মঙ্গলবার, ০৯ মার্চ ২০২১, ১০:৪০ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
নোয়াখালী সুবর্ণচরের বিএনপি নেতা এনায়েত উল্লাহ বি কম এর ইন্তেকাল নওগাঁর মহাদেবপুরে মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের গণকবর প্রাচীর দিয়ে সংরক্ষণের দাবি বীর মুক্তিযোদ্ধাদের শিক্ষা জাতীয় করন নিয়ে মনের কষ্ট ফেসবুকের মাধ্যমে ব্যক্ত করলেন অধ্যক্ষ এস এম তাইজুল ইসলাম কুলিয়ারচরে দিনব্যাপী ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উদযাপন ২৫ ও ২৬ মার্চ হত্যাকাণ্ড চালিয়েছিল জিয়া মমতাকে ছেড়ে আসা মিঠুন এখন মোদির দলে সন্তান কোলে নিয়েই দায়িত্ব সামলাচ্ছেন নারী ট্রাফিক পুলিশ স্ত্রীসহ করোনায় আক্রান্ত সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট আসাদ মিয়ানমারে রাস্তায় হাজারো হাজার লোকের বিক্ষোভ স্কুল শিক্ষককে বিয়ে করলেন বিশ্বের শীর্ষ ধনী নারী প্রতারণার মামলায় ডা. সাবরিনার জামিন আবেদন নামঞ্জুর চট্টগ্রামে প্রবাসী হত্যায় ৯ জনের মৃত্যুদণ্ড সামাজিক মাধ্যমে কুরুচিপূর্ণ লেখা সতর্ক করলেন প্রধান বিচারপতি নিবন্ধনধারীদের এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়োগের নির্দেশ ১৫ দিনের মধ্যে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধনধারীদের নিয়োগ

‘যুবলীগের প্রেসিডিয়াম পদ ৫ কোটি টাকায় বিক্রি হয়েছে ২০১২ সালে’

যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য তাজউদ্দিন আহমেদ বলেছেন, ‘আমি এখন এই যে পদ পেয়েছি তা ২০১২ সালে পাঁচ কোটি টাকায় বিক্রি হয়েছে। ব্যাংকের চেয়ারম্যান, ব্যাংকের ডিরেক্টর, শিল্পপতি এরা প্রেসিডিয়াম মেম্বার হয়েছেন। কিন্তু আমার এই পদ পেতে পাঁচ টাকাও খরচ হয়নি। বিনাপয়সায় এই পদ পেয়েছি। তবে আমার পরিশ্রম ছিল। আমি এক নম্বর জায়গায় সমস্ত কাগজপত্র দিয়েছি। এরপর তদন্ত হয়েছে। আমার অতীত কর্মকাণ্ড যাচাই বাছাই হয়েছে। এরপর আমি এই পদ পেয়েছি।’

শুক্রবার (২২ জানুয়ারি) রাতে পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি একথা বলেন। তাজউদ্দিন আহমেদের বাড়ি মঠবাড়িয়া শহরের উত্তর মিঠাখালী এলাকায়। যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য হওয়ার পর ১৬ জানুয়ারি মঠবাড়িয়ায় আসেন তাজউদ্দিন আহমেদ। এ সময় তাকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়।

তাজউদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘আওয়ামী লীগের কাউন্সিল তিন বছর পরপর হয়ে যায়। আর যুবলীগের সম্মেলন হয় ৮-৯ বছর পর। তবে লেগে থাকতে হয়। আমি মঠবাড়িয়ায় স্কুল থেকে কলেজ, কলেজ থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, সেখান থেকে যুবলীগের রাজনীতিতে। আমি মঠবাড়িয়ার রাস্তায় মিছিল-মিটিংসহ ঢাকার রাজপথে মিছিল-মিটিং করে এ পর্যন্ত এসেছি। আমি হঠাৎ করে এ পর্যন্ত আসিনি। আমি যুবলীগের বিভিন্ন পদে তিন তিন বার। এর আগে আমি কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগে দুই বার ছিলাম।‘

সাংবাদিকদের উদ্দেশে তাজউদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘প্রয়াত জাতীয় নেতা মহিউদ্দিন আহমেদের জন্ম এই মঠবাড়িয়ায়। এখানকার রাজনৈতিক পরিস্থিতি আপনারা ভালো জানেন। কী তার চিন্তাচেতনা ছিল, আর আজ মঠবাড়িয়ায় কী হচ্ছে! মাদকে ছেয়ে গেছে এই মঠবাড়িয়া। ঢাকায় বসে যখন কোনও মন্ত্রীর কাছে যাই তখন প্রশ্ন করেন আপনাদের এলাকায় এত মাদক কেন? এত খুনোখুনি কেন? মাদকের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে আপনাদের সোচ্চার হতে হবে। মঠবাড়িয়ার রাজনীতির সুষ্ঠধারা ফিরিয়ে আনতে আপনারাও ভূমিকা রাখবেন এ দাবি আপনাদের কাছে। রাজনীতির খারাপ উদাহরণ থেকে আমাদের বেরিয়ে আসতে হবে।’

তাজউদ্দিন আহমেদ বলেন, ’মানুষের ভালোবাসা অর্জন করে রাজনীতি করতে হবে। খুনখারাবি করে মানুষকে পিটিয়ে রাজনীতি, এটা সাময়িক করা যায়। মঠবাড়িয়ায় আমরা যারা শান্তিপ্রিয় তারা থাকবো। মঠবাড়িয়ায় যারা সন্ত্রাস করে তারা থাকবে না। তারা পালিয়ে যাবে। প্রধানমন্ত্রীকে চাপ প্রয়োগ করে, বলপ্রয়োগ করে কেউ কিছু আদায় করতে পারেনি, ভবিষ্যতেও পারবে না।’

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38374720
Users Today : 1440
Users Yesterday : 4902
Views Today : 7565
Who's Online : 54
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/