সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ১০:২২ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
স্বামীর ‘বর্বর’ যৌনসঙ্গমে লাশ হলো কিশোরী স্ত্রী হাজী সেলিমের দখলের জায়গা উদ্ধার করলো অগ্রণী ব্যাংক কাউন্সিলর ইরফানের ঘরে যা পেলো র‌্যাব (ছবিতে) ভিডিওতে দেখুন এমপি হাজী সেলিমের ‘অন্দরমহল’ ‘সাম্রাজ্য চালাতে’ সেলিমপুত্রের ঘরে নজিরবিহীন কন্ট্রোল রুম এমপি হাজী সেলিমের বাসায় র‌্যাবের অভিযান, ছেলে এরফানসহ গ্রেফতার ৩ হাজী সেলিমের ছেলের বাসায় গুলি-পিস্তল সহ যা পাওয়া গেল ব্রেকিং_নিউজ: হাজী সেলিমের ছেলে গ্রেপ্তার। অভিযোগ প্রমাণ হলেই বাদ যাবে নাম হাজী সেলিমের হাতে জিম্মি লালবাগ? হাজী সেলিমের ঘটনায় ক্ষুদ্ধ সরকার! অপরাজিত এক মুসলিম ফাইটারের অশ্রুসিক্ত বিদায় মর্গ্যানের বিপক্ষে টস জিতল রাহুল, কলকাতা হারলেই বাদ চরমোনাই পীরের নেতৃত্বে ফ্রান্স দূতাবাস ঘেরাওয়ের ঘোষণা প্রোটিয়া ক্রিকেট থেকে সবার পদত্যাগের সিদ্ধান্ত

যুক্তরাষ্ট্রে স্ত্রীকে হত্যার পর প্রবাসী বাংলাদেশির আত্মহত্যা

যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারিজোনা অঙ্গরাজ্যের ফিনিক্সে স্ত্রীকে হত্যার পর আত্মহত্যা করেছেন আবুল আহসান হাবিব নামের এক বাংলাদেশি। স্থানীয় সময় রোববার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ফিনিক্স শহরের লাভিন এলাকার বেসলাইন রোড এবং ৩৯ তম অ্যাভিনিউয়ের কাছে খুন-আত্মহত্যার এ ঘটনাটি ঘটে। মার্কিন সংবাদমাধ্যম বাংলা প্রেস এ খবর জানিয়েছে।

ফিনিক্স পুলিশ জানিয়েছে, স্ত্রী সৈয়দা সোহেলি আক্তার (৪৩) ও তার স্বামী আবুল আহসান হাবিবকে (৫২) এর মধ্যে সাংসারিক নানা সমস্যা নিয়ে ঝগড়া চলছিল। এক পর্যায়ে হাবিব বাড়ি থেকে তার স্ত্রীকে সরিয়ে নেওয়ার জন্য ফোন করে পুলিশ ডাকেন। যদিও সে সময় তিনি সেখানে ছিলেন না। তবে ৯১১ নাম্বারে ফোন করার সময় তার প্রাপ্ত বয়স্ক পুত্র তার সাথে বাড়িতে ছিলেন বলে জানা গেছে।

পুলিশ কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে এসে তার বিরুদ্ধে প্রতিরক্ষামূলক আদেশ পাওয়ার বিষয়ে তার সাথে কথা বলেন। এর আগে একবার হাবিব ও তার পুত্র তার বাড়ি থেকে চলে গেলে পরে তারা বাসায় ফিরে আসেন বলে জানা গেছে।

স্ত্রী যখন ৯১১-এ ফোন করছিল ঠিক সেই সময়েই গুলির শব্দ শুনতে পেয়েছেন পুলিশ প্রেরণকারীরা। এসময়ের মধ্যেই খুন-আত্মহত্যার ঘটনাটি ঘটেছে। পুলিশ এসে সোহেলি ও হাবিবকে মৃত অবস্থায় দেখতে পায়।

ফিনিক্স পুলিশ বিভাগের সার্জেন্ট টমি থম্পসন এ ঘটনাকে অবশ্যই একটি বিয়োগান্তক ঘটনা বলে উল্লেখ করেছেন। প্রতিবেশীরা রোববার সকালে তাদের বাড়ির বাইরে বিশাল অপরাধের একটি দৃশ্য দেখে তাদের প্রতিক্রিয়া পুলিশকে জানিয়েছেন।

প্রতিবেশি ক্যাথরিন রদ্রিগেজ জানান, দফায় দফায় কেবল পুলিশের গাড়ি এবং চারপাশের লোকেরা আসছিল। আমরা শুধু দেখছিলাম। এমনকি আমাদের দরজা জানালার পিছন থেকে এটি দেখতে পাচ্ছিলাম। ধারনা করছিলেমাম যে সেখানে কিছু একটা দুর্ঘটনা ঘটেছে।

পারিবারিক সহিংসতা পরামর্শক সেন্টারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মরিয়াহ মাহুন জানান, আরিজোনা জুড়ে পারিবারিক সহিংসতায় ক্ষতিগ্রস্থদের পক্ষে সমর্থন করেছেন এবং বলেছেন যে সাহায্যের আহ্বান হ্রাস পাচ্ছে, তবে মহামারীটি সহিংসতা বাড়িয়ে তুলতে পারে বলে উল্লেখ করেন মরিয়াহ।

তিনি বলেন, আসলে গত আড়াই বছরে প্রথমবারের মতো আমি বিছানা পেয়েছি, তবে আমরা ঘরোয়া সহিংসতার কারণে মৃত্যুর ঘটনা বাড়িয়ে দেখছি। সুতরাং আমাকে কী বলছে যে মহামারী এবং বেঁচে থাকা ব্যক্তির মধ্যে বিচ্ছিন্নতা।আমরা যখন দেখছি তখন অপরাধীর তাত্পর্য থাকে না, মহামারীটি কী বাড়তে থাকে বা ঘরোয়া সহিংসতা বাড়িয়ে তোলে, মরিয়াহ মুহুন এ ব্যাপারে ব্যাখ্যা করেছিলেন।

ফিনিক্সে, পুলিশ বলেছে যে বছরের প্রথমার্ধে প্রায় ১শতটির মতো গৃহস্থালি সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। ২০১৯ সালে একই সময়ের ফ্রেমের তুলনায় এটি শতকরা ১৪০ শতাংশ বেশি।

প্রসঙ্গত, ২০০৮ সালে পারিবারিক ভিসায় যুক্তরাষ্ট্রে এসে দুই পুত্রসহ এই দম্পতি আরিজোনায় বসতি গড়েন। স্বামী-স্ত্রী উভয়েই কর্মজীবী। সোহেলী আকতারের একটি বিউটি পারলার রয়েছে। স্বামী কাজ করতেন একটি রেস্টুরেন্টে। করোনার কারণে উভয়েই বেকার হয়ে পড়েছেন। অর্থনৈতিক দৈন্যতার ফলে এ ঘটনাটি ঘটেছে বলেও অনেকেই ধারণা করেছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

37678146
Users Today : 8854
Users Yesterday : 8769
Views Today : 24878
Who's Online : 78
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design & Developed BY Freelancer Zone