী লীগ নেত্রী দিয়া ‘অবিলম্বে সরকারিভাবে ’৭১-এর গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি এবং পাকিস্তানি যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে’ সরকার মুক্তিযুদ্ধের গৌরবকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিচ্ছে- ……..আ স ম রব গোবিন্দগঞ্জে শহীদ মিনারের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন চট্টগ্রামে পূজামণ্ডপে হামলায় কারাগারে ৮৪ জন বিশ্ব খাদ্য দিবস উপলক্ষে — বিশ্ব ক্ষুধা দিবস পালিত ক্ষুধা মুক্ত বিশ্ব গড়ে তুলতে পরিবেশবান্ধব কৃষি ও খাদ্য সার্বভৌমত্ব প্রতিষ্ঠার দাবি শিবগঞ্জে বৃদ্ধার চেইন ছিনতাই, গ্রেফতার ৫নারী হাজীগঞ্জে শিশু ধর্ষণ-মৃত্যুর ঘটনা গুজব: পূজা উদযাপন পরিষদ গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় যুব সংগ্রাম পরিষদ গঠন করুন: যুব জাগপা শ্রম ও কর্মসংস্থান সচিব এহছানে এলাহীকে এসএফসিএল শ্রমিক-কর্মচারীদের পক্ষে মানপত্র প্রদান কবির বাড়ি কবি কে, এম, তোফাজ্জেল হোসেন( জুয়েল খান) অধিকাংশ মন্ত্রী-এমপি পাগল হয়ে গেছে : মোমিন মেহেদী রাবির হল খুলছে কাল, সব ধরণের প্রস্তুতি সম্পন্ন দুমকিতে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের মানববন্ধন।

পানি নেই পাঁচ বছর : প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষন

০৬-১০-২০২১

 

মা-বাবাসহ অসহায় দুই বোন। পানি নেই আজ পাঁচ বছর। এটা কোন গ্রাম বা মফস্বল শহরের কোন বাড়ীর গল্প নয়। খোদ রাজধানীর একসময়রে প্রাণকেন্দ্র বংশালের ১১৫/২ লুৎফর রহমান লেনের দুই ফ্লাটের কথা। ঢাকা ওয়াসার দরজায় বার বার আবেদন করেও সমাধান হয়নি এই সমস্যার।

দুই বোন হালিমা খাতুন ও আফরোজা খাতুন শিক্ষানবিশ আইনজীবী হলেও আদালত পারায় সরকার দলীয় একজন আইনজীবীর এডভোকেট শওকত আলী ভুইয়া’র সরাসরি হস্তক্ষেপে আইনের বাণী আজ নিবৃেতে কাঁদছে।

কোন উপায় না পেয়ে ৭৫ বছরের বৃদ্ধ পিতা হাফেজ মো. আলাউদ্দিন ও মা হাবিবা খাতুন কে নিয়ে হালিমা খাতুন দুই হাতের একটি ব্যানার নিয়ে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বুধবার (৬ অক্টোবর) দাড়িয়ে ছিল পানি সমস্যা সমাধানের আশায় গণমাধ্যম, প্রশাসন ও প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষনের জন্য। ছোট্ট ব্যানারে লেখা ছিল “মৌলিক অধিকার চাই, সুষ্ঠু ও ন্যায় বিচার চাই, সরকারী উকিলের আইনের অপব্যাবহার রোধ চাই।”

এসময় তাদের কষ্টের কথা শুনেন বাংলাদেশ জাতীয় মানবাধিকার সমিতির চেয়ারম্যান মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা।

তারা এসময় বলেন, হালিমা খাতুনের দুই চাচা মো. সালেহীন ও বাদশাহ মিয়ার সাথে আপোষ বন্টন ও ডিক্রিধারী মামলা চলছে। এই মামলায় একাধিকবার পক্ষে রায় আসলেও সরকার দলীয় উকিলের কারণে রায় কার্যকর হচ্ছে না। সমস্যাও সমাধান হচ্ছে না। ২০১৬ সালের ২২ ডিসেম্বর থেকে দুই ফ্লাটের পানির লাইন বিছিন্ন করা হয়। পাঁচ বছর অতিবাহিত হবার পরেও এই সমস্যার কোণ সমাধান হচ্ছে না।

তারা বলেন, তাদের বৃদ্ধপিতা টিউশনি করে কোন রকম সংসার চালায়। নিজেরা একটি ফ্লাটে বসবাস করি। পানি না থাকার কারণে অন্য ফ্লাটটি ভাড়াও দেয়া সম্ভব হচ্ছে না। ফলে করোনার ১৮ মাস আমাদের দুর্বিসহ জীবন কাটাতে হয়েছে। আমরা এই মানবেতর জীবন থেকে মুক্তি চাই। তাই প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করি।

Please Share This Post in Your Social Media

https://twitter.com/WDeshersangbad

https://www.facebook.com/Dsangbad

https://www.facebook.com/Dsangbad

All rights reserved © deshersangbad.com 2011-2021
Design And Developed By Freelancer Zone