শনিবার, ১০ এপ্রিল ২০২১, ০৮:৫৬ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
পাঁচ উপায়ে দূর করুন বিরক্তিকর ব্রণ ডালিমের ১০ আশ্চর্য গুণ যুক্তরাষ্ট্র প্রতিবছরে একশত বিলিয়ন মার্কিন ডলারের জলবায়ু তহবিল করবে বাসাভাড়া নিতে বাড়িওয়ালাকে নকল স্বামী দেখালেন প্রভা! প্রথম দিনেই ব্যাপক সাড়া ফেলেছে ‘মহব্বত’ সংকটে করোনা রোগীরা হাসপাতালগুলোতে ঘুরেও মিলছে না শয্যা অরাজকতা সৃষ্টির চেষ্টা করলে কঠোর ব্যবস্থা ব্রিটেনের রানি ও প্রধানমন্ত্রীকে শেখ হাসিনার চিঠি টিকা প্রতিরোধী ভয়ঙ্কর ভাইরাসের উৎপত্তিস্থল হবে বাংলাদেশ! লকডাউনে পোশাক কারখানা বন্ধ কিনা, জানা যাবে কাল বাংলাদেশে করোনা মৃত্যুতে রেকর্ড, কমেছে শনাক্ত করোনায় আক্রান্ত দুদকের ২১ কর্মকর্তা-কর্মচারী লকডাউনের আগের দু‍‍`দিন নিয়ে ধোঁয়াশা, যা বললেন প্রতিমন্ত্রী রাজারহাটে ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের উদ্বোধন প্রজাতন্ত্র দিবসকে রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি দিতে হবে ………আ স ম‌ রব

হিন্দুদের নির্যাতনে ৪০ টি মুসলিম পরিবার গ্রাম ছাড়া!

ভারতে মুসলমানরা কতটা নি’র্যা’যিত৷ যুগ যুগ ধরে তারা কী পরিমাণ সহিংসতা ও ব’র্বর’তার শিকার হয়ে আসছে তা কারো অজানা নয়৷ গত ২-১-২০২১ আল-জাজিরার একটি প্রতিবেদন থেকে বিষয়টি আরো পরিস্কার হয়ে গেছে।

রিপোর্টটিতে আলজাজিরা ব্রিটিশ সংবাদপত্র ‘দ্য টেলিগ্রাফ’–এর বরাত দিয়ে জানায় যে ভারতের উত্তরপ্রদেশে বসবাসরত প্রায় ৪০ টি মুসলিম পরিবার তাদের গ্রাম ছেড়ে পালানোর পরিকল্পনা করছে। হিন্দু জাতীয়তাবাদী গোষ্ঠী দ্বারা হয়রানির শিকার হওয়ার পরে এমন সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়।

সংবাদপত্রের প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে যে “মাভি মী’রা” নামক ঐ গ্রামটিতে মুসলমানদের বিরুদ্ধে হয়রানি মূলক কর্মকান্ড শুরু হয়েছে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ কর্তৃক হিন্দু ও মুসলমানদের মধ্যে বিবাহকে অপরাধ সাব্যস্ত করে আইন জারি করার এক মাস পর৷

রিপোর্টটিতে আরো উল্লেখ করা হয় যে, হিন্দু জাতীয়তাবাদী কট্টরপন্হী “বজরঙ দলএর একদল সদস্য গত ২৩ শে ডিসেম্বর গ্রামে একটি মুসলিম দোকানদারের বাড়িতে গুলি চালিয়েছিল, বিনামূল্যে সিগারেট দিতে অস্বিকৃতি জানানোর কারণে৷

‘দ্য টেলিগ্রাফ’ এর বিবৃতিনুযায়ী দোকানটির মালিক এবং তার পরিবার এই হামলায় আহত হয়নি, তবে গ্রামের সংখ্যালঘু আনুমানিক ৬০০ মুসলিম পরিবার তাত্ক্ষণিকভাবে চলে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে৷ এবং তাদের বাড়িতে ব্যানার টানিয়ে লিখে রেখেছে “এই বাড়িটি বিক্রি করা হবে, আমরা এই গ্রাম ছেড়ে চলে যাবো।

পত্রিকাটি ঐ গ্রামেরই অধিবাসী “সরতাজ আলম (২৫ ) ( যিনি ইতিমধ্যে এই সপ্তাহে তার পরিবার নিয়ে গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে গিয়েছেন) এর বরাত দিয়ে বলেছে যে, “আমি এবং আমার পরিবার গ্রামটিতে নিরাপদ বোধ করিনি৷ হিন্দু সম্প্রদায় আমাদের গ্রাম থেকে সরিয়ে দিতে চায়।

তারা আমাদের উপর হা’ম’লা করে এবং দীর্ঘদিন ধরে হয়রানি করে আসছে। আরিফ মালিক (যে হামলার শিকার সেই দোকানদারের এক আত্মীয়) বলেন “আমাদের পরিবারগু’লি ভারতের বিভিন্ন অংশে কর্মরত থাকা করে স্বজনদের প্রত্যাবর্তনের জন্য অপেক্ষা করছে৷

তারা এলেই আমরা এখান থেকে হিজরতের জন্য একটি নিরাপদ জায়গায় চলে যাবো৷ প্রতিবেদনে আরো উল্লেখ করা হয়েছে যে গ্রামে মুসলিম সংখ্যালঘু সদস্যরা মুসলিম দোকানদারের বাড়িতে গিয়ে গুলি চালানোর ঘটনাটি রেকর্ড করার জন্য স্থানীয় পুলিশের সাথে যোগাযোগ করেছিলো৷

কিন্তু তারা বলে যে কিছু হিন্দু কর্মকর্তা তাদের অভিযোগ প্রত্যাহার করার নির্দেশ দিয়েছে৷ তারা তা অমান্য করলে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করার হু’মকিও দিয়েছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশের সংবাদ নিউজ পোটালের সেকেনটের ভিজিটর

38440344
Users Today : 1390
Users Yesterday : 1410
Views Today : 11862
Who's Online : 33
© All rights reserved © 2011 deshersangbad.com/
Design And Developed By Freelancer Zone