শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ১০:২৬ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
ডিস লাইনের তার নিয়ে শিশু ছাত্রকে পেটালেন মাদ্রাসা শিক্ষক লক্ষ্মীপুরে সড়ক খোঁড়াখুঁড়িতে গ্যাস ও বিটিসিএল লাইন বিচ্ছিন্ন যৌন হয়রানির দায়ে ডিসি অফিস সহকারীর কারাদণ্ড প্রতিবেশী দেশগুলোর সমস্যা আলোচনার মাধ্যমে সমাধান করা উচিত: প্রধানমন্ত্রী দুধের স্বাদ ঘোলে  পটুয়াখালীতে অবৈধ ভেক্যু পুড়িয়ে ফেলছে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট।  বীর মুক্তিযোদ্ধা হাবিবউল্লাহ জাহিদ (মিঞা) স্বরণে – – – – সাফাত বিন ছানাউল্লাহ্ সাঁথিয়ায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের জমি জাল দলিল করে হাতিয়ে নেয়ার চেষ্টায় একজন আটক কুড়িগ্রামে পুলিশের প্রচেষ্টায় প্রাণ রক্ষা পেল বিরল প্রজাতির একটি গন্ধগোকুল গাইবান্ধাকে নান্দনিক শহর হিসাবে গড়ে তোলা হবে পটুয়াখালীতে নির্মাণাধীন সেতু থেকে পড়ে নিহত ০১। সাপাহারে মিশ্র ফল বাগানে কৃষক সাখাওয়াত হাবীবের ভাগ্য বদল পটুয়াখালীতে পুলিশের অভিযানে ১ কেজি ৩৬৭ গ্রাম গাঁজাসহ আটক ৩. স্বাধীনতাবিরোধী মৌলবাদী অপশক্তির শাহরিয়ার কবিরের নামে অভিনব ষড়যন্ত্র: ১১ এপ্রিল প্রথম ধাপে ৩৭১টি যেসব ইউনিয়নে ভোট

রাবিতে মানবন্ধনে শিক্ষার্থীরা ‘ব্যাক্তিগত আক্রোশেই স্যারকে ফাঁসানোর চেষ্টা’

রাবি প্রতিনিধি: দুর্নীতির বিরুদ্ধে আন্দোলন করায় রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক এস একরাম উল্লাহর বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি গঠনের প্রতিবাদ ও ৬দফা দাবি জানিয়ে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) সাধারণ শিক্ষার্থীরা। মঙ্গলবার সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ সিনেট ভবনের সামনে এ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।
মানববন্ধনে বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী আবু হাশেমের সঞ্চালনায় বক্তারা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি তার ব্যাক্তিগত আক্রোশের কারণেই ষড়যন্ত্রমূলকভাবে ড. একরাম উল্লাহ স্যারকে ফাঁসানোর চেস্টা করছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেখানে দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স। সেখানে দিনের পর দিন দুর্নীতির সীমা অতিক্রম করে চলেছে রাবি প্রশাসন। ঠিক তারই প্রতিবাদ করতে গিয়ে ড. এক্রাম স্যারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক অভিযোগ ও তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।
আরো বলেন, সংবিধানের ৩৯ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী রাষ্ট্রের যে কোন কিছুতে সবাই সমালোচনা করার অধিকার রাখে। ঠিক তারই উপর ভিত্তি করে ড. এক্রাম স্যার ভিসিকে সমালোচনা করেছেন। কিন্তু ভিসি সংবিধান না মেনেই তার বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন। দুর্নীতির বিরুদ্ধে আন্দোলন দমিয়ে রাখতে এবং নিজেদের দোষকে আড়াল করার জন্য এমন একটি জঘন্য কাজের আশ্রয় নিয়েছেন বলে দাবি করেন বক্তারা
এ সময় মানববন্ধনে সাধারণ শিক্ষার্থীরা ৬দফা দাবি পেশ করেন। দাবিগুলো হলো- অধ্যাপক একরাম উল্লাহর বিরুদ্ধে যে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে সেটি দুই দিনের মধ্যে প্রত্যাহার, অন্যথায় আমরণ অনশন কর্মসূচি অব্যহত। বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত, প্রত্যেক আবাসিক হলে সিসি ক্যামেরার বাজেট অতিদ্রুত বাস্তবায়ন, ক্যাম্পাসে বহিরাগতদের প্রবেশ নিষিদ্ধ, অহেতুক কোন শিক্ষার্থীকে হয়রানিমূলকভাবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন হস্তক্ষেপ না করা, ক্যাম্পাসকে দুর্নীতিমুক্ত করা এবং যারা দুর্নীতির সাথে জড়িত তাদেরকে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত।
এসময় মানববন্ধনে আরো বক্তব্য রাখেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী জাহিদুল ইসলাম, মুজাহিদুল ইসলাম আকাশ, আব্দুর রহমান প্রমুখ।
মানববন্ধনের আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিরাজী ভবনের সামনে থেকে একটি র‌্যালি বের করে ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করেন। এসময় প্রায় দুই শত পঞ্চাশ জন শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।
প্রসঙ্গত, অধ্যাপক এক্রাম উল্লাহর বিরুদ্ধে ৯অক্টোবর ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে’ শিক্ষার্থীদের মানববন্ধনে বহিরাগত আনার অভিযোগে তদন্ত কমিটি গঠনক করেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।###

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38354852
Users Today : 1495
Users Yesterday : 6146
Views Today : 5727
Who's Online : 38

© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/