সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১:৫৮ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
করোনায় ধস নেমেছে বৈদেশিক কর্মসংস্থানে এমসি কলেজের অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে যতো অভিযোগ বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা এক সফল রাষ্ট্রনায়কের প্রতিকৃতি জন্মদিনে দোয়া চেয়ে যা বললেন প্রধানমন্ত্রী স্বজন ও আইনজীবীদের সাক্ষাৎ পাবেন না ওসি প্রদীপ এমপি রতন ও তার স্ত্রীর ব্যাংক হিসাব তলব তাজউদ্দিন আহমদের বোনের ইন্তেকাল, প্রধানমন্ত্রীর শোক ১২ নভেম্বর ভোট হবে ইভিএমে ঢাবি ছাত্রলীগ সভাপতিকে ক্যাম্পাসে দেখতে চায় না শিক্ষার্থীরা ঢাবি এলাকায় নুর, ড. কামাল ও আসিফ নজরুল অবা‌ঞ্ছিত তারুণ্যের অগ্রযাত্রার উদ্যোগে ব্যতিক্রমভাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন পালন প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে বিরামপুরে বৃক্ষরোপণ ও দোয়া মাহফিল কর্মসূচি কক্সবাজারের চকরিয়ায় ২ শিশু ভাই-বোন কে জবাই করে ও হাত কেটে হত্যার চেষ্টা! দেশের গন্ডি পেরিয়ে শেখ হাসিনা এখন বিশ্ব নন্দিত নেতা: রেজাউল করিম চৌধুরী পশ্চিম সুন্দরবনের অভয়ারন্যে পাঁচ জেলে আটক

সিনহা হত্যা: সেই রাতের ভয়ানক দৃশ্য বর্ণনা করলেন মসজিদের ইমাম

অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা রাশেদ খানকে যে স্থানে গুলি করা হয় তা ছিলো এপিবিএনের চেকপোস্ট।

অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহাকে যেখানে গুলি করা হয় তা ছিলো এপিবিএনের চেকপোস্ট। এখানে শুধু এপিবিএনের সদস্যরাই দায়িত্ব পালন করেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ১৬ এপিবিএনের অধিনায়ক। অভিযানের আগে এপিবিএনকে কোনো তথ্য দেয়া হয়েছিলো কিনা তাও স্পষ্ট জানা যায়নি। আর যাদের অভিযানে মৃত্যু হয়, তাদের পরনে পুলিশের পোশাক ছিল না; সবাই ছিলেন সাদা পোশাকে।

শামলাপুর চেকপোস্টটি বেশ ব্যতিক্রম। চেকপোস্টের পাশেই জনাকীর্ণ বাজার, আছে মসজিদও। প্রতিদিনের মতো ঘটনার রাতে এশার নামাজ পড়ে মসজিদের ভেতরেই বসেছিলেন বায়তুন নুর জামে মসজিদের ইমাম হাফেজ শহীদুল ইসলাম। একটি গুলির আওয়াজ শুনে ছাদে আসেন। যেখান থেকে ঘটনাস্থলের দূরত্ব ২০ গজের মধ্যে।

বায়তুন নুর জামে মসজিদের খতিব ও ইমাম হাফেজ শহীদুল ইসলাম বলেন, ‘গুলির শব্দ শুনে ছাদে আসলাম। ছাদে আসার পর দেখলাম পরপর আরো তিনটি গুলি করা হলো। যাকে গুলি করছিল তিনি হাত উপরে তুলে হাঁটু গেড়ে বসেছিলেন।’ যিনি গুলি করেছেন তিনি সিভিল পোশাকে ছিলেন বলেও উল্লেখ করে করেন মসজিদের ইমাম।

শামলাপুর চেকপোস্ট যেখানে অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহাকে গুলি করা হয় মঙ্গলবার সেখানে দেখা যায় তিনজন এপিবিএনের সদস্য দায়িত্ব পালন করছেন। কোনো বক্তব্য দিতে রাজি না হলেও জানালেন, তিনদিন হলো তারা এই চেকপোস্টে যোগ দিয়েছেন। এই পোস্টে পুলিশের কোনো সদস্য দায়িত্ব পালন করেন না।

প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বরখাস্ত ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও পরিদর্শক লিয়াকতসহ কয়েকজন পুলিশ সদস্য ছিলেন সাদা পোশাকে। প্রদীপ কুমার ও লিয়াকত ছাড়া অন্যদের স্থানীয়রা চিনতে পারেননি। এই অভিযান কতটা যৌক্তিক ছিল তা জানতে টেলিফোনে কথা হয় ১৬-এপিবিএন অধিনায়ক পুলিশ সুপার হেমায়েতুল ইসলামের সঙ্গে।

তিনি বলেন, এ চেকপোস্টে এপিবিএন’র সদস্যরাই দায়িত্ব পালন করেন। তবে, এ চেকপোস্টের পাশে জেলা পুলিশের তদন্ত কেন্দ্র আছে। সেখানে একজন ইনচার্জের তত্ত্বাবধানে সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে গাড়ি তল্লাশি করেন। ঘটনার দিন এপিবিএনের সদস্যরা চেকপোস্টে দায়িত্ব পালন করছিলেন আর পাশেই জেলা পুলিশের তদন্ত কেন্দ্রে দায়িত্বরত ইনচার্জ একটি গাড়ি থামিয়ে তল্লাশি করেন।

এদিকে, টেকনাফ থানার নতুন ওসি জানালেন, পুলিশ আইন মেনে যেন কাজ করেন, সে দিকে লক্ষ্য রাখবেন।

৩১শে জুলাই রাতে কক্সবাজার মেরিন ড্রাইভের টেকনাফ থানার শামলাপুর পুলিশ চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

37515215
Users Today : 7116
Users Yesterday : 6006
Views Today : 19071
Who's Online : 73
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design & Developed BY Freelancer Zone