শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ১০:২৯ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
মুসলিম প্রধান ১৩ দেশের ভিসা বন্ধ করল আমিরাত বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত ৬ কোটি ৭ লাখ ছাড়াল ভারতে ঘূর্ণিঝড় নিভার হানা বাস-ট্রাক সংঘর্ষে ৪১ শ্রমিকের মৃত্যু কাশ্মিরে বিদ্রোহীদের গুলিতে দুই ভারতীয় সেনা নিহত আ. লীগের মধ্যে কিছু হাইব্রিড নেতাকর্মী ঢুকে পড়েছে: মির্জা আজম বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে নবনিযুক্ত ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর শ্রদ্ধা ভ্যাকসিন আসার সাথে সাথেই বাংলাদেশ পাবে এক বাংলাদেশির নামে সিঙ্গাপুরে শত শত কোটি টাকার সন্ধান নতুন আতঙ্ক ধুলা করোনা মোকাবিলায় ২১টি প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা আবাসিকে নতুন গ্যাস সংযোগ পাবেন গ্রাহকরা পাথরঘাটা উপজেলার ভূমি অফিস পরিদর্শনে ডিএলআরসি : এলডি ট্যাক্স সফটওয়ারের ৩য় পর্যায়ের পাইলটিং কার্যক্রম বাস্তবায়নে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি সম্পন্নের নির্দেশ নিয়োগবিধি সংশোধন করে বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবিতে বন্দরে স্বাস্থ্যকর্মীদের কর্মবিরতি পালণ তারেক রহমান এর ৫৬তম জন্মদিন উপলক্ষে গাবতলী কাগইলে বিএনপি ও অঙ্গদল উদ্যোগে দোয়া মাহফিল

রিশিকুল ইউপি নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাশী শফিকুল

 

আলিফ হোসেন, তানোর :
রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি শফিকুল সরকার ওরফে মামা শফিকুলকে জনপ্রতিনিধি হিসেবে দেখতে চাই গোদাগাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা ও কর্মী-সমর্থকগণ। আসন্ন রিশিকুল ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী শফিকুল সরকার সকলের কাছে সমর্থন ও দোয়া প্রার্থী। কারণ বর্তমান চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলাম ওরফে টুলুর বিরুদ্ধে অনিয়ম-দুর্নীতি, ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ রয়েছে, এছাড়াও শারীরিকভাবে এখন সে প্রতিবন্ধী। এসব বিবেচনায় ইউপিবাসী তাকে আর চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চাই না। তৃণমূলের অভিমত, আদর্শিক ত্যাগী ও নিবেদিতপ্রাণ নেতা হিসেবে শফিকুল সরকার সব শ্রেণী-পেশার মানুষের কাছে সমান জনপ্রিয় ও সমাদৃত। এলাকার ১০ বছরের শিশু থেকে ৬০ বছরের বৃদ্ধ সব বয়সী মানুষের কাছেই তিনি শফিকুল মামা বলে পরিচিত।

জানা গেছে,

 

গোদাগাড়ী উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি হলেও তানোর-গোদাগাড়ী অঞ্চলের সব জায়গায় তার সরব বিচরণ। তিনি দীর্ঘদিন ধরেই তৃণমূল থেকে রাজনীতি করে আসছেন এখানো তৃণমূলেই রয়েছেন। কোনো লোভ লালসা বা অর্থের মোহ তাকে আদর্শচ্যুত করতে পারেনি। তৃণমূলের নেতা ও কর্মী-সমর্থকদের আশ্রয় স্থল বলেও শফিকুল মামাকে বিবেচনা করা হয়।  অথচ এখানো রাজনীতিতে তাকে কোনো জায়গা দেয়া হয়নি। তাই এবার এই জনপদের আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের তৃণমূলের একটাই দাবি, আসন্ন রিশিকুল ইউপি নির্বাচনে শফিকুলকে চেয়ারম্যান পদে নৌকার প্রার্থী করা হোক। কারণ তারা যে কোনো মুল্য শফিকুলকে চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চাই। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি হিসেবে নির্বাচিত হবার মতো সকল যোগ্যতা থাকার পরেও মনোনয়ন প্রাপ্তির অশুভ প্রতিযোগীতায় টিকতে না পেরে তাকে বার বার সরে আসতে হয়েছে। তবে এবার তৃণমূল কোনো অবস্থাতেই তাকে হারাতে চাই না তাকে জনপ্রতিনিধি হিসেবে দেখতে চাই।

