শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ০৩:২০ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
মিতু হত্যা: আসামিদের পালানো ঠেকাতে জারি হচ্ছে সতর্কতা বরিশালে বিএনপির পক্ষ থেকে ঈদ সামগ্রী বিতরণ তানোর উপজেলা চেয়ারম্যানের ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় বাংলাদেশ হিন্দু পরিষদের শ্যামনগর উপজেলা শাখার কমিটি গঠন  বঙ্গবন্ধুর পূর্ব বংশধর আল্লাহর  ওলি ছিলেন- ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান দুলাল এমপি প্রেসবিজ্ঞপ্তি -ফিলিস্তিনের হত্যাকান্ডের জন্য জংগী সন্ত্রাসী গোষ্ঠী  হামাস দায়ী- অবিলম্বে ইজরাইল”কে স্বীকৃতি দিন —কমরেড সামাদ  ফিলিস্তিনে ইসরায়েলের হামলার প্রতিবাদে বায়তুল মোকাররমে বিক্ষোভ পিতা-মাতার ভরণ-পোষণ আইন ২০১৩ ও শাস্তি? ১২ বছর ভোগদখলে প্রতিকার না চাইলে তামাদি আইনে জমির মালিক তানোরে শিব নদী পাড়ে বিনোদন প্রেমীদের ভিড় ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন চেয়ারম্যান ইয়াকুব আলী কুড়িগ্রামে ঐক্য যুব ফোরাম ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের উদ্যোগে খাদ্য সামগ্রী ও ঈদের পোষাক বিতরণ বিশ্ব ঐতিহ্য ষাটগম্বুজ মসজিদে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত ঈদের দিনেও ইসরাইলি বর্বরতা থেকে রেহাই পায়নি ফিলিস্তিনিরা সারা দেশে উদযাপন করা হচ্ছে পবিত্র ঈদুল ফিতর

মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন হত্যা মামলার রায় আজ বৃহস্পতিবার

 

 

বায়েজীদ (গাইবান্ধা)  :

 

গাইবান্ধা-১ সুন্দরগঞ্জ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য বীরমুক্তিযোদ্ধা মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন হত্যা মামলার রায় আগামীকাল  ২৮ নভেম্বর বৃহস্পতিবার। হত্যার মূল  পরিকল্পনারকারী হিসেবে অভিযুক্ত জাতীয় পার্টির সাবেক সংসদ সদস্য অবসরপ্রাপ্ত কর্নেল ডা. আবদুল কাদের খান ও অন্য আসামিদের সর্বোচ্চ শাস্তি চান লিটনের পরিবার ও সুন্দরগঞ্জবাসী।

 

নিজবাড়িতে আততায়ীর গুলিতে গাইবান্ধা-১ আসনের এমপি মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন নিহতের প্রায় তিন বছর হতে চলেছে। তবে এখনও তার শূন্যতায় পরিবার ও স্বজনরা। এক সময়ে নেতাকর্মীদের আনাগোনায় মুখর থাকতো লিটনের বাড়িটি। এখন তা জনশূন্য। গত ২০১৬ সালের ৩১শে ডিসেম্বর খুন হন লিটন। এখন ওই বাসার সেখানে দেয়ালে টানানো তার ছবি ছাড়া কিছু নেই। স্বজনদের কাছে এখন তিনি শুধুই স্মৃতি। সুন্দরগঞ্জের নেতারাও চান লিটন হত্যায় জড়িতরা সর্বোচ্চ শাস্তি পাক।

ন্যায় বিচারের আশা করছেন আসামিপক্ষের আইনজীবীরা। আর পাবলিক প্রসিকিউটর বলছেন রায়ে সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদ-ই হবে।

 

আসামি পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মো. আবদুল হামিদ প্রমাণের বিভিন্ন কাগজপত্র জাল উল্লেখ করে আশা করছেন আসামিরা খালাস পাবেন। তবে পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) (জেলা ও দায়রা জজ আদালত) অ্যাডভোকেট শফিকুল ইসলাম শফিক বলেন, ‘যেহেতু সব প্রমাণ হয়েছে এই মামলায় সর্বোচ্চ শাস্তি ফাসিই হবে।’

 

২০১৭ সালের ৩০শে এপ্রিল আবদুল কাদের খাঁনসহ আটজনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। ২০১৮ সালের ৮ই এপ্রিল শুরু হয় সাক্ষ্যগ্রহণ। এ পর্যন্ত আদালতে সাক্ষ্য দিয়েছেন মামলার বাদী ও নিহতের স্ত্রীসহ ৫৯ জন।

 

বর্তমানে গাইবান্ধা জেলা কারাগারে আছেন প্রধান আসামি কাদেরসহ পাঁচজন। অভিযুক্তদের মধ্যে একজনের মৃত্যু হয়েছে এবং একজন পালিয়ে গেছে ভারতে। চলতি বছরের ১১ই এপ্রিল হত্যার ঘটনায় অস্ত্র মামলায় কাদের খাঁনের যাবজ্জীবন কারাদ- দিয়েছেন আদালত।

 

Please Share This Post in Your Social Media


বঙ্গবন্ধু কাতরকণ্ঠে বলেন, মারাত্মক বিপর্যয়

বঙ্গবন্ধু কাতরকণ্ঠে বলেন, মারাত্মক বিপর্যয়

https://twitter.com/WDeshersangbad

© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design And Developed By Freelancer Zone