রবিবার, ০৭ মার্চ ২০২১, ১১:৩৪ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
আত্রাইয়ে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ পালন ১লক্ষ পিচ কোরআন বিতরণে অনুষ্ঠানে সাংবাদিক রাসেলকে সম্মাননা স্মারক উপহার দিলেন দেশসেরা উদ্ভাবক মিজান বাংলাদেশের সকল মাদ্রাসায় দেশসেরা উদ্ভাবক মিজান পৌছে দিবে ১লক্ষ পিচ পবিত্র আল-কোরআন রাজারহাটে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ পালিত বড়াইগ্রামে যথাযোগ্য মর্যাদায় ঐতিহাসিক ৭ মার্চ পালন সাপাহারে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চে থানা পুলিশের আনন্দ উদযাপন পবিপ্রবির স্তম্ভে ৩৬এফ -৬/এফ টি -৬ ভেঙে ফেলায় সব মহলে নিন্দা।  সাপাহারে ঐতিহাসিক ৭ই র্মাচ উপলক্ষে মুক্তিযোদ্ধা সমাবেশ অনষ্ঠিত দুই ঘন্টা অবরুদ্ধ করে রাখা হয় সারাদেশের ন্যায় শার্শা উপজেলা ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ বিভিন্ন কর্মসূচী পালিত ভোটাধিকারের আন্দোলন অব্যাহত রাখার প্রত্যয়ে হানিফ বাংলাদেশীর মার্চ ফর ডেমোক্রেসি সমাপ্ত রৌমারী সীমান্ত দিয়ে ভারতে অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে এক বাংলাদেশি আটক ইসলামপুরে কষ্টি পাথরের মূর্তিসহ আটক ৩  প্রধানমন্ত্রীর দৃস্টি আকর্ষণ তানোরে নৌকায় দিয়ে চাকরিচ্যুৎ ! ঐতিহাসিক ৭ মার্চ আজ

বাগেরহাটে মোড়েলগঞ্জে আবু বকর‘কুল’ ফলে সাড়া জাগিয়েছে

 

শেখ সাইফুল ইসলাম কবির,সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার: :বাগেরহাট জেলার মোড়েলগঞ্জে বলসুন্দরী ‘কুল’ ফলে সাড়া জাগিয়েছে আবু বকর। বিদেশে চাকুরীতে না গিয়েও দেশের মাটিতে এখন সোনার ফসল ফলিয়ে বছরে উর্পাযন করছে লাখ লাখ টাকা। একজন সফল চাষী হিসেবে গর্ভিত মো. আবু বকর শেখ (৪৮)।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, উপজেলার দৈবজ্ঞহাটী ইউনিয়নের বুরুজবাড়িয়া গ্রামের মৃত. মোশারেফ শেখের ছেলে মো. আবু বকর শেখ একজন সফল চাষী। ৬৬শতক জমিতে নতুন প্রজাতের বলসুন্দী কুল ফলে চাষ করে এখন গোটা দক্ষিণাঞ্চলে সাড়া জাগিয়েছে। প্রতিনিয়ত ছুটে আসছে বাগান দেখতে বিভিন্ন জেলার চাষিরা। কিনে নিচ্ছে তারা বলসুন্দরী কলম চারা।

বাম্পার ফলন পেয়ে এ চাষে উৎসাহিত হচ্ছে অন্যচাষীরাও। চাষী আবু বকর শেখ বলেন, ৬/৭ মাস পূর্বে এ বলসুন্দরী কুল ফলের কলম আনা হয় কুমিল্লা থেকে। এ থেকে বংশ বিস্তার হয়ে এক হাজার চারা রয়েছে এ বাগানে। প্রতিটি কুল গাছ থেকে এক মন করে কুল বরই ফল তুলছেন তিনি। ২ মাস বয়স থেকে ৫ মাসে মধ্যে ফলন আসে। ৩ মাস থাকে এ বরইর উৎপাদন। এ বারে তিনি ১০ থেকে ১২ লাখ টাকা কুল বরই বিক্রি করবেন বলে আশা করছেন। অনলাইনের মাধ্যমে ক্রেতারা চাহিদা অনুযায়ী ১৫০ টাকা কেজি দরে কুল বরই কিনে নিচ্ছেন। পাশাপাশি এ প্রজাতের পুরাতন প্রতি কলম বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা এবং নতুন কলম ২০ টাকা। ইতোমধ্যে এ উপজেলার বাহিরে পিরোজপুর, বরিশাল জেলার বিভিন্ন উপজেলায় চাষীরা কলম কিনে নিয়েছেন তার বাগান থেকে। বাগানটি পরিচর্যার জন্য প্রতিনিয়ত ৫শ’ টাকা মজুরিতে ৭ জন শ্রমিক কাজ করছে।

এছাড়াও এ বাগানে অন্য প্রজাতের বাউকুল, কাশমেরী কুল ফলিয়ে সফল হয়েছেন তিনি। চাষি আবু বকরের নেশা-পেশা শুধু ফলের বাগান করা। লিচু, আম, পেয়ারা বিভিন্ন প্রজাতের বরই বাগানসহ ১১টি ফলের বাগান রয়েছে তার। পরিবারে বৃদ্ধ মাতা, স্ত্রী, ২ ছেলে ও ২ মেয়ে রয়েছে তার। বর্তমানে তিনি এ বলসুন্দরী কুলের চাষ করে একজন সফল চাষী হিসেবে যুব সমাজকে এ নার্সারী চাষে এগিয়ে আশার আহবান জানান তিনি।

এ ব্যাপারে দৈবজ্ঞহাটী ইউনিয়নের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো. মশিউর রহমান বলেন, সফল চাষী মো. আবু বকর এখন এ উপজেলার গর্ভ। এ ইউনিয়নে ইতোমধ্যে নতুন নতুন প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে শীতকালিন সবজি, মাল্টা, বরইফল সহ ব্যাপক উৎপাদন করে একটি মডেল কৃষি ইউনিয়ন হিসেবে সফল হয়েছে। ঘটিয়েছে তারা কৃষি বিপ্লব। ফলনে ভালো দামও পেয়েছে কৃষকরা। আগামিতে আরো চাষাবাদের দিকে উৎসাহিত হবে কৃষকরা বলে মনে করছেন এ কর্মকর্তা। ##

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38368297
Users Today : 2897
Users Yesterday : 6910
Views Today : 15656
Who's Online : 39
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/