জানা গেছে, গোদাগাড়ী আওয়ামী যুবলীগের (সাবেক) সভাপতি, বজ্রকন্ঠের অধিকারী বর্ষিয়ান যুবলীগ নেতা, রাজশাহী অঞ্চলের শ্রেষ্ঠ বক্তা ও সবার প্রিয় শফিকুল সরকার ওরফে মামা শফিকুলকে ঘিরে রিশিকুল ইউপি আওয়ামী লীগ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতা ও কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে রীতিমতো বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ ফিরে এসেছে প্রাণচাঞ্চল্য। বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের বিভিন্ন অনিয়ম-দূর্নীতি, মতার অপব্যবহার ও সেচ্ছাচারিতার অতিষ্ঠ হয়ে এসবের প্রতিবাদে দল ত্যাগ করেন। এক সময় তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে আনুষ্ঠানিক ভাবে আওয়ামী লীগে যোগদান করেন। পরবর্তীতে সময়ে তাকে নানা প্রলোভন দিয়েও বিএনপি পুনঃরায় দলে ভেড়াতে ব্যর্থ হয়ে তারা ত্যাগী ও নিবেদিতপ্রাণ এই নেতার ওপর জেল-জুলুস-মামলা-হামলাসহ নানা নির্যাতন করেছেন। কিন্ত্ত বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত এই নেতা আর কখনই আদর্শচ্যুত হয়নি, ছেড়ে যায়নি আওয়ামী লীগ। একাদ্বশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় সাংসদ ওমর ফারুক চৌধূরীকে আবারো বিপুল ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী করতে তিনি ব্যাপক অবদান রেখেছেন।বজ্রকন্ঠের অধিকারী শফিকুল সরকারের বক্তব্য শোনার জন্য এখানো তাঁর ভক্ত-অনুরাগি ও হাজারো মানুষ অপেক্ষায় খাকেন। এখানো তাঁর বক্তব্য শুনলে মনে পড়ে যায় ৫২-এর ভাষা আন্দোলন, ৭১-এর মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধুর সেই ঐতিহাসিক ২৭ মার্চের ভাষণ ও ৯০-এর গণঅভূখ্যানের কথা। এখানোর তাঁর বক্তব্য শুনে অনেক আওয়ামী লীগবিরোধী আওয়ামী লীগের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হয়। এবার তাকে তৃণমূল রিশিকুল ইউপি চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চাই।

শফিকুল সরকার বলেন, রাজনীতিতে তরুণ প্রজন্মের মেধা কিভাবে কাজে লাগানো যায় আমরা সেই চেষ্টা করছি। বর্তমানে তরুণ প্রজন্ম রাজনীতির প্রতি চরম অনিহা দেখাচ্ছেন। আমরা চেষ্টা করছি কিভাবে তরুণ প্রজন্মকে আধূনিক তথ্যসমৃদ্ধ করে রাজনীতির প্রতি পজেটিভ ধারণা দেয়া যায়। আমরা সেই লক্ষ্য পূরুণের উদ্দেশ্যে সেই পথ ধরেই এগিয়ে চলেছি।

তিনি বলেন, এক সময় বিশেষ করে যুবলীগের নেতাকর্মীদের প্রতি এলাকার সাধারণ মানুষের নেতিবাচক ধারণা ছিল। স্থানীয় সাংসদ ও সাবেক শিল্প প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব ওমর ফারুক চৌধূরীর নেতৃত্বে ও দিক নির্দেশনায় আমরা চেষ্টা করছি সেই ধারণা পাল্টে দিতে, ইতিমধ্যে আমরা অনেকটা সফলও হয়েছি। সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে দলীয় কর্মকান্ড কিভাবে ডিজিটালাইজড ও এই প্রজন্মের নতুন ভোটারদের আওয়ামী লীগের পক্ষে নিয়ে আশা যায় সে চিন্তা মাথায় নিয়ে গবেষণা ও কাজ শুরু করেছি। রাজনীতিতে কিভাবে পরিবর্তন আনা যায়, মেধাভিত্তিক রাজনীতি প্রচলন কিভাবে পুনরায় করা যায়, শিাঙ্গনের অস্থিরতা কিভাবে দুর করা যায় এসব নানা বিষয়ে আমরা নতুন কিছু আবিস্কারের চেষ্টা করছি। তিনি বলেন, স্থানীয় সাংসদ ও সাবেক শিল্প প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব ওমর ফারুক চৌধূরী রাজনৈতিক দূরদর্শি সম্পন্ন সৃষ্টিশীল মানুষ। তিনি রাজনীতিকে অর্থের কাছে নয় বরং মেধার কাছে জিম্মি রাখতে চান। তাঁর দিক নির্দেশনায় আমরা যুবলীগের নেতাকর্মীদের সেইভাবে গড়ে তোলার কাজ শুরু করেছি। জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং গণতন্ত্রের মানসকন্যা জননেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী  শেখ হাসিনা এবং মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসের প্রতি দুর্বল হয়ে পড়েন। এক সময় জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রানিত হয়ে তিনি আওয়ামী যুবলীগের লীগের রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হয়েছেন।  তিনি বলেন, সাধারণ মানুষের কল্যাণে আজীবন কাজ করে যেতে চাই। তিনি বলেন, দেশ, দেশের মানুষ, নেতা ও দলের কাছে থেকে কি পেলামা বা কি পেলাম না সেটা না ভেবে বরং আমি বা আমরা দেশ, দেশের মানুষ, নেতা ও দলের প্রতি কি অবদান রাখতে পেরেছি বা পারিনি কোনো পারিনি সেটা অন্তরে রেখে কাজ করতে হবে। তিনি তৃণমূলের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন, দল, নেতা ও নেতৃত্বের প্রতি অবিচল আস্থা রেখে কাজ করে যেতে হবে। তিনি বলেন, নেতা ও নেতৃত্বর সঙ্গে বেঈমানী করা যাবে না।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

37864682
Users Today : 2544
Users Yesterday : 2178
Views Today : 13371
Who's Online : 35
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design & Developed BY Freelancer Zone