শনিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২১, ০৯:৫১ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
হেসে খেলে ওয়ানডে সিরিজ জয় সুপার লীগের সেরা তিনে বাংলাদেশ টাইগারদের সিরিজ জয়ে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন ক্রিসতং অভিযান করোনায় আক্রান্ত জিদান নির্বাচনে জয়ী স্বামীকে কাঁধে নিয়ে পুরো গ্রাম ঘুরলেন স্ত্রী রাশিয়ার সঙ্গে পরমাণু চুক্তির মেয়াদ বাড়াতে চান বাইডেন মরণঘাতী ২০২০ সাল! মহামারী করোনা ভাইরাসের কবলে আলেম সমাজ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার বিমান পরিবহনের কেন্দ্রবিন্দু হবে শাহজালাল উর্বশীর বিয়ে… ভাঙছে সংসার, এরমধ্যেই নুসরাতকে খোঁচা দিলেন স্বামী নিখিল! জুমার দিনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ আমল সূর্যোদয়ের দেশে এক দশকে মুসলিমদের সংখ্যা বেড়ে দ্বিগুণ রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু করতে আগ্রহী মিয়ানমার, পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে চিঠি করোনায় দেশে আরও ১৫ জনের মৃত্যু শক্তিশালী ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল ফিলিপাইন

বাড়ছে শিশু নির্যাতন

সারা দেশে শিশু নির্যাতন বেড়েই চলেছে। ঘরে-বাইরে কোথাও যেন নিরাপদ নয় দেশের শিশুরা। পত্রপত্রিকায় প্রকাশিত খবরে উঠে এসেছে যে, ২০১৯ সালে সারাদেশে ধর্ষণের ঘটনা আগের বছরের চেয়ে বেড়ে দ্বিগুণ হয়েছে।
কোনো কোনো মা-বাবা বা অন্যান্যরা শিশুকে সবকিছুতেই বেশি বেশি নিয়ন্ত্রণ করেন। তার ইচ্ছামতো কিছুই করতে দেন না, নিজের ইচ্ছা শিশুর উপর চাপিয়ে দেন এবং শিশুর মতামতকে মূল্যায়ন করেন না। আবার অতিরিক্ত প্রশ্রয় দেয়াও শিশুর সুস্থ বিকাশের জন্য অন্তরায়। তাই এই দুটি অবস্থাই শিশুর জন্য মানসিক নির্যাতন শিশুরা ভয়ে ভয়ে থাকা, অবস্তায় হঠাৎ ভেঙ্গে পড়া, নিরাপত্তার অভাব বোধ করা, হীনমন্যতায় ভোগা, অন্যের উপর অতিমাত্রায় নির্ভরশীল হওয়া ইত্যাদি। বাড়ী থেকে, পালিয়ে যাওয়া । এবং আত্মহত্যার চেষ্টা করা, আক্রমনাত্মক হয়ে ওঠা, নেশাগ্রস্থ হওয়া, মাদকাসক্ত হওয়া ইত্যাদি।

শারীরিক বল প্রয়োগ করে, কাউকে আঘাত করাই শারীরিক নির্যাতন। শিশুর কান মলা থেকে শুরু করে যেকোনো বড় ধরনের আঘাত এই নির্যাতনের অন্তরভূক্ত। যত কম বয়সে শিশুর ওপর নির্যাতন হবে তত এর ফলাফল মারাত্মক হবে। আবার বয়ঃসন্ধিকালেও কিশোর কিশোরীরা খুবই সংবেদনশীল থাকে তাই এই বয়সে নির্যাতনের প্রভাব খুব বেশি হয়। খুব বেশি নিয়ন্ত্রণ এবং খুব বেশি প্রশ্রয়দান
যে সকল ঘটনা ঘটছে তাতে কোনো শিশুই যে একেবারে নিরাপদে আছে এটা বলা যাবে না। শিশুদের এই যে নিরাপত্তাহীনতা এটা প্রচন্ড একটি উদ্বেগ জনক বিষয়। এটা সমাজের জন্য খুব একটা খারাপ চিত্র বহন করে, খুব খারাপ ম্যাসেজ দেয় যে শিশুরা নিরাপদ না। অতএব শিশুদের নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে থেকে আমাদের বেরিয়ে আসতে হবে এবং তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে।

আল-আমিন আহমেদ’ জীবন
কলাম লেখক ও নিবন্ধকার

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38177269
Users Today : 1934
Users Yesterday : 7862
Views Today : 4975
Who's Online : 46
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design & Developed BY Freelancer Zone