শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৩:৪২ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
মুশতাকের মৃত্যুতে ১৩ দেশের রাষ্ট্রদূতের গভীর উদ্বেগ মুশতাক আহমেদের মৃত্যু অনভিপ্রেত: তথ্যমন্ত্রী গাইবান্ধায় প্রেমের কারণে কিশোরীকে গলা কেটে হত্যা কুড়িগ্রামে পাকা সড়ক নির্মানের দাবিতে মানববন্ধন কুয়েতে সাজাপ্রাপ্ত পাপুলের এমপি পদ শূন্য: লক্ষ্মীপুর-২ আসনে নির্বাচনী হাওয়া লক্ষ্মীপুর আইনজীবী সমিতির নির্বাচন সম্পন্ন চট্টগ্রামে পাঁচ ভাই-বোনের একই দিনে বিয়ে মেয়ের খোঁজ নিতেন না তামিমা শাহবাগে লেখক মুশতাকের গায়েবানা জানাজা, জুতা মিছিল বনানীতে বিএনপির মশাল মিছিলে পুলিশের হামলার অভিযোগ অন্যের বিশ্বাসের প্রতি আঘাত করে লিখতেন মুশতাক: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রতি সোম ও বৃহস্পতিবার চলবে ঢাকা-নিউ জলপাইগুড়ি ট্রেন আতিকের প্রতারণার তথ্য পেল পুলিশ! কৃষকনেতা বি এম সোলায়মান মাষ্টার এর ৮ম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত গাবতলীর কাগইলে ফ্রি চিকিৎসা ক্যাম্প অনুষ্ঠিত

বিশেষজ্ঞদের সাথে ‘শিক্ষার্থীদের জন্য ই-সচেতনতা’ বিষয়ক মতবিনিময় সভার আয়োজন

প্রেস রিলিজ

 

 

শিক্ষার্থীদের ইন্টারনেটে সুরক্ষিত পদচারণার জন্য প্রয়োজন সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা। ডিনেট, আইসিটি ডিভিশনসহ বিভিন্ন অংশীদারকে সাথে নিয়ে শিক্ষার্থীদের ইন্টারনেটে সুরক্ষিত থাকার লক্ষ্যে একটি গাইডলাইন তৈরি করছে। এ লক্ষ্যে আজ নভেম্বর ৪, ২০১৯, সোমবার, ডিনেট কার্যালয়ে বিশেষজ্ঞদের সাথে ‘শিক্ষার্থীদের জন্য ই-সচেতনতা’ বিযয়ে একটি মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই সভায় অংশগ্রহণ করেন আইসিটি ডিভিশন, বেসিস, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি – বাংলাদেশ, জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল, সমকাল, গুগল ডেভেলপার গ্রুপ ক্লাউড বাংলা, গণসাক্ষরতা অভিযান এবং ফানুস প্রাইভেট লিমিটেড থেকে প্রতিনিধিরা। এ সভায় সভাপতিত্ব করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. জিয়া রহমান। বিষয় বিশেষজ্ঞ হিসেবে আলোচনায় অংশ নেন আইসিটি ডিভিশনের অতিরিক্ত সচিব মোঃ খাইরুল আমিন, বেসিস-এর সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর, জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল-এর শিক্ষক ডাঃ হেলাল উদ্দিন আহমেদ, ডিনেট প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবিএম সিরাজুল হোসেন সহ আরও অনেকে।

 

সভায় শিক্ষার্থীদের ইন্টারনেট সচেতনতা, নানা ধরনের বিষয় সম্পর্কে সতর্কতা এবং সচেতনতা গড়ে তোলার বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়। আলোচনার মূল বিষয় ছিল শিক্ষার্থীদের জন্য ইন্টারনেটে সচেতনতা বিযয়ক একটি গাইডলাইন তৈরি। উক্ত গাইডলাইনটিতে শিক্ষার্থীদের ইন্টারনেটের বিভিন্ন ঝুঁকি থেকে নিরাপদ থাকার বিভিন্ন বিষয় সমন্বয় করা হবে। সভার আলোচনায়, বর্তমান বাস্তবতায় শিক্ষার্থীদের ইন্টারনেট সচেতনতার বিষয়টি একটি জরুরি প্রশ্ন হিসেবে সামনে এসেছে।

 

অতিরিক্ত সচিব মোঃ খাইরুল আমিন বলেন, “সরকারের প্রধান কাজ হলো তার জনগণকে রক্ষা করা। ইন্টারনেটের দুনিয়াতে শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন অপরাধ থেকে রক্ষার এই (ডিনেটের) উদ্যোগে তাই আইসিটি ডিভিশন সর্বোচ্চ সহায়তা প্রদান করবে ।” বেসিস-এর সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর বলেন, “ইন্টারনেট সচেতনতার কোনো বিকল্প নেই। শিক্ষার্থীদের ইন্টারনেটে প্রাপ্ত তথ্যসমূহ যাচাই বাছাই করা শিখতে হবে এবং কিভাবে সঠিক তথ্য অনলাইন থেকে বের করতে হয় সে ব্যাপারে অবগত থাকতে হবে।”

 

ডিনেট, ইউএসএআইডি‘র অবিরোধ: সহনশীলতার পথে প্রজেক্টের সহযোগিতায় শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের জন্য ‘ই-সচেতনতা’ বিষয়ে এই প্রকল্পের বাস্তবায়ন করছে। এই প্রকল্পটির মাধ্যমে ডিনেট শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের সচেতনতা গড়ে তোলার জন্য নিম্নলিখিত কার্যক্রম বাস্তবায়ন করবে:

১. নবীন শিক্ষার্থীদের ইন্টারনেটে সুরক্ষিত থাকার জন্য প্রয়োজনীয় বিযয়ের উপর একটি গাইডলাইন প্রস্তুতকরণ।

২. ঢাকা, চট্টগ্রাম ও রাজশাহী জেলার ১০০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের নিরাপদ ইন্টারনেট ব্যবহার বিষয়ক প্রশিক্ষণ।

৩. শিক্ষার্থীদের জন্য নিরাপদ ইন্টারনেট ব্যবহার বিষয়ে অনলাইনে একটি ই-শিখন ওয়েব পোর্টাল/প্ল্যাটফর্ম প্রস্তুত করা।

৪. শিক্ষার্থীদের সচেতন করার জন্য একটি ২০ সিরিজের ইন্টারনেট কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা।

৫. প্রশিক্ষণ ও কুইজে বিজয়ী শিক্ষার্থীদের নিয়ে ঢাকায় বাংলাদেশের প্রথম নিরাপদ ইন্টারনেট বিষয়ে একটি অলিম্পিয়াড আয়োজন।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38333051
Users Today : 3154
Users Yesterday : 6494
Views Today : 10158
Who's Online : 36
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/