শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৭:২৫ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
মেয়ের খোঁজ নিতেন না তামিমা শাহবাগে লেখক মুশতাকের গায়েবানা জানাজা, জুতা মিছিল বনানীতে বিএনপির মশাল মিছিলে পুলিশের হামলার অভিযোগ অন্যের বিশ্বাসের প্রতি আঘাত করে লিখতেন মুশতাক: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রতি সোম ও বৃহস্পতিবার চলবে ঢাকা-নিউ জলপাইগুড়ি ট্রেন আতিকের প্রতারণার তথ্য পেল পুলিশ! কৃষকনেতা বি এম সোলায়মান মাষ্টার এর ৮ম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত গাবতলীর কাগইলে ফ্রি চিকিৎসা ক্যাম্প অনুষ্ঠিত গাবতলীর কাগইল করুণা কান্ত স্মৃতি ফুটবল টুনামেন্ট উদ্বোধন গাইবান্ধায় আটক ঘড়িয়ালটি যমুনা নদীতে অবমুক্ত সাঁথিয়ার একমাত্র মহিলা বীর মুক্তিযোদ্ধা ভানু নেছা আর নেই বাংলাদেশ শ্রমিক ফেডারেশন এর সাধারণ সভা ও জাতীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠিত শেখ হাসিনা সরকার ক্ষতায় থাকলে অদুর ভবিষ্যতে দেশে অনুদান নেয়ার লোক থাকবেনা ……………………খাদ্য মন্ত্রী বরিশালে মহাসড়কের পাশে গড়ে উঠছে অবৈধ স্থাপণা জেলে মুশতাকের মৃত্যুর দায় সরকারের : মোমিন মেহেদী

লক্ষ্মীপুরে ছাত্রকে পিটিয়ে রক্তাক্ত : শিক্ষক কারাগারে

নিজস্ব প্রতিবেদক: লক্ষ্মীপুরে এজাজ রায়হান (১৩) নামে অষ্টম শ্রেণির এক মাদ্রাসা ছাত্রকে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করার ঘটনায় শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে শিক্ষক ছায়েদুর রহমানকে আসামি করে আহত ছাত্রের বাবা আরিফ হোসেন সদর মডেল থানায় এ মামলা করেন। পরে তাকে লক্ষ্মীপুর আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

বুধবার (৪ সেপ্টেম্বর) বিকেলে জেলা শহরের উত্তর তেমুহনী এলাকার তানযীমুল মিল্লাত একাডেমি থেকে আটক শিক্ষককে ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

এরআগে বুধবার বিকেলে এ ঘটনায় রায়হানের ফুফা ও জেলা পরিষদের সদস্য মাহবুবুল হক মাহবুব সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেন। এ প্রেক্ষিতে বিকেলেই পুলিশ পাঠিয়ে ওই শিক্ষককে আটক করা হয়েছিল। একই সময় পাঠদানের অনুমতি না থাকা শর্তেও কার্যক্রম অব্যাহত থাকায় মাদারাসা বন্ধ করে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।

আহত ছাত্র রায়হান সদর উপজেলার চররুহিতা ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়াডের প্রবাসী আরিফ হোসেনের ছেলে ও তানযীমুল মিল্লাত একাডেমির ছাত্র। অভিযুক্ত ছায়েদ একই মাদ্রাসার শিক্ষক।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, প্রায় ৫ দিনে জ্বরে আক্রান্ত ছিল রায়হান। সুস্থ হলে বুধবার সে মাদ্রাসায় আসে। মাদ্রাসায় না আসার কারণ জানতে চাইলে শিক্ষক ছায়েদকে জ্বরের কথা জানায়। কিন্তু শিক্ষক তা কর্ণপাত করেননি। শাস্তি হিসেবে কুমড়া চেঙ্গি (পায়ের নিচ দিয়ে কান ধরে রাখা) দিতে বলে। এটা দিতে অস্বীকৃতি জানালে ওই শিক্ষক লাঠি দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে তাকে গুরুতর আহত করে। এতে তার হাত-পিঠসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে রক্তাক্ত জখম হয়। মাদরাসা শেষে বাসায় ফিরলে রক্তাক্ত জখম অবস্থায় দেখে তাকে সদর হাসপাতালে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়।

জেলা পরিষদের সদস্য মাহবুবুল হক মাহবুব বলেন, ইউএনও’র পরামর্শে আমরা শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা করেছি। আমরা ওই শিক্ষকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

সদর মডেল থানা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোসলেহ উদ্দিন বলেন, ছাত্রকে পেটানোর ঘটনায় শিক্ষকের বিরদ্ধে মামলা হয়েছে। দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শফিকুর রিদোয়ান আরমান শাকিল বলেন, ছাত্রকে পেটানোর ঘটনার অভিভাবককে থানায় মামলা করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ওই মাদ্রাসায় পাঠদানের কোন অনুমতি নেই। তা শর্তেও তারা পাঠ্য কার্যক্রম চালাচ্ছিল। এজন্য মাদ্রাসার কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38331166
Users Today : 1269
Users Yesterday : 6494
Views Today : 4043
Who's Online : 25
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/