মঙ্গলবার, ০২ মার্চ ২০২১, ১০:৫৩ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
বরিশাল পুলিশ লাইন্সএ নিহত পুলিশ সদস্যদের স্মৃতিম্ভতে পুস্পার্ঘ্য অর্পন শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্ব বাংলাদেশকে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত করেছে: মিজানুর রহমান মিজু রাণীশংকৈলে জাতীয় বীমা দিবসে র‍্যালি ও অলোচনা  গণতন্ত্রের আসল অর্জনই হলো বিরোধিতা করার অধিকার – সুমন  জাতীয় প্রেস ক্লাবে মোমিন মেহেদীকে লাঞ্ছিতর ঘটনায় উদ্বেগ বেরোবি ভিসিকে নিয়ে মন্তব্য করায় শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ পটুয়াখালী এই প্রথম জোড়া লাগানোর শিশুর জন্ম! তানোরে ইউনিয়ন পরিষদের ভবন উদ্বোধন ফেসবুক ইউটিউব টুইটারকে যেসব শর্ত মানতে হবে ভারতে ২০৩০ সালের মধ্যে ঢাকার যানজট মুক্তির স্বপ্নপূরণে যত উদ্যোগ আজ অগ্নিঝরা মার্চের প্রথম দিন রাশিয়া প্রথম হয়েছিল বাংলাদেশের দুই টাকার নোট। অজুহাত দেখিয়ে মে’য়েরা বিয়ের প্রস্তাবে ল’জ্জায় গো’পনে ১০টি কাজ করে তামিমা স’ম্পর্কে এবার চা’ঞ্চল্যকর ত’থ্য দিল তার মেয়ে তুবা নিজেই ছে’লে: “বাবা তুমি তো বলেছিলে পিতৃ ঋণ কোনদিন শোধ হয় না

প্রথমবারের মত পৌরসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে পোষ্টার ও ব্যানারে ছেয়ে গেছে পলাশবাড়ী।

 

 

বায়েজীদ (গাইবান্ধা) :

 

গাইবান্ধার নবগঠিত  পলাশবাড়ী পৌর সভার নির্বাচনকে সামনে রেখে পোষ্টার ফেষ্টুন লিফলেট ও ব্যানারে ছেয়ে গেছে গোটা পৌর এলাকা। শুধু মাত্র মেয়র পদে প্রায় এক ডজনের ও বেশি প্রার্থী প্রচার প্রচারণা অব্যাহত রেখেছেন।

 

নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে পৌর নির্বাচনের তফশিল ঘোষণা করা না হলে ও সম্ভাব্য মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা জোরে সোরে তাদের প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। গোটা পৌরশহর প্রার্থীদের পোষ্টারে পোষ্টারে ছেঁয়ে গেছে।

 

ঘরের দেয়াল গুলোতে ফাঁকা জায়গা নেই। সবখানেই প্রার্থীদের ছবিসহ ভোটারদের উদ্দেশ্যে শুভেচ্ছা জ্ঞাপন বক্তব্যের মাধ্যমে প্রার্থীতার আগাম বার্তা পৌঁছে দেয়া হচ্ছে। রং বেরংয়ের পোষ্টারের সাহায্যে অবশ্য কাউন্সিলর প্রার্থীরা প্রচারণার ক্ষেত্রে আরেক ধাপ এগিয়ে। তারা পোষ্টার সেঁটেই নিশ্চিন্তে নেই।

 

ইতিমধ্যে ভোটারদের বাড়ি বাড়ি পদচারণা শুরু করেছেন। সাহায্য সহযোগিতার হাতও প্রসারিত করেছেন অনেকে। সেই সাথে নির্বাচনী এলাকার উন্নয়নে তাদের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার কথাও তারা ঘোষণা করে যাচ্ছেন।

 

অপরদিকে দলীয় মনোনয়নের বিষয়টি এবার গুরুত্ব পাওয়ায় দলের স্থানীয় নেতাদের পাশাপাশি কেন্দ্রীয় নেতাদের সমর্থন আদায়ে বিভিন্নভাবে তদবির চালিয়ে যাচ্ছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা।

 

তবে গাইবান্ধা পৌর নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী ছাড়াও স্বতন্ত্র প্রার্থীর সংখ্যাও কম হবে না বলে অবস্থাদৃষ্টে মনে হয়। দলীয় ক্ষেত্রে আওয়ামী লীগের সংখ্যাই এখন মাঠে বেশী। পাড়া-মহল্লায় চায়ের দোকানগুলোতে পৌর নির্বাচনের বিষয়টি এখন আলোচনায় উঠে আসছে।

 

সম্ভাব্য প্রার্থীরাও ওইসব দোকানে ভোটারদের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করতে আসছেন। ফলে ওইসব দোকানে এখন ভোটের আমেজ চলছে। চায়ের কাপে চলছে ঝড়।

 

পলাশবাড়ী পৌর নির্বাচন নিয়ে কোনো দলই এখনও প্রার্থীতার ব্যাপারে চুড়ান্ত ঘোষণা দেয়নি। ফলে বিভিন্ন দলের একাধিক প্রার্থী এখন মাঠে। প্রচার প্রচারণার মাধ্যমে দলে প্রভাব বিস্তারেও চেষ্টা করছেন কেউ কেউ।

 

মেয়র হিসেবে উল্লেখযোগ্য প্রার্থীরা হলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, গাইবান্ধা জেলা বাস মিনিবাস কোচ ও মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক এবং পৌরসভা বাস্তবায়ন কমিটির সাধারন সম্পাদক গোলাম সারোয়ার প্রধান বিপ্লব,

 

উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি আবু বক্কর প্রধান, উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারন সম্পাদক  উপাধ্যক্ষ শামিকুল ইসলাম সরকার লিপন, উপজেলা আওয়ামীলীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য জাহাঙ্গীর আলম বাবু, স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও তরুণ সমাজ সেবক আব্দুল্লাহেল কাফি মন্ডল, জেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারন সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, এবং জামায়াত নেতা প্রভাষক গোলাম আযম।

 

সব প্রার্থীরাই দুর্নীতি ও মাদক মুক্ত এবং জনবান্ধব পৌরসভা গড়ে তোলার অঙ্গীকারের পাশাপাশি নানামুখী উন্নয়নের ঘোষণা দিচ্ছেন। তারা সেবার মান বাড়ানোর নানা পরিকল্পনার কথা ও বলছেন।

 

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38343253
Users Today : 1530
Users Yesterday : 5054
Views Today : 5822
Who's Online : 31
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/