Home / অপরাধ / ফকিরহাটে দেশের একমাত্র মহিষ প্রজনন ও উন্নয়ন খামারে সেড নির্মানের টেন্ডারে দূর্নীতির অভিযোগ

ফকিরহাটে দেশের একমাত্র মহিষ প্রজনন ও উন্নয়ন খামারে সেড নির্মানের টেন্ডারে দূর্নীতির অভিযোগ

 

ফকিরহাট প্রতিনিধি
বাগেরহাটের ফকিরহাটে দেশের একমাত্র মহিষ প্রজনন ও উন্নয়ন খামার অবস্থিত। মহিষ রাখার জন্য বিভিন্ন রকম সেড নির্মানের জন্য ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে দরপত্র আহবান করেন ১২,১৫,১৬ই মার্চ। সেই অনুযায়ী ঠিকাদারগন দরপত্র ক্রয় করেন।অপরদিকে টেন্ডার নোটিশে কর্তৃপক্ষ উল্লেখ করেছে টেন্ডার মূল্যায়নের সর্বশেষ তারিখ ১০ জুন ২০২০,আর কাজ শুররু তারিখ দেওয়া আছে ২৯ মার্চ ২০২০, কাজ সমাপ্তির তারিখ ২৯ নভেম্বর ২০২০। অর্থাৎ দরপত্র যাচাই বাছাইয়ের ৩মাস পূর্বেই কাজ শুরুর কথা বলা হয়েছে।যা সত্যই রহস্যজনক, কেননা টেন্ডার মূল্যায়নের ৩মাস আগে কিভাবে কাজ শুরুহয়।
এব্যাপারে বিভিন্ন ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের সাথে কথা বলে জানা যায়,এই প্রকল্পের কিছু অসাধু কর্মকর্তার যোগসাজশে দূর্নীতির আশ্রয় নিয়ে তাদের মনপূত ঠিকাদারকে কাজ দেওয়ার পায়তারি চালাচ্ছে।

এবিষয়ে প্রানী সম্পদ অধিদপ্তরের সচিব রওনক মাহমুদ জানান, বিষয়টি সম্পর্কে আমি আপনাদের মাধ্যমে জানতে পারলাম। আমি খুব দ্রæতই তদন্ত সাপেক্ষে ব্যাবস্থা গ্রহন করবো।
প্রাণী সম্পদ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত সচিব ওয়াছিউদ্দিন জানান, এমন ধরণের কার্যক্রমে যারা যুক্ত, তাদের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হবে।

প্রাণী সম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডাঃ আব্দুল জব্বার শিকদারের সাথে কথা হলে তিনি বলেন,কোন প্রকার অনিয়ম ও দূর্নিতী মেনে নেওয়া হবেনা। ঘটনার সত্যতা যাচাই পূর্বক প্রয়োজনে আমরা রি-টেন্ডারের জন্য আবার দরপত্র আহবান করবো।

এই প্রকল্পে ৪কোটি টাকার টেন্ডারে সময় বেধে দেওয়া হয়েছে ৮ মাস।এত বড় প্রকল্প ৮ মাসে কিভাবে সম্পন্ন করবে সেটা ভাবার বিষয়। তবে দরপত্র আহবানের ৪ মাস অতিবাহিত হয়ে গিয়েছে ইতিমধ্যে। কাগজপত্রে কাজ শুরু হলেও বাস্তবে কোন প্রকার কাজের চিনহ নাই। তাছাড়া যেখানে সেড নির্মান হবে সেখানকার জমি অধিগ্রহণ ও হইনি।আর এদিকে মেয়াদ শেষের তারিখ ও প্রায় শেষ। তাহলে কিসের জন্য এই টেন্ডার।তাহলে কি শুধু অর্থ লোপাটের জন্য এই টেন্ডার বানিজ্য ? বিষয় টি কর্তৃপক্ষ নজরে এনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলে আশাবাদী সাধারণ ঠিকাদারদের এবং এই টেন্ডার টি বাতিল করে রি টেন্ডারের দাবী তাদের।

নিউজটি লাইক দিন ও আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

About jahir

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

কেন্দ্রীয় ঔষধাগারের পরিচালক বদলি স্বাস্থ্যমন্ত্রীর ছেলে ও মিঠুর কথায়

বহুল আলোচিত মিঠু সিন্ডিকেট স্বাস্থ্য খাতে এতোই ক্ষমতাধর যে, নির্দেশমতো কাজ না ...