শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ০৭:২২ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
বসত ভিটা হারিয়ে খোলা আকশের নিচে ছিন্নমূল পরিবার নিষেধাজ্ঞা পৌঁছানোর ৫২ মিনিট আগে বেনাপোল দিয়ে ভারতে পালান পি কে হালদার নারী চালকদের কাজের সুযোগ তৈরিতে বেটার ফিউচার ফর উইমেন-উবার চুক্তি মুশতাক হত্যার বিচার চাই, সরকার পতন নয়-মোমিন মেহেদী বিবাহিত জীবন আরও ফিট রাখতে বিশেষ যে ৭ খাবার! সন্তান নিতে কতবার স’হবাস করতে হয় জানালেন ‘ডা. কাজী ফয়েজা’ বী’র্যপাত বন্ধ রে’খে অধিক সময় যৌ’ন মি’লন ক’রার সেরা প’দ্ধতি আশ্চর্য যে ফল খেলে আপনাকে মি’লনের আগে আর উ’ত্তেজক ট্যাবলেট খেতে হবে না সাপাহার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বেড়েছে নরমাল ডেলিভারীর সংখ্যা প্রত্যেকদিন সকালে সহবাস করলেই অবিশ্বাস্য উপকারিতা আত্রাইয়ে ইরি-বোরো ধান পরিচর্যায় ব্যস্ত কৃষক দেখুন এই ৫ রাশির মেয়েরাই স্ত্রী হিসাবে সবচেয়ে সেরা, বিস্তারিত যে কারণে নিকটাত্মীয় ভাই-বোনদের বিয়ে ঠিক নয়, জেনে রাখা দরকার সুন্দরগঞ্জে জনবল সংকটে স্বাস্থ্য সেবা বিঘিœত ভারতে মিয়ানমারের ১৯ পুলিশের আশ্রয় প্রার্থনা

বাচ্চাদের হাতে মোবাইল ফোন মানে এক একটি আত্মঘাতী অস্ত্র ছাড়া আর কিছু নয়।

আপনার হাঁটতে না জানা বাচ্চাটা আপনার এন্ড্রয়েডের গ্যালারিতে ঢুকে তার আব্বুর ছবি আনতে পারে আর সেটা দেখে আপনি খুশিতে গদ গদ হচ্ছেন। সেই সময় আপনার ফোন থেকে বাচ্চার চোখে আসা রেডিয়েশনের মাত্রা মেপে দেখেছিলেন? যে বয়সে তার চোখের পাওয়ার বাড়ার কথা সেই বয়সেই চরমভাবে কমা শুরু করে দিয়েছে। বাচ্চাদের হাতে এক একটা মোবাইল ফোন এক একটা আত্মঘাতী অস্ত্র। আর আমরা আদর করে বাচ্চাদের হাতে খেলনা তোলে না দিয়ে অতি আধুনিকতার ঠেলায় এখন তোলে দিচ্ছি স্মার্টফোন। তাই সেই অতি আদরে বাচ্চারা হয়ে যায় বাঁদর। আপনার বাচ্চা মোবাইল কানে দিয়ে আদর আদর কণ্ঠে এলো..!!

পাপ্পা পা..! মাম্মা মা…!!! বলছে আর আপনার শুনতে মনে হচ্ছে স্বর্গীয় কোন সাউন্ড। কিন্তু ঠিক সেই মুহুর্তে মোবাইলের রেডিয়েশনে তার মস্তিষ্কের কোষগুলো উত্তেজিত হতে থাকে যার স্থায়িত্ব হয় ২ ঘন্টারও বেশি। এই সময়ে তার মস্তিষ্কের ক্ষতির পরিমাণ আপনার ধারণার বাইরে। আমার কথা না,আন্তর্জাতিক একটি সংস্থার গবেষণার ফলাফল ছিল এই তথ্য। হাতের কাছে স্মার্টফোনের ভিতরে অসংখ্য গেম ঢুকিয়ে দিয়ে আপনারা বাচ্চাদেরকে ঘরের ভিতরে এক একটা ফার্মের মুরগী তৈরি করছেন।

যে মুরগীর বাজারমূল্য খুবই কম। শুধু হরলিক্সের সাথে দুধ মিশালেই বাচ্চাদের হাড়ের সুষম গঠন হয় না। মাঠে ঘাটে দৌঁড়াতে হয়। পড়ে পড়ে হাতে পায়ে ব্যাথা পেয়ে উঠে দাঁড়াতে হয়। ঘরে বসে বসে ফোনে গেম খেলতে খেলতে বড় হওয়া বাচ্চাগুলো হবে অনেকটা লোহার বদলে বাঁশ দিয়ে তৈরি ব্রীজের মত। অল্পতেই ভেঙ্গে যাবে।

আপনার সন্তান বয়সের তুলনায় স্মার্টফোনের ফাংশান বেশি জানাতে আপনার আনন্দের কোন বার্তা নেই। বরঞ্চ উৎকন্ঠার শুরু ওখান থেকেই। তখনই সাথে সাথে চিন্তা করুন কিভাবে তাকে এই আত্মঘাতী অস্ত্র থেকে দূরে আনা যায়। ভালোবেসে বাচ্চাদের হাতে খেলনা দিন,বই দিন। অস্ত্র নয়। বাচ্চাদের হাতে মোবাইল ফোন মানে এক একটি আত্মঘাতী অস্ত্র ছাড়া আর কিছু নয়।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38360818
Users Today : 2328
Users Yesterday : 5133
Views Today : 6842
Who's Online : 54
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/