মঙ্গলবার, ১১ অগাস্ট ২০২০, ০৯:১৭ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
দিনাজপুরের বিরামপুরে কলেজ ছাত্রী  ধর্ষণে স্বীকার দুঃসাহসী ক্ষুদিরামের বলিদান যুব সম্প্রদায়ের কাছে চিরঅমর হয়ে আছে – মোঃআজিজুল হুদা চৌধুরী সুমন  আওয়ামী লীগে কোন্দল নাই আছে নেতৃত্বের প্রতিযোগীতা হঠাৎ স্বর্ণ-রুপার দাম কমতে শুরু করেছে অবৈধ স্থাপনা ২৪ ঘণ্টার মধ্যে দখলমুক্ত করার নির্দেশ সিনহা হত্যাকাণ্ডের পর ‘ডাকাত’ বলে প্রচার করেছিল এরা এএসআইকে চড় মারার ঘটনায় সেই ওসি প্রত্যাহার আগস্টেই ২ আসনের নির্বাচন তফসিল ঘোষণা পাঠাওয়ের ফাহিমের খুনি হাসপিলের সঙ্গে ‘রহস্যময়’ তরুণী (ভিডিও) মেজর সিনহা হত্যায় আরও ৩ জন গ্রেফতার টানা ৭ ঘণ্টা বৃষ্টিতে ভিজে মানুষের জীবন বাঁচালেন এক নারী লেবানন সরকারের পদত্যাগ পত্র গ্রহন করেছেন প্রেসিডেন্ট আউন পুলিশের চাকরি ছিল ওসি প্রদীপের কাছে ‘আলাদিনের চেরাগ’ বেকিং নিউজ…পরিচয় মিলেছে প্রদীপের সেই আইনি পরামর্শদাতার ভারতে একদিনে আক্রান্ত ৫৩ হাজারের বেশি

ভারতীয় নারীকে বিয়ে-প্রতারণা, বিএনপি নেতা গ্রেপ্তার

ভারতীয় এক নারীকে গোপনে বিয়ে করে প্রতারণার অভিযোগে মনিরুল আহসান তালুকদার নামে এক বিএনপি নেতাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সোমবার (৬ জুলাই) সকালে রাজধানীর বনশ্রী থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি বরিশাল মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি।

জানা যায়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে কলকাতার মেয়ে মলির সঙ্গে পরিচয় হয় মনিরুল আহসান তালুকদারের। এরপর তারা দু’জন ২০১৩ সালে বিয়েও করেন। বিয়ের পর দীর্ঘদিন সংসার জীবন অতিবাহিত করার পর গত বছর বাংলাদেশে ফিরে আসেন মনিরুল। তারপর আর কলকাতা ফিরে যাননি তিনি। তাই মলি তার স্বামীর খোঁজ নিতে তিনবার বাংলাদেশে আসেন। সবশেষ ১৩ মার্চ বাংলাদেশে আসেন তিনি। অনেক খোঁজাখুঁজির পর স্বামী মনিরুলের সন্ধান পান। পরে ঠিকানানুযায়ী গিয়ে দেখতে পান সেখানে তার স্ত্রী-সন্তান রয়েছেন। মলিকে দেখে অবাক হন মনিরুল। অস্বীকার করেন স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক। পরবর্তীতে মলি থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করলে সোমবার সকালে রাজধানীর বনশ্রী থেকে মনিরুলকে গ্রেপ্তার করে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশ।

বিএনপি নেতা মনিরুল এর আগেও আরো দু’টি বিয়ে করেছেন। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

ভুক্তভোগী মলি জানান, বিয়ের আগে মনিরুলের কথা মতো হিন্দু ধর্মত্যাগ করেন তিনি। নাম রাখা হয় মলি আহসান তালুকদার। এরপর দু’জনের সম্পর্ক ভালোই চলছিল। এভাবে কেটে যায় প্রায় সাত বছর। গত বছরের ২২ নভেম্বর বাংলাদেশে আসেন মনিরুল। এরপর আর কলকাতা ফিরে যাননি, যোগাযোগও করেননি। স্বামীর খোঁজে বাংলাদেশে এসে জানতে পারেন, তার স্ত্রী-সন্তান আছে।

তিন মাসের বেশি সময় ধরে ঢাকায় মানবেতর জীবনযাপন করছেন তিনি। কলকাতাতেও ফিরে যেতে পারছেন না লোকলজ্জার ভয়ে। নিজের সঙ্গে এমন প্রতারণার বিচার দাবি করেছেন তিনি।

তিনি আরো জানান, তার সরলতার সুযোগে তার কাছ থেকে প্রায় ৩০-৪০ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন মনিরুল। সেগুলো ফেরত দেননি। টাকা নয়, স্বামীর অধিকারের দাবি নিয়েই তিনি বাংলাদেশে এসেছেন। নিজের সঙ্গে এমন প্রতারণার ন্যায় বিচার দাবি করেছেন তিনি।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জহিরুল ইসলাম বলেন, ভারতীয় এক নারীর অভিযোগের ভিত্তিত রাজধানীর বনশ্রী থেকে প্রতারক মনিরুলকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 deshersangbad.com/
Design & Developed BY Freelancer Zone