সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ০৭:৫৮ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
সাঁথিয়ার অজপাড়া গাঁয়ে নীরবে শিক্ষার আলো ছড়াচ্ছেন সিরাজ উদ-দৌলা সাঁথিয়ায় আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত টেকসই উন্নয়ন ও সুশাসন নিশ্চিতে নারীর ক্ষমতায়ন, নারী নেতৃত্ব ও জেন্ডার সমতা নিশ্চিতের আহ্বান টিআইবির হত্যা মামলার আসামি জামিনে মুক্ত হয়ে মেয়েকে ধর্ষণ সাপাহারে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত “আন্তর্জাতিক নারী দিবস-২০২১” উপলক্ষে স্টার্টআপদের নিয়ে আইসিটি বিভাগের iDEA এর বিশেষ সেমিনার খানসামায় আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত জনমনে আতঙ্ক আত্রাইয়ে দুবৃত্তের ছুরিকাঘাতে ব্যবসায়ী গুরুত্বর আহত আন্তর্জাতিক নারী দিবসে নারী অধিকার আন্দোলনের শুভেচ্ছা মাদারল্যান্ড গার্মেন্টস ওয়ার্কার্স ফেডারেশনের উদ্যোগে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উদযাপন ১২ সংগঠনের উদ্যোগে আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত ডোমারে আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত বীরাঙ্গনা বরের কেশে  এ আই অলিউদ্দীন  তৃষ্ণা মেটাতে ডাবের কদর বেড়েছে বরিশালে  ভুয়া সাংবাদিকদের প্রতারণার জাল  ! 

সেই সানজিদা ইয়াসমিন সাধনাকে নিয়ে মিললো আরও চাঞ্চল্যকর তথ্য

জামালপুর: পিয়ন পদে চাকরি করলেও ডিসি অফিসে দোর্দণ্ড প্রতাপে দাপিয়ে বেড়াতেন সানজিদা ইয়াসমিন সাধনা। তার প্রভাবের মুখে সব সময় কর্মকর্তা কর্মচারীরা থাকতো তটস্থ। শুধু কর্মচারীরাই নয় উর্ধতন কর্মকর্তাদেরও থোড়াই কেয়ার করতেন তিনি। চাকরি হারানোর শংকায় প্রতিবাদ করতে সাহস পেত না কেউ।

তবে জেলা প্রশাসক আহমেদ কবিরের সঙ্গে অশ্লীল ভিডিও ভাইরালের পর ভুক্তভোগী কর্মকর্তা-কর্মচারীরা মুখ খুলতে শুরু করেছেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বেশ কজন কর্মকর্তা কর্মচারী এ প্রতিবেদককে বলেন, সাধনা ২০১৮ সালে উন্নয়ন মেলায় হস্তশিল্পের স্টল বরাদ্ধ নেয়ার জন্য জেলা প্রশাসক আহমেদ কবিরের সাথে দেখা করেন। তার রূপে মুগ্ধ হয়ে বিনামূল্যে স্টল বরাদ্দ দেন জেলা প্রশাসক। উন্নয়ন মেলা চলাকালীন তাদের মধ্যে অনৈতিক সম্পর্ক গড়ে উঠে। পরবর্তীতে যা শারীরিক সর্ম্পকে রূপ নেয়। এমন একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে তাদের। ইতোমধ্যে আহমেদ কবিরকে ওএসডিও করা হয়েছে।

২০১৯ সালের জানুয়ারিতে ডিসি অফিসে ২৭ জনকে অফিস সহায়ক পদসহ ৫৫ জনকে নিয়োগ করা হয়। সেই সর্ম্পকের সূত্র ধরে সানজিদা ইয়াসমিন সাধনা নিজে ও তার দুই আত্মীয় রজব আলী ও সাবান আলীকে অফিস সহায়ক পদে নিয়োগ পাইয়ে দেন।

