সোমবার, ০৩ অগাস্ট ২০২০, ০৯:৩৪ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
পোরশায় ঈদ আনন্দ ভ্রমনে বেড়িয়ে ভটভটি উল্টে এক শিশু নিহত ও আহত ৮ তীব্র গরমে অতিষ্ঠ হয়ে পড়ছে দক্ষিণ সুনামগঞ্জের জন-জিবন রৌমারীতে করোনা উপসর্গ নিয়ে পুলিশ সদস্যর মৃত্যু কমে গেছে পরীক্ষা, আগস্টে বাড়তে পারে করোনা খেলোয়াড়ের সঙ্গে প্রেম নিয়ে মুখ খুললেন তাপসী রিয়ার সঙ্গেই টার্গেট বাঙালি মেয়েরা, মুখ খুললেন স্বস্তিকা-নুসরাত করোনা ঝুঁকির মধ্যেও বিনোদন প্রেমীদের ভিড় সুজনের বিরুদ্ধে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ দোকানপাট খোলা ও চলাচলের নতুন আদেশ জারি বিশ্ব গণমাধ্যম এবং রাষ্ট্রনায়কদের চোখে বঙ্গবন্ধু করোনায় মৃত্যু কমায় কিছুটা স্বস্তিতে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জুলাই মাসে রেকর্ড ২৬০ কোটি ডলার রেমিট্যান্স এলো দেশে করোনায় আরও ৩০ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৩৫৬ করোনা আক্রান্ত এমপি সালমা চৌধুরীকে আনা হচ্ছে ঢাকায় ধামরাইয়ে বাস-পিকআপ ভ্যানের সংঘর্ষ, নিহত ৩

রোহিঙ্গারা কেমন আছে?- শীর্ষক নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবিনার

 

 

নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাউথ এশিয়ান ইন্সটিটিউট অফ পলিসি এন্ড গভর্নেন্স (এসআইপিজি) এবং সেন্টার ফর পিস স্টাডিজ (সিপিএস) এর উদ্যোগে ৩০ জুন ২০২০ একটি আন্তর্জাতিক ওয়েবিনার অনুষ্ঠিত হয়।সকাল ১১টায় ‍জুম এ শুরু হওয়া এ ওয়েবিনারের আলোচনার বিষয় ছিলবাংলাদেশে রোহিঙ্গাদের সমসাময়িক অবস্থা বিশ্লেষণ।

 

সেন্টার ফর পিস স্টাডিজ (সিপিএস) এর পরামর্শক ড. ক্যাথরিন লি এর সূচনা বক্তব্যের পরবাংলাদেশে রোহিঙ্গাদের সমসাময়িক অবস্থা নিয়ে বক্তব্য উপস্থাপন করেন বাংলাদেশে জাতিসংঘের আবাসিক প্রতিনিধি মিয়া সেপ্পো। বক্তব্যে তিনিসরকার এবং আন্তর্জাতিক সংস্থার যৌথতার উপর জোর দেন। তিনি বলেন, কভিড-১৯ অনেক কিছুই থামিয়ে দিয়েছে কিন্তু যুদ্ধ থামাতে পারেনি। মায়ানমার এখনো তার দেশে বিভিন্ন জনগোষ্ঠীর উপর জুলুম নির্যাতন চালাচ্ছে। তিনি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কভিড সক্রান্ত সঠিক তথ্য পরিবেশনের উপর গুরুত্ত্বারোপ করেন।এরপর ড. ইশরাত জাকিয়া সুলতানা রাষ্ট্রহীনতার মাঝে করোনাকালে  রোহিঙ্গাদের মধ্যে আতঙ্ক, অসহায়ত্ব, ঝুঁকি, ও অনিশ্চয়তা নিয়ে তাদের ভাবনা-দুর্ভাবনার কথা বলেন। তিনি এর সাথে রোহিঙ্গাদের ঝুঁকি আর বৈষম্যের শিকার হবার বিষয়টিও নিয়ে আসেন। তিনি বলেন, বিশেষ করে করোনাকলে রোহিঙ্গাদের অসহায়ত্ব ও ঝুঁকি ক্রমাগত বাড়ছে। অপরদিকেএসআইপিজি’র সিনিয়র ফেলো মো. শহিদুল হক আন্তর্জাতিক আদালত কর্তৃক রোহিঙ্গাদের বিচারের রায় এর বাস্তবায়ন ও তার স্বচ্ছতা নিশ্চিত করার কথা বলেনযেখানে তিনি মায়ানমারে রোহিঙ্গাদের জন্য একটি নিরাপদ স্থান তৈরির উপর গুরুত্ব আরোপ করেন। জাতিসংঘ নিরাপত্তা কাউন্সিল যেন রোহিঙ্গাদের নির্যাতনের বিষয়ে মায়ানমারকে বিচারের কাঠগড়ায় নিয়ে আসতে পারে, সে বিষয়ে আরো স্বচ্ছতা নিশ্চিত করার দিকেও নজর দিতে বলেন।

 

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন সম্পর্কে ইউএনএইচসিআর বাংলাদেশের রিপ্রেজেন্টেটিভ স্টিভেন করলিস বলেন, জাতিসংঘ ও অন্যান্য সংস্থার অর্জন খুবই সীমিত, কিন্তু আমাদের সকলের চেষ্টা করতে হবে। একই সাথে, রোহিঙ্গাদের বোঝাতে হবে তারা যদি মুক্তভাবে চলতে চায়, বাচ্চাদের স্কুলে পাঠাতে চায়, নাগরিকত্ব পেতে চায় তাহলে তাদের অবশ্যই মায়ানমার ফিরে যেতে হবে। সেজন্য সেখানেও অনুকুল পরিবেশ তৈরী করেতে হবে। এ জন্য সকলপক্ষকে একসাথে কাজ করতে হবে।

 

সিপিএস এর সদস্য ও রাজনীতি ও সমাজবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. বুলবুল সিদ্দিকীর সঞ্চালনায়এ অনুষ্ঠানেআরো উপস্থিত ছিলেনএসআইপিজি’র পরিচালক অধ্যাপক এস কে. তৌফিক এম. হক সহ সেন্টার ফর পিস স্টাডিজ (সিপিএস) এর অন্যান্য সদস্যবৃ্ন্দ। এছাড়াও এই আন্তর্জতিক কনফারেন্সে উপস্থিত ছিলেনবিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও গবেষকবৃন্দ, গণমাধ্যমের প্রতিনিধিবৃন্দ,কানাডিয়ান হাইকমিশন, ইউনেস্কো সহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা ও দূতাবাসের প্রতিনিধিবৃন্দ, বিদেশী শিক্ষক ও গবেষকগণ।সিপিএস এর এর সমন্বয়ক, ড. এম জসিম উদ্দিন ধন্যবাদ জ্ঞাপনের মধ্য দিয়ে এই আন্তর্জাতিক কনফারেন্স সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 deshersangbad.com/
Design & Developed BY Freelancer Zone