দেশের সংবাদ l Deshersangbad.com » বার্নিকাটের মেয়াদ বেড়েছে, তদবির করেছেন ইউনূস!



বার্নিকাটের মেয়াদ বেড়েছে, তদবির করেছেন ইউনূস!

৭:৫০ পূর্বাহ্ণ, অক্টো ০৯, ২০১৮ |জহির হাওলাদার

70 Views

হঠাৎ করেই মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শিয়া বার্নিকাটের ঢাকা অবস্থানের মেয়াদ তিন মাস বাড়লো। আগামী ডিসেম্বর পর্যন্ত ঢাকায় বাংলাদেশের মার্কিন রাষ্ট্রদূত হিসেবে তাঁকে দায়িত্ব পালন করতে বলা হয়েছে। নতুন রাষ্ট্রদূত রবার্ট মিলার দায়িত্ব নেবেন জানুয়ারিতে। ডিসেম্বরের মধ্যে বাংলাদেশে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবার কথা। এবারের নির্বাচন নিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র একটু বেশিই আগ্রহ দেখাচ্ছে। যেহেতু বার্নিকাট দীর্ঘদিন (৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৫) বাংলাদেশে আছেন এবং বাংলাদেশের রাজনীতির গতি-প্রকৃতি সম্পর্কে ওয়াকিবহাল এ কারণে মার্কিন প্রশাসন নির্বাচন পর্যন্ত তাঁকেই রাখতে চাইছে।
একাধিক কূটনীতিক সূত্রে পাওয়া খবরে জানা গেছে, ড. মুহম্মদ ইউনূসের অনুরোধেই, ঢাকায় বার্নিকাটের মেয়াদ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। ৩১ আগস্ট তাঁর ওয়াশিংটনে ফিরে যাবার কথা ছিল। এ উপলক্ষে তিনি একাধিক বিদায় নৈশভোজ এবং অনুষ্ঠানেও আমন্ত্রিত হন। কিন্তু যেহেতু বার্নিকাট বাংলাদেশের রাজনীতিতে তৃতীয় শক্তির উত্থানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছিলেন। সে কারণেই নির্বাচনের আগে না সরানোর অনুরোধ করেন শান্তিতে নোবেল জয়ী ড. মুহম্মদ ইউনূস। গত ৬ মাস ধরে বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ রাজনীতিতে কোনো রাখঢাক না রেখেই প্রভাব বিস্তারে চেষ্টা করছে মার্কিন দূতাবাস। একাধিক সূত্র নিশ্চিত করছে, যুক্তফ্রন্ট গঠন, ড. কামাল হোসেনের সঙ্গে যুক্তফ্রন্টের ঐক্যে সরাসরি ভূমিকা রেখেছেন বার্নিকাট। আর মার্কিন দূতাবাসকে সচল করতে মূল ভূমিকা পালন করছেন ড. মুহম্মদ ইউনূস। খুলনা সিটি নির্বাচনের পর বার্নিকাট নির্বাচনে ব্যাপক কারচুপির অভিযোগ তোলেন। এর পরপরই তিনি অধ্যাপক বদরুদ্দোজা চৌধুরী এবং ড. কামাল হোসেনের সঙ্গে আলাদা আলাদা বৈঠক করেন। গত ৪ আগস্ট সুজন সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদারের বাসায় যান মার্কিন রাষ্ট্রদূত বার্নিকাট। গোপনীয়তা রক্ষা করতে গিয়ে ’ডিপ্লোম্যাটিক সিকিউরিটি ম্যানুয়াল’ও অনুসরণ করেননি মার্কিন রাষ্ট্রদূত। যেখানে ড. কামাল হোসেনসহ সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের সঙ্গে আগামী নির্বাচনে করণীয় প্রসঙ্গে কথা বলেন। তাঁর গাড়ি আক্রান্ত হওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে এই ঘটনা জানাজানি হয়ে যায়। এ পরপরই দ্রুতই ড. কামাল-বি. চৌধুরী বৈঠক করেন। বার্নিকাট এবং মার্কিন দূতাবাসে তাঁর সহকর্মীরা তৃতীয় শক্তি উত্থাপনের জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছে। এ কারণেই মার্কিন প্রশাসনকে ড. ইউনূস বার্নিকাটকে নির্বাচন পর্যন্ত পরিবর্তন না করার অনুরোধ করেন। একাধিক সূত্রে জানা গেছে, বিদায়ের আগে বার্নিকাট সর্বশেষ বিদায়ী সাক্ষাৎ করেছিলেন ড. ইউনূসের সঙ্গে। আমেরিকান ক্লাবে তাদের দু’ঘণ্টারও বেশি সময় বৈঠক হয়। এই বৈঠকের পরই দৃশ্যপট পাল্টে যায়। মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর বার্নিকাটকে ডিসেম্বর পর্যন্ত দায়িত্ব অব্যাহত রাখার নির্দেশ দেয়।
একাধিক সূত্র বলছে, ড. কামাল হোসেন এবং অধ্যাপক বদরুদ্দোজা চৌধুরীর নেতৃত্বে বাংলাদেশে যে ঐক্য প্রক্রিয়া চলমান, তাঁর নেপথ্যে শান্তিতে নোবেল জয়ী ড. মুহম্মদ ইউনূস। আর এই তৎপরতায় পৃষ্ঠপোষকতা দিচ্ছে মার্কিন দূতাবাস।

Spread the love

৪:২৮ অপরাহ্ণ, অক্টো ১৭, ২০১৮

যে ৫ কারণে সৌদিকে ভয় পায় পশ্চিমারা...

43 Views

৪:২৪ অপরাহ্ণ, অক্টো ১৭, ২০১৮

বাসাবাড়িতে বাড়ছে না গ্যাসের দাম...

21 Views

৪:২২ অপরাহ্ণ, অক্টো ১৭, ২০১৮

উত্তরখানের আগুনে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৫...

14 Views

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




উপদেষ্টা পরিষদ:

১। ২।
৩। জনাব এডভোকেট প্রহলাদ সাহা (রবি)
এডভোকেট
জজ কোর্ট, লক্ষ্মীপুর।

৪। মোহাম্মদ আবদুর রশীদ
ডাইরেক্টর
ষ্ট্যান্ডার্ড ডেভেলপার গ্রুপ

প্রধান সম্পাদক:

সম্পাদক ও প্রকাশক:

জহির উদ্দিন হাওলাদার

নির্বাহী সম্পাদক
উপ-সম্পাদক :
ইঞ্জিনিয়ার নজরুল ইসলাম সবুজ চৌধুরী
বার্তা সম্পাদক :
সহ বার্তা সম্পাদক :
আলমগীর হোসেন

সম্পাদকীয় কার্যালয় :

১১৫/২৩, মতিঝিল, আরামবাগ, ঢাকা - ১০০০ | ই-মেইলঃ dsangbad24@gmail.com | যোগাযোগ- 01813822042 , 01923651422

Copyright © 2017 All rights reserved www.deshersangbad.com

Design & Developed by Md Abdur Rashid, Mobile: 01720541362, Email:arashid882003@gmail.com

Translate »