সাধনা অফিস সহায়ক পদে যোগদান করার পর জেলা প্রশাসকের অফিস রুমের পাশে খাস কামরাটিতে মিনি বেড রুমে রূপান্তর করতে খাট ও অন্যান্য আসবাবপত্রসহ সাজ্জসজ্জা করেন। সেই রুমেই চলতো তাদের রঙ্গলীলা।

অফিস চলাকালীন সময়ে তাদের রঙ্গলীলা অবাধ করতে সেই কামরার দরজায় বসানো হয়েছিল লাল ও সবুজ বাতি। রঙ্গলীলা চলাকালে লালবাতি জ্বলে উঠতো। দরজার সামনে দাঁড়িয়ে থাকতো বিশ্বস্ত পিয়ন। এই সময় কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ সবার জন্য প্রবেশাধিকারে নিষেধাজ্ঞা ছিল। এ সময় তার অফিসের বাইরে ফাইলপত্র নিয়ে অপেক্ষায় থাকতো কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ অনেকেই। লীলা শেষে পরিপাটি হয়ে যখন চেয়ারে বসতো তখন জ্বলে উঠতো সবুজ বাতি। সবুজ বাতি জ্বলে উঠার পরেই শুরু হতো দাপ্তরিক কার্যক্রম।

ডিসি অফিসে গুঞ্জন রয়েছে, ছায়া ডিসি সাধনার হাতে লাঞ্চিত হয়েছেন একাধিক উর্ধ্বতন কর্মকর্তা। ডিসির প্রভাব খাটিয়ে বিভিন্নি দপ্তরে বদলি, নিয়োগ ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি বাণিজ্য করে হাতিয়ে নিয়েছেন লাখ লাখ টাকা। জেলা প্রশাসকের স্বাক্ষরিত কাজে সাধনাকে ম্যানেজ করতো সুবিধাভোগীরা। সবার মাঝেই ছায়া ডিসি হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছিলেন এই প্রভাবশালী পিয়ন।

সাধনার জন্ম জামালপুর শহরের পাথালিয়া গ্রামে। মায়ের নাম ফেলানী বেগম। বাবা অহিজুদ্দিন। তার পেশা ছিল ঘোড়ার গাড়ি দিয়ে মালামাল আনা নেওয়া করা।

সাধনার জন্মের সময় অহিজুদ্দিনের ঘরে দেখা দেয় অভাব। অভাবের তাড়নায় সাধনার বয়স যখন ৭ দিন তখন দত্তক দেয় মাদারগঞ্জ উপজেলার বালিজুড়ি ইউনিয়নের সুখনগরী গ্রামের নিঃসন্তান খাজু মিয়া ও নাছিমা আক্তার দম্পতির কাছে।

তাদের লালন পালনে বেড়ে ওঠা সাধনার লেখাপড়া চলাকালীন সময়ে বিয়ে হয় একই উপজেলার জোনাইল গ্রামের বেসরকারি কোম্পানির কর্মচারী জাহিদুল ইসলামের সঙ্গে। পুর্ণ নামে এক পুত্র সন্তানের জন্মও হয়। ২০০৯ সালে আকস্মিকভাবে মারা যান তার স্বামী।

স্বামীর মৃ’ত্যুর পরে পালক পিতা মাতার সাথে জামালপুর শহরের বগাবাইদ গ্রামে বসবাস শুরু করে সাধনা। পরে টাঙ্গাইলের এক পুলিশ কনস্টেবলের সঙ্গে পালিয়ে দ্বিতীয় বিবাহে করেন তিনি।

সাধনার উচ্ছৃঙ্খল জীবন যাপন ও বাড়তি স্বাধীনতার কারণে টিকেনি দ্বিতীয় বিয়েও। দ্বিতীয় বিয়ে ভেঙ্গে যাবার পর তিনি ঘরেই দোকান দিয়ে বিক্রি করতেন দেশি-বিদেশি প্রসাধনী। সেই ব্যবসাতেও টিকতে না পেরে শুরু করেন হস্ত শিল্পের ব্যবসা।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38372531
Users Today : 4153
Users Yesterday : 2978
Views Today : 12476
Who's Online : 48
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/