মঙ্গলবার, ০৪ অগাস্ট ২০২০, ১১:০৪ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
৩ রাষ্ট্রদূতের চুক্তির মেয়াদ বাড়ালো সরকার পুলিশের গুলিতে মেজর (অব.) সিনহার মৃত্যু, মাঠে তদন্ত দল প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষকরা পদোন্নতি পেয়ে হবেন প্রধান শিক্ষক গাইবান্ধায় ব্রহ্মপুত্রের পানি এখনও বিপদসীমার ২২ সেন্টিমিটার উপরে করোনা ঝুঁকি উপেক্ষিত সাপাহারে ঐতিহ্যবাহী জবই বিল দর্শনার্থীদের পদ চারনায় মুখোরিত বকশীগঞ্জে পুকুরে ডুবে ২ শিশু মৃত্যু, চিকিৎসকের উপর  হামলা আহত ৪ সকল ব্যর্থতাকে সফল বলা সরকারের বিকৃত মানসিকতার বহিঃপ্রকাশ  .…….…আ স ম রব মানুষ মানুষের জন্য কলেজ শিক্ষার্থী’র জীবন বাচাঁতে এগিয়ে আসার আহবান ধর্ম এলম শিক্ষা করার ফযীলত ফকিরহাটে বজ্রপাতে একজনের মৃত্যু নড়াইল পৌর এলাকার দোকানপাটসহ গণপরিবহন বন্ধ ঘোষণা!! জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে মোঃআজিজুল হুদা চৌধুরী সুমন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ ১৫ই আগস্টের সকল শহীদের রূহের মাগফেরাত কামনা করেন। আত্রাইয়ে ওসি‘র হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেল স্কুলছাত্রী বিফা গাঁজাক্ষেতের খোঁজ, আটক ৩ কুষ্টিয়ায় সাপের ছোবলে সাপুড়ের মৃত্যু ১

সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে তথ্য প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসান এমপির শোক

মোঃ ইমরান মাহমুদ, জামালপুর :
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এডভোকেট সাহারা খাতুন এমপি’র মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা.মুরাদ হাসান এমপি।
এক শোকবার্তায় তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করে সাহারা খাতুন সারাজীবন অধিকার আদায় ও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন। নেতাকর্মীদের পাশে তিনি সবসময় আইনি সহায়তা নিয়ে উপস্থিত ছিলেন।
সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে দেশ একজন সৎ ও নিবেদিতপ্রাণ রাজনীতিককে হারালো এবং দল হারালো একজন উৎসর্গীকৃত সংগঠককে।
ডা. মুরাদ হাসান মরহুমার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং তাঁর শোক সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।
প্রসঙ্গত, থাইল্যান্ডের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এডভোকেট সাহারা খাতুন বৃহস্পতিবার রাতে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৭ বছর।
সাহারা খাতুনের কিছু কথা:
সাহারা খাতুন ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পান। এরপর তিনি ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর দায়িত্বও পালন করেন। তিনি ঢাকা-১৮ সংসদীয় আসনে পরপর তিনবার নির্বাচিত হন। সাহারা খাতুন ছিলেন দেশের প্রথম নারী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। ২০০৯ সালে শেখ হাসিনা সরকার গঠন করে সাহারা খাতুনকে যখন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী করেছিলেন, তখন তা ছিল চমকের মতোই। কিন্তু তার ঠিক আগে কঠিন সময়ে বিশ্বস্ততার পরিচয় দিয়েই দলীয় সভানেত্রীর আস্থা অর্জন করেছিলেন তিনি। ২০০৭ সালে জরুরি অবস্থা জারির পর শেখ হাসিনা গ্রেপ্তার হলে আওয়ামী লীগের যে কজন নেতা দলীয় সভানেত্রীর প্রতি আনুগত্য ধরে রেখে ছিলেন সক্রিয়, তাদেরই একজন সাহারা। দীর্ঘদিন রাজনীতিতে থাকলেও শেখ হাসিনার পক্ষে তখন আইনজীবী হিসেবে দাঁড়িয়েই ব্যাপক পরিচিতি পান তিনি বীনা পারিশ্রমিকে আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীদের নামে করা মামলা পরিচালনায় ভূমিকা রেখেও দলের নেতা-কর্মীদের কাছাকাছি ছিলেন সাহারা।
স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পর টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালন করেছিলেন সাহারা খাতুন। সরকারের শেষ পর্যায়ে ২০১২ সালের সেপ্টেম্বরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে সরিয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রীর দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল সাহারাকে। এরপর মন্ত্রীর দায়িত্ব আর না পেলেও আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য করা হয়েছিল সাহারা খাতুনকে। ২০০৮ সালের পর দুটি নির্বাচনেই ঢাকা-১৮ থেকে তাকে নৌকার প্রার্থী করা হয়েছিল।
সাহারা খাতুনের জন্ম ১৯৪৩ সনের ১ মার্চ ঢাকায় কুর্মিটোলায় জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবার নাম আবদুল আজিজ মাস্টার ও মায়ের নাম তুরজান নেছা। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি অবিবাহিত ছিলেন।
এলএলবি পাস করে সাহারা খাতুন ১৯৮১ সালে আইন পেশায় নিজেকে যুক্ত করেন। প্রয়াত রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমানের জুনিয়র হিসেবে তার কাজ শুরু হয়। আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীরা ২০০১ সালের ভোটের পর বিএনপির শাসনামলে মামলা পরিচালনায় সাহারার ভূমিকার কথা এখনও স্মরণ করেন। ব্যাংককে সাহারার সঙ্গে যাওয়া তার ব্যক্তিগত সহকারী ও ভাস্তে মোহাম্মদ আনিসুর রহমান বলেন, বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ১১টার দিকে তার মৃত্যু ঘটে।
সাহারা খাতুন জ্বর, অ্যালার্জির সমস্যাসহ বিভিন্ন জটিলতা নিয়ে গত ২ জুন ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। এরপর অবস্থার অবনতি হলে গত ১৯ জুন তাকে আইসিইউতে নেওয়া হয়েছিল। অবস্থার কিছুটা উন্নতি হলে কয়েকদিন পর তাকে আইসিইউ থেকে ফিরিয়ে আনা হলেও অবনতি ঘটলে আবার নিতে হয়। এর মধ্যেই পরিবারের সদস্যরা তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে নিতে চাইছিল, যদিও করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে তাতে দেরি হয়। সবশেষে গত সোমবার এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে থাইল্যান্ড নেওয়া হয়েছিল।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 deshersangbad.com/
Design & Developed BY Freelancer Zone